The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪

ঢাবির মুহসীন হলের সুবর্ণজয়ন্তী ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ঐতিহ্যবাহী হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলের সুবর্ণজয়ন্তী ও হল অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রথম পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান হল মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (১০ মার্চ) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, একটি অরাজনৈতিক সংগঠন হিসেবে হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে। তিনি এ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন প্রতিষ্ঠার সঙ্গে জড়িতদের আন্তরিক ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, হল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে অ্যালামনাইদের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে হবে।

হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল মান্নান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. মাসুদুর রহমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি অধ্যাপক ড. খন্দকার বজলুল হক, বিশিষ্ট শিল্পপতি ও সাবেক ছাত্রনেতা নুরুল ফজল বুলবুল, দি ডেইলি স্টারের সম্পাদক মাহফুজ আনাম এবং হল অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ইস্তাক আহম্মেদ শিমুল।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান উদ্বোধনী বক্তব্যে অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, হলের নবীন ও প্রবীণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক ও সেতুবন্ধন তৈরিতে এ সংগঠন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। কল্যাণ তহবিল গঠনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বৃত্তিসহ আর্থিক সুরক্ষা দেওয়াসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সামগ্রিক উন্নয়নে এগিয়ে আসার জন্য উপাচার্য অ্যালামনাইদের প্রতি আহ্বান জানান।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.