হাসপাতালে ভর্তি ও মৃত্যু ঘটাচ্ছে ওমিক্রন, সতর্ক করলো হু

করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন বিশ্বব্যাপী মানুষের প্রাণহানী ঘটাচ্ছে; এ কারণে এটাকে খাটো করে দেখা উচিৎ নয় বলে মনে করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)। শুক্রবার এনডিটিভি এ খবর জানিয়েছে।

হু এর প্রধান টেড্রোস আধানম গ্রেব্রিয়েসুস বলেন, নতুন এ ধরনটিতে রেকর্ড সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। অনেক দেশে আগের প্রভাববিস্তারকারী ডেল্টা ধরনকেও ছাড়িয়ে গেছে এটি (ওমিক্রন), যার মানে হানপাতালগুলো রোগীতে পরিপূর্ণ।

এক সংবাদ সম্মেলনে বৃহস্পতিবার গ্রেব্রিয়েসুস বলেন, ‘ডেল্টার তুলনায় ওমিক্রনকে কম ভয়ঙ্কর বলে মনে হয়েছে, বিশেষ করে তাদের ক্ষেত্রে যারা করোনার টিকা নিয়েছেন; এর মানে এই নয় যে এটাকে হালকা বলে ধরে নেয়া ঠিক হবে।’

হু এর প্রধান বলেন, ‘আগের ধরনটির (ডেল্টা) মতো ওমিক্রনে হাসপাতালে ভর্তি বেড়েছে এবং মানুষের মৃত্যুর কারণ হচ্ছে।’

তিনি বলেন, মূলত, শনাক্তের এ সুনামি এতো বৃহৎ ও দ্রুততর সময়ের মধ্যে যে, এটি সারা বিশ্বের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার ওপর ব্যাপক চাপ প্রয়োগ করছে।

শুক্রবার ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬ হাজার ৬৬৯ জন, যা আগের দিনের তুলনায় প্রায় ৫০০ কম। এ নিয়ে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছালো ৫৪ লাখ ৮৯ হাজার ৩১০ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২৪ লাখ ২৪ হাজার ৬২ জন। করোনার মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৩০ কোটি ৬ লাখ ১১ হাজার ১৭ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। যুক্তরাষ্ট্রে নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ৯৩ হাজার ৭০৭ জন এবং মারা গেছেন ১ হাজার ৯৮৯ জন।

এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৫ কোটি ৯৫ লাখ ৬ হাজার ৩১১ জন এবং প্রাণহানি ঘটেছে ৮ লাখ ৫৫ হাজার ৬৭১ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাণহানির তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে রাশিয়া। গত ২৪ ঘন্টায় রাশিয়ায় মারা গেছে ৮০২ জন আর নতুন করে সংক্রমিত ১৫ হাজার ৩১৬ জন।

শনাক্তের বিবেচনায় তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। মৃতের সংখ্যার তালিকায় দেশটির অবস্থান তৃতীয়। মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ৩ কোটি ৫২ লাখ ২৩ হাজার ৭৭০ জন এবং মারা গেছেন ৪ লাখ ৮২ হাজার ৯১১ জন।