The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪

গ্যাং নেতার সাক্ষাৎকার নিতে গিয়ে গুলিতে প্রাণ গেল ২ সাংবাদিকের

হাইতির রাজধানী পোর্ট-অ-প্রিন্সের কাছে লেবোল টুয়েলভ এলাকায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে দুই সাংবাদিক নিহত হয়েছেন। ওই এলাকায় সশস্ত্র গ্যাং নেতার সাক্ষাৎকার নিতে যাওয়ার সময় তাঁদের গুলি করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, ওই গ্যাংয়ের প্রতিপক্ষের সদস্যরা সেখানে দায়িত্বরত সাংবাদিকদের ওপর গুলি চালিয়েছেন। এক পুলিশ কর্মকর্তা এবং স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এসব তথ্য জানিয়েছে।
লেবোল টুয়েলভ এলাকাটির নিয়ন্ত্রণ নিতে বেশ কয়েকটি সশস্ত্র গ্যাং সক্রিয়। স্থানীয় সময় গতকাল বৃহস্পতিবার এ এলাকাতেই সাংবাদিকদের ওপর হামলা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা রয়টার্সের কাছে নিহত সাংবাদিকদের পরিচয় প্রকাশ করেছেন। তাঁর তথ্য অনুযায়ী নিহত সাংবাদিকেরা হলেন এমাডি জন ওয়েসলি ও উইলগুয়েনস লুইসেন্ট। মন্ট্রিলভিত্তিক রেডিও স্টেশন ইকুট এফএমের সংবাদকর্মী হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন ওয়েসলি। আর লুইসেন্ট ছিলেন স্থানীয় প্রতিবেদক। ওই পুলিশ কর্মকর্তা আরও বলেন, ওই দুজনের সঙ্গে আরও এক সাংবাদিক ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন। তিনি হামলার ঘটনায় অক্ষত অবস্থায় পালাতে সক্ষম হন।

ইকুট এফএম কর্তৃপক্ষ ওয়েসলির মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে। এক বিবৃতিতে এ হত্যাকাণ্ডকে ‘অপরাধমূলক ও বর্বর’ কর্মকাণ্ড বলে উল্লেখ করেছে তারা।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. অপরাধ ও শৃঙ্খলা
  3. গ্যাং নেতার সাক্ষাৎকার নিতে গিয়ে গুলিতে প্রাণ গেল ২ সাংবাদিকের

গ্যাং নেতার সাক্ষাৎকার নিতে গিয়ে গুলিতে প্রাণ গেল ২ সাংবাদিকের

হাইতির রাজধানী পোর্ট-অ-প্রিন্সের কাছে লেবোল টুয়েলভ এলাকায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে দুই সাংবাদিক নিহত হয়েছেন। ওই এলাকায় সশস্ত্র গ্যাং নেতার সাক্ষাৎকার নিতে যাওয়ার সময় তাঁদের গুলি করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, ওই গ্যাংয়ের প্রতিপক্ষের সদস্যরা সেখানে দায়িত্বরত সাংবাদিকদের ওপর গুলি চালিয়েছেন। এক পুলিশ কর্মকর্তা এবং স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এসব তথ্য জানিয়েছে।
লেবোল টুয়েলভ এলাকাটির নিয়ন্ত্রণ নিতে বেশ কয়েকটি সশস্ত্র গ্যাং সক্রিয়। স্থানীয় সময় গতকাল বৃহস্পতিবার এ এলাকাতেই সাংবাদিকদের ওপর হামলা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা রয়টার্সের কাছে নিহত সাংবাদিকদের পরিচয় প্রকাশ করেছেন। তাঁর তথ্য অনুযায়ী নিহত সাংবাদিকেরা হলেন এমাডি জন ওয়েসলি ও উইলগুয়েনস লুইসেন্ট। মন্ট্রিলভিত্তিক রেডিও স্টেশন ইকুট এফএমের সংবাদকর্মী হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন ওয়েসলি। আর লুইসেন্ট ছিলেন স্থানীয় প্রতিবেদক। ওই পুলিশ কর্মকর্তা আরও বলেন, ওই দুজনের সঙ্গে আরও এক সাংবাদিক ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন। তিনি হামলার ঘটনায় অক্ষত অবস্থায় পালাতে সক্ষম হন।

ইকুট এফএম কর্তৃপক্ষ ওয়েসলির মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে। এক বিবৃতিতে এ হত্যাকাণ্ডকে ‘অপরাধমূলক ও বর্বর’ কর্মকাণ্ড বলে উল্লেখ করেছে তারা।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন