The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

রাবি শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশের টিয়ারশেল নিক্ষেপ

রাবি প্রতিনিধি: বিনোদপুরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাথে স্থানীয়দের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় আহত হয়েছে প্রায় ২০০ শিক্ষার্থী । এসময় পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে ছাত্রদের ওপর।

শনিবার (১১ মার্চ) সন্ধ্যা ৭টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিনোদপুর গেইট বাস ভাড়াকে কেন্দ্র করে হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় বিনোদপুর গেইটে দুপক্ষ অবস্থা নেয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিনোদপুর গেটে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী নিজ বাড়ি বগুড়া থেকে বিশ্ববিদ্যালয় আসার সময় বাসের ভাড়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হয়। সন্ধ্যা ৬ টায় মোহাম্মদ নামের ঐ বাসে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ছিল। বিনোদনপুর বাজারে আসলে বাসের লোকজনের সাথে রাবি শিক্ষাথীদের ভাড়া নিয়ে সমস্যা হয়। পরে কাউন্টারে আসলে স্থানীয়দের সাথে কথা কটাকাটিতে সংঘর্ষ বড় রূপ নেয়।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল থেকে শিক্ষার্থীরা এসে বিনোদপুর গেইটে জড়ো হওয়া শুরু করে। এদিকে স্থানীয়রাও গেইটের অপর পক্ষে অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষ রাজশাহী -ঢাকা মহাসড়কে মধ্যে ইট পাটলকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়।

শিক্ষার্থীরা বলছেন স্থানীয়দের এমন অত্যাচার আমরা মেনে নিতে পারছি না। কিছু হলেই তারা শিক্ষার্থীদের মারছে, প্রতিবাদ করারও সুযোগ দিচ্ছে না।এদিকে পুলিশও আমাদের এসে টিয়ারশেল নিক্ষেপ করছে। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, আমাদের অনেক শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। আমরা সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। শিক্ষার্থীদের তিনি শান্ত থাকার আহবান জানান।

প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা এখনো বিশ্ববিদ্যালয় বিনোদপুর গেইটে অবস্থান নিয়ে আছে। আহত শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর রাজশাহী মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।
সোহানুর রহমান/

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. ক্যাম্পাস
  3. রাবি শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশের টিয়ারশেল নিক্ষেপ

রাবি শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশের টিয়ারশেল নিক্ষেপ

রাবি প্রতিনিধি: বিনোদপুরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাথে স্থানীয়দের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় আহত হয়েছে প্রায় ২০০ শিক্ষার্থী । এসময় পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে ছাত্রদের ওপর।

শনিবার (১১ মার্চ) সন্ধ্যা ৭টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিনোদপুর গেইট বাস ভাড়াকে কেন্দ্র করে হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় বিনোদপুর গেইটে দুপক্ষ অবস্থা নেয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিনোদপুর গেটে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী নিজ বাড়ি বগুড়া থেকে বিশ্ববিদ্যালয় আসার সময় বাসের ভাড়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হয়। সন্ধ্যা ৬ টায় মোহাম্মদ নামের ঐ বাসে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ছিল। বিনোদনপুর বাজারে আসলে বাসের লোকজনের সাথে রাবি শিক্ষাথীদের ভাড়া নিয়ে সমস্যা হয়। পরে কাউন্টারে আসলে স্থানীয়দের সাথে কথা কটাকাটিতে সংঘর্ষ বড় রূপ নেয়।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল থেকে শিক্ষার্থীরা এসে বিনোদপুর গেইটে জড়ো হওয়া শুরু করে। এদিকে স্থানীয়রাও গেইটের অপর পক্ষে অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষ রাজশাহী -ঢাকা মহাসড়কে মধ্যে ইট পাটলকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়।

শিক্ষার্থীরা বলছেন স্থানীয়দের এমন অত্যাচার আমরা মেনে নিতে পারছি না। কিছু হলেই তারা শিক্ষার্থীদের মারছে, প্রতিবাদ করারও সুযোগ দিচ্ছে না।এদিকে পুলিশও আমাদের এসে টিয়ারশেল নিক্ষেপ করছে। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, আমাদের অনেক শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। আমরা সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। শিক্ষার্থীদের তিনি শান্ত থাকার আহবান জানান।

প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা এখনো বিশ্ববিদ্যালয় বিনোদপুর গেইটে অবস্থান নিয়ে আছে। আহত শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর রাজশাহী মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।
সোহানুর রহমান/

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন