The Rising Campus
News Media
শুক্রবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩

যেখানে বিনয়, সেখানেই বিজয়- বাকৃবি উপাচার্য

আমান উল্লাহ, বাকৃবি প্রতিনিধি: আমরা জনগণের সেবক। সেবাই আমাদের কাজ। বিনয় যেখানে বিজয় সেখানে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেকের নিজ নিজ অবস্থান থেকে সততার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে। শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবান্ধব বিশ্ববিদ্যালয় গড়তে সবাইকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। তাহলে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়কে একটি মডেল বিশ্ববিদ্যালয়ে রুপান্তরিত করা সম্ভব হবে।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) অনুষ্ঠিত ‘ব্যক্তি, প্রাতিষ্ঠানিক এবং রাষ্ট্রীয় ক্ষেত্রে নৈতিকতা’ শীর্ষক এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান এসব কথা বলেন।

মঙ্গলবার (০৩ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়টির কৃষি অনুষদের সম্মেলন কক্ষে ওই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালাটি আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয়টির ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেল (আইকিউএসি)।

কর্মশালায় উপাচার্য আরও বলেন, কৃষিতে ব্যাপক পরিবর্তন আনতে বিভিন্ন গবেষণা চলছে। এক গবেষণায় দেখা গেছে, উত্তরবঙ্গের কৃষকেরা জমিতে মাত্রাতিরিক্ত ফসফেট সার ব্যবহার করেন। কৃষকেরা যদি ফসফেট সার সঠিক মাত্রায় ব্যবহার করেন তাহলে বর্তমানে ব্যবহৃত ফসফেট সারের দশ ভাগের এক ভাগ দিয়ে কাঙ্খিত ফলন পাওয়া সম্ভব। মাত্রাতিরিক্ত সার ব্যবহারের কারণে কৃষকের উৎপাদন খরচ বেড়ে যাচ্ছে। এতে কৃষকের লভ্যাংশ কমে যাচ্ছে।

কর্মশালায়, আইকিউএসির পরিচালক অধ্যাপক ড. সুকুমার সাহার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রেজিস্ট্রার মো. ছাইফুল ইসলাম ও কোষাধ্যক্ষ মো. রাকিব উদ্দীন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক ড. মো. গোলজার হোসেন।

উল্লেখ্য, ওই কর্মশালায় বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃতীয়, চতুর্থ ও কারিগরী বিভাগের শতাধিক কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।

0
You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. হোম
  2. ক্যাম্পাস
  3. যেখানে বিনয়, সেখানেই বিজয়- বাকৃবি উপাচার্য

যেখানে বিনয়, সেখানেই বিজয়- বাকৃবি উপাচার্য

আমান উল্লাহ, বাকৃবি প্রতিনিধি: আমরা জনগণের সেবক। সেবাই আমাদের কাজ। বিনয় যেখানে বিজয় সেখানে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেকের নিজ নিজ অবস্থান থেকে সততার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে। শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবান্ধব বিশ্ববিদ্যালয় গড়তে সবাইকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। তাহলে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়কে একটি মডেল বিশ্ববিদ্যালয়ে রুপান্তরিত করা সম্ভব হবে।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) অনুষ্ঠিত ‘ব্যক্তি, প্রাতিষ্ঠানিক এবং রাষ্ট্রীয় ক্ষেত্রে নৈতিকতা’ শীর্ষক এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান এসব কথা বলেন।

মঙ্গলবার (০৩ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়টির কৃষি অনুষদের সম্মেলন কক্ষে ওই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালাটি আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয়টির ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেল (আইকিউএসি)।

কর্মশালায় উপাচার্য আরও বলেন, কৃষিতে ব্যাপক পরিবর্তন আনতে বিভিন্ন গবেষণা চলছে। এক গবেষণায় দেখা গেছে, উত্তরবঙ্গের কৃষকেরা জমিতে মাত্রাতিরিক্ত ফসফেট সার ব্যবহার করেন। কৃষকেরা যদি ফসফেট সার সঠিক মাত্রায় ব্যবহার করেন তাহলে বর্তমানে ব্যবহৃত ফসফেট সারের দশ ভাগের এক ভাগ দিয়ে কাঙ্খিত ফলন পাওয়া সম্ভব। মাত্রাতিরিক্ত সার ব্যবহারের কারণে কৃষকের উৎপাদন খরচ বেড়ে যাচ্ছে। এতে কৃষকের লভ্যাংশ কমে যাচ্ছে।

কর্মশালায়, আইকিউএসির পরিচালক অধ্যাপক ড. সুকুমার সাহার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রেজিস্ট্রার মো. ছাইফুল ইসলাম ও কোষাধ্যক্ষ মো. রাকিব উদ্দীন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক ড. মো. গোলজার হোসেন।

উল্লেখ্য, ওই কর্মশালায় বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃতীয়, চতুর্থ ও কারিগরী বিভাগের শতাধিক কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন