The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪

মুভি দেখার অভিজ্ঞতা বাড়িয়ে দিবে নিও কিউএলইডি এইটকে টিভি

পরিবার-পরিজন আর বন্ধুবান্ধবের সাথে ‘মুভি নাইট’এর পরিকল্পনা করার চেয়ে আনন্দের আর কি হতে পারে! তাই, আমরা সাধারণত এমনভাবে ঘর সাজাই এবং দেয়ালের এমন জায়গায় টিভি রাখি, যেনো সেখান থেকে সবাইল মিলে টিভিতে মুভি দেখার সময়, থিয়েটারে মুভি দেখার কাছাকাছি অভিজ্ঞতা হয়। তবে, সবাই একসাথে ‘স্পাইডার-ম্যান: ইনটু দ্য স্পাইডার-ভার্স’ কিংবা ‘জাওয়ান’ দেখার মুভি দেখার আনন্দ মাটি করে দিতে পারে টিভির স্ক্রিন কিংবা সাউন্ডের অস্বচ্ছতা।

এক্ষেত্রে, মুভি নাইটে অনন্য অভিজ্ঞতা উপভোগ করার ক্ষেত্রে ভালো টিভির ওপর বিনিয়োগ করার কোনো বিকল্প নেই। আর এক্ষেত্রে কোয়ান্টাম ডট টেকনোলোজি সহ স্যামসাংয়ের টিভির চেয়ে ভালো আর কি হতে পারে! দুর্দান্ত পারফরমেন্স আর এইটকে’র সবচেয়ে প্রিমিয়াম টিভিগুলোর মধ্যে অন্যতম এই নিও কিউএলইডি এইটকে টিভি। সাধারণত, দেখার অভিজ্ঞতা সমৃদ্ধ করার ক্ষেত্রে ছবির মান হচ্ছে এইটকে টিভির প্রধান সক্ষমতা।

আপনি যখন এইটকে টিভিতে ‘স্পাইডার-ম্যান: ইন্টু দ্য স্পাইডার-ভার্স’ মুভিটি দেখবেন, তখন ছবির ক্ষেত্রে টিভির সংবেদনশীলতা দেখে অভিভূত হতে বাধ্য হবেন। যখন পিটার পার্কার ও মাইলস মোরালেস ড. অলিভিয়া অক্টাভিয়াসের কাছ থেকে পালানোর জন্য শরতের গাছগুলোর মধ্য দিয়ে দোল খেতে খেতে এগিয়ে যাবে, এর কমলা, লাল আর হলুদের বাস্তবতা আপনাকে নিয়ে যাবে মুভিটির কমিক বইয়ের অনুভূতিতে। প্রতিটি দৃশ্য একদম নিখুঁতভাবে দেখতে পাবেন আপনি, যেখানে দোল খাওয়া শেখার ক্ষেত্রে মাইলসের উন্নতির একদম সামান্য মুহূর্তও পরিস্কার বোঝা যাবে।

টিভির সেরা অ্যান্টি-গ্লেয়ার টেকনোলোজি কার্যকরভাবে রিফ্লেকশন কমিয়ে এনে দেখার অভিজ্ঞতা সমৃদ্ধ করে। এছাড়া, দর্শকরা যেন প্রাণবন্ত অভিজ্ঞতা পান সেক্ষেত্রে ফোরকে টিভিগুলোতে সাধারণত দুর্দান্ত সাউন্ড কোয়ালিটি নিশ্চিত করা হয়। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, ‘জাওয়ান’র ‘কার চেইজের’ দৃশ্যে আপনি ইঞ্জিন দৌড়ানোর শব্দ একদিক থেকে আরেকদিকে যাচ্ছে, এমনটা শুনতে পাবেন।

সেরা টিভি নিশ্চিত করার পাশাপাশি, আপনাকে সেরা মুভি স্ট্রিমিং সার্ভিসও নিশ্চিত করতে হবে। সেক্ষেত্রে ‘মুভি নাইট’কে অনবদ্য করে তুলতে এখন স্মার্ট টিভি ইন্টারফেসে নেটফ্লিক্স বা অ্যামাজন প্রাইমের মতো অ্যাপ্লিকেশনগুলো দেয়া থাকে। মুভি দেখার অভিজ্ঞতা আরও সমৃদ্ধ করতে টিভিতে নিউরাল কোয়ান্টাম প্রসেসর এইটকে’র মতো সর্বাধুনিক ভিউয়িং টেকনোলোজি থাকা প্রয়োজন। আর নেটফ্লিক্সের প্রিমিয়াম প্ল্যান নেয়া থাকলে তো আপনি নিজের এইটকে টিভিতেই, কনটেন্টগুলো দেখার সুযোগ পাবেন। আর বন্ধুদের মধ্যমণি হয়ে ওঠার পাশাপাশি, খুব সহজেই আরেকটি মুভি নাইটের পরিকল্পনা করে ফেলতে পারবেন।

আর অবশ্যই, স্ন্যাকসের কথা ভুলবেন না। পছন্দের স্ন্যাকসের ওপর নির্ভর করে মানুষ আপনার সম্পর্কে ধারণা করতে পারে; তাই, ‘মুভি নাইটে’ সকলের পছন্দের স্ন্যাকস আছে কি না তা নিশ্চিত করুন। এছাড়া, এই আয়োজনকে আরও সমৃদ্ধ করতে নির্দিষ্ট মুভির ওপর ফান কুইজ বা পছন্দের ক্যারেক্টারের ওপর শারাডজ খেলার মতো কিছু গেমসের পরিকল্পনাও করা যেতে পারে। আর অবশ্যই সাথে ব্ল্যাংকেট ও হট চকোলেট নিতে ভুলবেন না; কারণ, আমরা সবাই একটু আরামদায়কভাবে মুভি দেখতে ভালোবাসি।

এখন আমরা খুব সহজেই পরিবার ও বন্ধুদের সাথে একটি ‘মুভি নাইট’ করে ফেলার পরিকল্পনা করতে পারি। আর ফোরকে টিভির মাধ্যমে এই মুভি দেখার অভিজ্ঞতা হবে আরও অনবদ্য, এই উদযাপন হয়ে উঠবে আরও প্রাণবন্ত। আর আপনি এই আসরে বন্ধুদের মাঝে মধ্যমণিতে পরিণত হবেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.