The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪

বর্ণিল আয়োজনে জাবিতে মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত

জাবি প্রতিনিধিঃ বাংলা নববর্ষকে স্বাগত জানিয়ে মঙ্গল শোভাযাত্রা করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি)। শুক্রবার (১৪ এপ্রিল) সকাল ১০টায় শোভাযাত্রাটি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় অনুষদ ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে পরিবহন চত্বর, শহীদ মিনার হয়ে অমর একুশের পাদদেশে এসে উপাচার্যের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

এবারের বর্ষবরণের প্রতিপাদ্য ‘বরিষ ধরা—মাঝে শান্তির বারি’কে ধারণ করে শান্তির প্রতীক পায়রা নিয়ে শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেছেন শিক্ষার্থীরা। আবহমান বাংলার ঐতিহ্য মৃৎশিল্পের নিদর্শন হিসেবে দু’টি টেপা পুতুল তৈরি করা হয়েছে। সেই সাথে পেঁচা, বাঘ, হাতি, ঘোড়ার আদলে মুখোশ পরে শোভাযাত্রায় অংশ নিয়েছেন শিক্ষক—শিক্ষার্থীরা।

শোভাযাত্রা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নূরুল আলম বলেন, ‘ মঙ্গল শোভাযাত্রা বাঙালির কৃষ্টি ও ঐতিহ্যের অংশ। আমি সকলকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। নতুন বছরে সকলের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি। নববর্ষ সবার জীবনে বয়ে আসুক সুখ শান্তি।’

এসময় শোভাযাত্রায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো—ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মনজুরুল হক, ট্রেজারার অধ্যাপক ড. রাশেদা আখতার, প্রভোস্ট কমিটির সভাপতি অধ্যাপক নাজমুল হাসান তালুকদার, ছাত্র—শিক্ষক কেন্দ্রের পরিচালক অধ্যাপক ড. আলমগীর কবির, চুক্তিভিত্তিক রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ প্রমুখ।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. ক্যাম্পাস
  3. বর্ণিল আয়োজনে জাবিতে মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত

বর্ণিল আয়োজনে জাবিতে মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত

জাবি প্রতিনিধিঃ বাংলা নববর্ষকে স্বাগত জানিয়ে মঙ্গল শোভাযাত্রা করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি)। শুক্রবার (১৪ এপ্রিল) সকাল ১০টায় শোভাযাত্রাটি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় অনুষদ ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে পরিবহন চত্বর, শহীদ মিনার হয়ে অমর একুশের পাদদেশে এসে উপাচার্যের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

এবারের বর্ষবরণের প্রতিপাদ্য ‘বরিষ ধরা—মাঝে শান্তির বারি’কে ধারণ করে শান্তির প্রতীক পায়রা নিয়ে শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেছেন শিক্ষার্থীরা। আবহমান বাংলার ঐতিহ্য মৃৎশিল্পের নিদর্শন হিসেবে দু’টি টেপা পুতুল তৈরি করা হয়েছে। সেই সাথে পেঁচা, বাঘ, হাতি, ঘোড়ার আদলে মুখোশ পরে শোভাযাত্রায় অংশ নিয়েছেন শিক্ষক—শিক্ষার্থীরা।

শোভাযাত্রা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নূরুল আলম বলেন, ‘ মঙ্গল শোভাযাত্রা বাঙালির কৃষ্টি ও ঐতিহ্যের অংশ। আমি সকলকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। নতুন বছরে সকলের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি। নববর্ষ সবার জীবনে বয়ে আসুক সুখ শান্তি।’

এসময় শোভাযাত্রায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো—ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মনজুরুল হক, ট্রেজারার অধ্যাপক ড. রাশেদা আখতার, প্রভোস্ট কমিটির সভাপতি অধ্যাপক নাজমুল হাসান তালুকদার, ছাত্র—শিক্ষক কেন্দ্রের পরিচালক অধ্যাপক ড. আলমগীর কবির, চুক্তিভিত্তিক রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ প্রমুখ।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন