The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বুধবার, ২৬শে জুন, ২০২৪

‘দারোগার বউ’ পরিচয় দেওয়া উপ-রেজিস্ট্রার রেবেকাকে স্ট্যান্ড রিলিজ

দারোগার বউ’ পরিচয়ে সাংবাদিকদের শাসানোর একটি কল রেকর্ড ভাইরাল হওয়ার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-রেজিস্ট্রার (সংস্থাপন) রেবেকা সুলতানাকে স্ট্যান্ড রিলিজ (তাৎক্ষণিক অবমুক্ত) দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এ ছাড়াও তার বিরুদ্ধে নিয়মিত অফিস না করাসহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় সংশ্লিষ্টদের ধারণা, বারবার বিতর্কের মুখে তাকে এ শাস্তি দেয়া হয়েছে।

এর আগে, গতকাল বৃহস্পতিবার নিজ দপ্তরে অনুপস্থিত থাকা অবস্থায় অফিস কক্ষে ফ্যান চলাসহ অনিয়মিত অফিস করার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রেসক্লাবের ফেসবুক পেজে একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়। ভিডিও প্রকাশের পর উপ রেজিস্ট্রার রেবেকা সুলতানা প্রশাসনের বিভিন্ন ব্যক্তিকে ফোন দিয়ে সংগঠনটির সংবাদকর্মীদের বিরুদ্ধে নালিশ করেন।

যেখানে তাকে বলতে শোনা গেছে, ‘‘সাংবাদিকরা কি জানে না আমি ওসির বউ। আমি কি করতে পারি ওরা জানে না?’’ আর মূহুর্তেই এই বক্তব্যটি সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনার বিপরীতে সন্ধ্যায় ওসির ‘বউ পরিচয়’ দেয়া রেবেকা সুলতানাকে স্ট্যান্ড রিলিজ করে মেয়েদের হলে বদলি করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। স্ট্যান্ড রিলিজে তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ রেজিস্ট্রার থেকে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলে বদলি করা হয়েছে।

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সিফাত শাহরিয়ার প্রিয়ান বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই উনার বিষয়ে নিয়মিত অফিস না করা, বিদ্যুতের অপচয়সহ অনেক অভিযোগ ছিলো। সর্বশেষ গতকাল ওসির বউ পরিচয়ে উনি সাংবাদিকদের শাসিয়েছেন। এ সংক্রান্ত একটি কল রেকর্ড ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। পরে বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনেরও নজরে আসে। আমাদের ধারণা, সবগুলো বিষয়কে সামনে রেখে নতুন বিতর্কের মুখেই তাকে স্ট্যান্ড রিলিজ দেয়া হয়েছে।

প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্যের নজরে ছিলেন এই কর্মকর্তা। উপাচার্য নিজেও তার বিষয়ে তদারকি করছিলেন। অনেকগুলো অভিযোগ মিলেই এই ‘স্ট্যান্ড রিলিজ’ দেয়া হয়েছে। রেবেকা সুলতানা জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী শাহনেওয়াজের স্ত্রী।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ভবনে আধিপত্য বিস্তার করে একটি বলয় গড়ে তোলারও অভিযোগ রয়েছে। বারবার তার বিষয়ে বিভিন্ন অভিযোগ সামনে আসলেও প্রশাসন তার বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি।

‘ওসির বউ পরিচয়’ দিয়ে সাংবাদিকদের শাসানো রেবেকা সুলতানা গণমাধ্যমকে বলেন, আমি সাংবাদিকদের নিয়ে কোন মন্তব্য করিনি। আমার কোনো প্রশাসনিক সিন্ডিকেট নেই। আমি একজন ছোট কর্মকর্তা, নিয়মিত অফিস করি। আমি ছুটিতে আছি, এই সময়ে আমার রুমে কিছু হলে সেটা আমি দায়ী নই।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করলেও রেবেকা সুলতানার একটি কল রেকর্ড গণমাধ্যমের কাছে এসেছে। যেখানে নিজেকে ওসির বউ দাবি করে অন্য এক ব্যক্তির সঙ্গে সাংবাদিকদের শাসিয়ে কথা বলতে শোনা গেছে।

সেই কথোপকথনে তিনি বলেন, ‘‘ওরা কি (সাংবাদিকরা) জানেনা আমি দারোগা, ওসির বউ? আমি কি করতে পারি এরা কি বোঝে না? কিছু বলিনা দেখে সাহস বাইরা গেসে?’’

স্ট্যান্ড রিলিজের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ড. হুমায়ুন কবীর বলেন, বৃহস্পতিবার রেজিস্ট্রার দপ্তরের উপ রেজিস্ট্রার রেবেকা সুলতানাকে রেজিস্ট্রার দপ্তর থেকে বদলি করে বঙ্গমাতা হলে পাঠানো হয়েছে। বঙ্গমাতা হলের প্রাধ্যক্ষ নুসরাত শারমিন তানিয়াও এই স্ট্যান্ড রিলিজের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.