The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪

তারুণ্যের ভাবনায় ঈদ আনন্দ

ঘরের দুয়ারে করা নাড়ছে ঈদুল ফিতর। ঈদুল ফিতর মুসলমানদের প্রধান দুইটি ধর্মীয় উৎসবের মধ্যে একটি।দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনা শেষে মুসলমানরা উদযাপন করে তাদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। দীর্ঘ সিয়াম সাধনার পর স্বাভাবিকভাবেই এই উৎসবে সবার আগ্রহ বেশি। আর যেহেতু এই ঈদুল ফিতর আমাদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব, ঈদ নিয়ে তাই তারুণ্যের উৎসাহ-উদ্দীপনা, ভাবনাটাও একটু বেশি। তারুণ্যের সেই ভাবনাগুলোই তুলে ধরেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রাইজিং ক্যাম্পাসের এর প্রতিনিধি রাসেল হোসেন।

সময়ের সাথে পাল্টায় ঈদ আনন্দ

মুসলমান সম্প্রদায়ের জন্য ঈদ উল ফিতর হলো সবচেয়ে বড় উৎসব। মূলত এই ঈদের আমেজ শুরু হয় এক মাস আগে থেকেই। তবে বর্তমান সময়ে আমার জন্য ঈদ খুলে দেয় স্মৃতির করিডোর। আমার কাছে ঈদের দিন মানেই শৈশবের স্মৃতিতে ফিরে যাওয়া।চাঁদ রাতে হাতে মেহেদি দেওয়া,সকাল বেলা আব্বার চেচামেচিতে ঘুম ভাঙা চটজলদি সেমাই খেয়েই নতুন জামা পরে বন্ধুদের সাথে দৌড়ঝাপ এই ছিলো আমার ঈদ।সময় অতিবাহিত হওয়ার সাথে সাথে আমরা বড় হয়েছি,স্বপ্নগুলো বড় হয়েছে। সেসব স্বপ্ন পূরণের জন্য আসতে হয়েছে বাসা থেকে দূরে। এখনকার ঈদ মানে কোলাহল মুক্ত একটা ঈদ।নেই শৈশবের খেলার সাথীরা নেই কোনো দৌড়ঝাপ। তবুও ঈদ মানেই আনন্দ,ঈদ মানেই খুশি।

উর্মি আদনান টুই, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ, ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ।

বজায় থাকুক ঈদ আনন্দ

ঈদ মানে খুশি, ঈদ মানেই আনন্দ। সে আনন্দ আরো শতগুণে বেড়ে যায় যখন ঈদ হয় পরিবারের সদস্যদের সাথে। এখনো ছোটবেলার মতো সকালে ঘুম থেকে উঠে আব্বু-আম্মুকে সালাম করে দাঁড়িয়ে থাকি সালামির জন্য, ভাইয়াদের সাথে ঈদের মাঠে যাই, ছোটদের সালামি দেই । ছোটবেলায় নতুন জামা, দু’হাত ভরা মেহেদী ছাড়া ঈদ সম্পূর্ণ হতো না কিন্তু এখন বড় হয়েছি অনূভুতি পরিবর্তন হয়েছে । এখন ঈদ মানে পরিবারের সাথে, ছোটবেলার বন্ধুদের সাথে সুন্দর কিছু মুহূর্ত ভাগাভাগি করা । বড় হয়ে যাচ্ছি কিন্তু এখনও ঈদকে হারিয়ে যাইতে দেইনি।

সানজিদা ইসলাম, ফিসারিজ এন্ড মেরিন বায়োসায়েন্স বিভাগ, ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ।

পূর্ণতা পাক সবার ঈদ আনন্দ

দীর্ঘ একটা মাস রোজা থাকার পর আসে ঈদুল ফিতর। ঈদ মানে আনন্দ ঈদ মানে খুশি।এই ঈদ আনন্দ মেখে নিতে আসে দূরদূরান্ত থেকে আত্মীয় স্বজন। সবাই গ্রামের বাড়িতে ফিরে আসে। কারণ গ্রামের বাড়িতে থাকে তার বাবা মা আত্মীয় স্বজন। আনন্দ তখনই পূর্ণতা পায় যখন পুরো একটা মাস রোজা রাখতে পারি এবং বাবা মা পরিবারের সাথে ঈদ উদযাপন করতে পারি। যাদের বাবা মা নেই তারাই এই অপূর্ণতা বোঝে। যদিও আনন্দ সবার এক নয়, কিন্তু এই দুইটি জায়গায় সবাই আনন্দ পায়। আমাদের সবার ভাগ্যে যেনো এই ঈদ আনন্দ পূর্ণতা পায়। সেই কামনাই থাকবে।

মোঃ সায়েম উদ্দিন মুসা, সিএসই বিভাগ, ৩য় বর্ষ।

ঈদের খুশি হোক সার্বজনীন

ঈদ মুসলিম জাতির প্রধানতম ধর্মীয় উৎসব। কেননা, মুসলমানদের জীবনে সবচেয়ে বড় উৎসবের দিন হচ্ছে ঈদের দিন। ঈদ হলো আনন্দকে ভাগাভাগি করার একটি বড় অবকাশের আটপ্রহর। এদিনে সবাই ভেদাভেদ ভুলে সৌহার্দ, ভ্রাতৃত্ব ও সাম্যের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে। সকল ব্যস্ততা উপেক্ষা করে আমরা ফিরে আসি পরিবারের কাছে। পরিবারকে কাছে পাওয়া, তাদের ভালোবাসা, পুরোনো বন্ধুদের সাথে দেখা হওয়া, সব যেন স্বপ্নের মতো সুন্দর। শুরু হয় বাধ ভাঙ্গা উৎসব। মায়ের ভালোবাসা, বাবার স্নেহ থেকে দূরে থাকা প্রত্যেক সন্তানের মনে এই আনন্দ ছড়িয়ে পড়ুক।

ফাইজা রহমান মিম, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ, ২য় বর্ষ।

 

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.