The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪

ঢাবির ডিন নির্বাচনে আওয়ামীপন্থীদের জয়

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ডিন নির্বাচনের ১০টি পদেই আওয়ামীপন্থী নীল দলের প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। ১০টি অনুষদের মধ্যে আইন অনুষদ ও আর্থ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস অনুষদে যথাক্রমে ড. মো. রহমত উল্লাহ এবং ড. মো. জিল্লুর রহমান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বাকি ৮টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। দুপুর ১টা ৪৫ মিনিটে নির্বাচন পরিচালক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ ফলাফল ঘোষণা করেন। এতে দেখা যায়, আটটি পদে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সরকারপন্থী নীল দল বিজয়ী হয়েছে। আর বিএনপি-জামায়াতপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল পরাজিত হয়েছে।

নির্বাচনে কল অনুষদে ড. মো. আব্দুল বাছির ১৫৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খান পেয়েছেন ৮০ ভোট। বিজ্ঞান অনুষদে অধ্যাপক ড. আবদুস ছামাদ ১০৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অধ্যাপক ড. মো. এমরান কাইয়ুম পেয়েছেন ৩৪ ভোট। ব্যবসা শিক্ষা অনুষদে ড. মোহাম্মদ আব্দুল মঈন ১২১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী পেয়েছেন ৬১ ভোট।

সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদে ড. মো. জিয়াউর রহমান ১৬১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. এ এস এম আমান উল্লাহ পেয়েছেন ২৪ ভোট। জীববিজ্ঞান অনুষদে ড. এ কে এম মাহবুব হাসান ৮৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. মো. আখতার হোসেন খান পেয়েছেন ৬৯ ভোট। ফার্মেসি অনুষদে ড. সীতেশ চন্দ্র বাছার ৩২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. মো. শাহ এমরান পেয়েছেন ২১ ভোট। প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদে ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু ৫২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. মো. হায়দার আলী পেয়েছেন ২৫ ভোট। চারুকলা অনুষদে অধ্যাপক ড. নিসার হোসেন পেয়েছেন ৪৩ ভোট। প্রতিদ্বনন্দ্বী প্রার্থী মো. ইসরাফিল রতন পেয়েছেন ৮ ভোট।

সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আমরা করোনাকালের এই কঠিন পরিস্থিতিতে নির্বাচনের ব্যবস্থা করেছি। সকলের সহযোগিতায় এ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে পেরেছি। কোভিড আক্রান্ত শিক্ষক, যারা আইসোলেশনে ছিলেন, তাঁদের জন্য আলাদাভাবে ভোট দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি।’

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. স্বায়ত্ত্বশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়
  3. ঢাবির ডিন নির্বাচনে আওয়ামীপন্থীদের জয়

ঢাবির ডিন নির্বাচনে আওয়ামীপন্থীদের জয়

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ডিন নির্বাচনের ১০টি পদেই আওয়ামীপন্থী নীল দলের প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। ১০টি অনুষদের মধ্যে আইন অনুষদ ও আর্থ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস অনুষদে যথাক্রমে ড. মো. রহমত উল্লাহ এবং ড. মো. জিল্লুর রহমান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বাকি ৮টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। দুপুর ১টা ৪৫ মিনিটে নির্বাচন পরিচালক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ ফলাফল ঘোষণা করেন। এতে দেখা যায়, আটটি পদে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সরকারপন্থী নীল দল বিজয়ী হয়েছে। আর বিএনপি-জামায়াতপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল পরাজিত হয়েছে।

নির্বাচনে কল অনুষদে ড. মো. আব্দুল বাছির ১৫৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খান পেয়েছেন ৮০ ভোট। বিজ্ঞান অনুষদে অধ্যাপক ড. আবদুস ছামাদ ১০৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অধ্যাপক ড. মো. এমরান কাইয়ুম পেয়েছেন ৩৪ ভোট। ব্যবসা শিক্ষা অনুষদে ড. মোহাম্মদ আব্দুল মঈন ১২১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী পেয়েছেন ৬১ ভোট।

সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদে ড. মো. জিয়াউর রহমান ১৬১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. এ এস এম আমান উল্লাহ পেয়েছেন ২৪ ভোট। জীববিজ্ঞান অনুষদে ড. এ কে এম মাহবুব হাসান ৮৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. মো. আখতার হোসেন খান পেয়েছেন ৬৯ ভোট। ফার্মেসি অনুষদে ড. সীতেশ চন্দ্র বাছার ৩২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. মো. শাহ এমরান পেয়েছেন ২১ ভোট। প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদে ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু ৫২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ড. মো. হায়দার আলী পেয়েছেন ২৫ ভোট। চারুকলা অনুষদে অধ্যাপক ড. নিসার হোসেন পেয়েছেন ৪৩ ভোট। প্রতিদ্বনন্দ্বী প্রার্থী মো. ইসরাফিল রতন পেয়েছেন ৮ ভোট।

সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আমরা করোনাকালের এই কঠিন পরিস্থিতিতে নির্বাচনের ব্যবস্থা করেছি। সকলের সহযোগিতায় এ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে পেরেছি। কোভিড আক্রান্ত শিক্ষক, যারা আইসোলেশনে ছিলেন, তাঁদের জন্য আলাদাভাবে ভোট দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি।’

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন