The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
সোমবার, ২৪শে জুন, ২০২৪

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আজ, জবি ক্যাম্পাসে সাংবাদিক প্রবেশ না করতে নির্দেশনা

জবি প্রতিনিধি: দেশের ২৪টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ পদ্ধতিতে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আজ।‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষা দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত হবে। একই দিনে আর্কিটেকচার ব্যবহারিক (ড্রয়িং) পরীক্ষা বেলা সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। এদিকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ক্যাম্পাস কেন্দ্রে সাংবাদিকদের প্রবেশ ‘সংরক্ষিত’ করে কোটাভিত্তিক কয়েকজনকে অনুমতি দিয়েছে প্রশাসন। এর বাইরে আর কোনো সাংবাদিককে ক্যাম্পাসে প্রবেশ না করতেও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো.জাহাঙ্গীর হোসেন।

এবিষয়ে জানতে চাইলে প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, কেন্দ্রীয় গুচ্ছ কমিটি থেকে যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে আমরা সেভাবেই কাজ করছি। আমরা ১২ জন সাংবাদিককে প্রবেশের সুযোগ দিচ্ছি।

বিগত বছরগুলোতে ক্যাম্পাসে কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরা ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করে সংবাদ সংগ্রহ করে অনুমতি পেয়েছে। প্রক্সি পরীক্ষা চক্রের হোতাসহ, প্রশ্নফাঁস চক্রের সদস্যদের ধরতেও অবদান রেখেছেন সাংবাদিকরা।এই বছর সাংবাদিকদের ক্যাম্পাসে প্রবেশ না করতে সাংবাদিক সংগঠনগুলোকে নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত একাধিক সাংবাদিকরা বলছেন, গতবছর এই রকম নিষেউধাজ্ঞা ছিলো না।এইবারই কেন! প্রশ্নফাঁস, প্রক্সি এইসব ক্ষেত্রে সাংবাদিকরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।সাংবাদিকরা ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে না পারলে কিভাবে তথ্য সংগ্রহ করে সংবাদ প্রকাশ করবো আমরা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অন্য কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্র সাংবাদিক প্রবেশে এমন কোনো নির্দেশনা দেয়া হয়নি। শুধু মাত্র জবি ক্যাম্সাসে সাংবাদিক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা।

এবিষয়ে কথা বলতে গুচ্ছ ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক এবং যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেনকে বারবার কল দেয়া হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

উল্লেখ্য যে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে ১২ হাজার ৫৭৯ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষা দেবেন। পাশাপাশি উপকেন্দ্রগুলো এবং এসব কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের সংখ্যা হলো—সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজে ৩ হাজার, সরকারি বাংলা কলেজে ৬ হাজার ৭৪০, ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজে ৩ হাজার ২০০, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজে ৩ হাজার ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৫ হাজার ২৯৬ জন পরীক্ষা দেবে।

সাকিবুল ইসলাম/

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.