The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪

এলাকায় কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠটি আমার নামে: সিদ্দিক

আকবর হোসেন পাঠান ফারুক ছিলেন একাধারে বীর মুক্তিযোদ্ধা, চিত্রনায়ক ও সংসদ সদস্য। তার মৃত্যুতে ঢাকা-১৭ আসনটি খালি হয়। নায়ক ফারুকের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া আসনের উপনির্বাচনে লড়তে চান অনেকেই। ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের কাছ থেকে দলীয় নমিনেশন চায়েছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান। ঢাকা-১৭ আসনের নির্বাচনকে টার্গেট করে প্রচার প্রচারণাও চালাচ্ছেন তিনি।

সম্প্রতি এক সাক্ষাতকারে সিদ্দিকুর রহমান জানান, মানুষের জন্যই আমি সংসদ সদস্য হতে চাই। সুখে দুঃখে তাদের পাশে দাড়াতে চাই। আমি ছোটবেলা থেকে বাবাকে মানুষের পাশে দাঁড়াতে ও সাহায্য-সহযোগিতা করতে দেখেছি। সেই শিক্ষাটা আমার ভেতরে রয়ে গেছে। আমি নিজে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। এলাকায় অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছি। এলাকায় কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ আমার নামে।’

নমিনেশন পেতে আগ্রহী এই জনপ্রিয় অভিনেতা বলেন। আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে আমি উড়ে এসে জুড়ে বসিনি। এর আগে ২০১৮ সালে টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। মনোনয়নপত্রও কিনেছিলেন। কিন্তু দল তাকে মনোনয়ন দেয়নি। তিনি আরও বলেন, ‘রাজনীতি হচ্ছে আমার ফ্যামিলি ব্যাকগ্রাউন্ড। ফ্যামিলি থেকে কেউ শিল্পী হয়নি। কিন্তু আমি একজন শিল্পী হয়েছি, শিল্পীসত্তাকে ধারণ করেছি।

এলাকায় নিজের কাজের ফিরিস্তি তুলে ধরে এ অভিনেতা বলেন, আমি যে স্কুলে পড়ালেখা করেছি সেখানে আমার নামে ছাত্রাবাস করে দিয়েছি। এরকম আরও অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং মসজিদ-মাদ্রাসায় উন্নয়ন করেছি। এলাকার বহু মানুষের পাসে দাড়িছি।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৮ সালে টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। মনোনয়নপত্রও কিনেছিলেন। কিন্তু দল তাকে মনোনয়ন দেয়নি। সেবার এই আসন থেকে মনোনয়ন পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন বর্তমান সরকারের কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক। সে কারণে সিদ্দিকের টার্গেট এবার ঢাকা-১৭। এবার তার ইচ্ছা সংসদ সদস্য হওয়া।

 

 

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. বিনোদন
  3. এলাকায় কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠটি আমার নামে: সিদ্দিক

এলাকায় কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠটি আমার নামে: সিদ্দিক

আকবর হোসেন পাঠান ফারুক ছিলেন একাধারে বীর মুক্তিযোদ্ধা, চিত্রনায়ক ও সংসদ সদস্য। তার মৃত্যুতে ঢাকা-১৭ আসনটি খালি হয়। নায়ক ফারুকের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া আসনের উপনির্বাচনে লড়তে চান অনেকেই। ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের কাছ থেকে দলীয় নমিনেশন চায়েছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান। ঢাকা-১৭ আসনের নির্বাচনকে টার্গেট করে প্রচার প্রচারণাও চালাচ্ছেন তিনি।

সম্প্রতি এক সাক্ষাতকারে সিদ্দিকুর রহমান জানান, মানুষের জন্যই আমি সংসদ সদস্য হতে চাই। সুখে দুঃখে তাদের পাশে দাড়াতে চাই। আমি ছোটবেলা থেকে বাবাকে মানুষের পাশে দাঁড়াতে ও সাহায্য-সহযোগিতা করতে দেখেছি। সেই শিক্ষাটা আমার ভেতরে রয়ে গেছে। আমি নিজে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। এলাকায় অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছি। এলাকায় কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ আমার নামে।’

নমিনেশন পেতে আগ্রহী এই জনপ্রিয় অভিনেতা বলেন। আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে আমি উড়ে এসে জুড়ে বসিনি। এর আগে ২০১৮ সালে টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। মনোনয়নপত্রও কিনেছিলেন। কিন্তু দল তাকে মনোনয়ন দেয়নি। তিনি আরও বলেন, ‘রাজনীতি হচ্ছে আমার ফ্যামিলি ব্যাকগ্রাউন্ড। ফ্যামিলি থেকে কেউ শিল্পী হয়নি। কিন্তু আমি একজন শিল্পী হয়েছি, শিল্পীসত্তাকে ধারণ করেছি।

এলাকায় নিজের কাজের ফিরিস্তি তুলে ধরে এ অভিনেতা বলেন, আমি যে স্কুলে পড়ালেখা করেছি সেখানে আমার নামে ছাত্রাবাস করে দিয়েছি। এরকম আরও অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং মসজিদ-মাদ্রাসায় উন্নয়ন করেছি। এলাকার বহু মানুষের পাসে দাড়িছি।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৮ সালে টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। মনোনয়নপত্রও কিনেছিলেন। কিন্তু দল তাকে মনোনয়ন দেয়নি। সেবার এই আসন থেকে মনোনয়ন পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন বর্তমান সরকারের কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক। সে কারণে সিদ্দিকের টার্গেট এবার ঢাকা-১৭। এবার তার ইচ্ছা সংসদ সদস্য হওয়া।

 

 

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন