৮৯ আসনের বিপরীতে মেডিকেল-ডেন্টালের তৃতীয় মাইগ্রেশন

সারা দেশের সরকারি মেডিকেল এবং ডেন্টাল কলেজ ও ইউনিটগুলোতে ফাঁকা আসনের বিপরীতে তৃতীয় ধাপের মাইগ্রেশন শেষ করার উদ্যোগ নিয়েছে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর। এ লক্ষ্যে শূন্য হওয়া আসনের তথ্য বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) পাঠানো হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ২২ ডিসেম্বর মেডিকেলের প্রথম ধাপের মাইগ্রেশন ও অপেক্ষমান তালিকা প্রকাশ করে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর। ৩৩৪ আসনের বিপরীতে মাইগ্রেশন সম্পন্ন হয়েছিল। এরপর গত ৮ ফেব্রুয়ারি ১১১ আসনের বিপরীতে দ্বিতীয় ধাপের মাইগ্রেশনের তালিকা প্রকাশ করা হয়। এখন তৃতীয় ধাপের মাইগ্রেশন সম্পন্ন করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

সূত্র জানায়, তৃতীয় ধাপে মেডিকেল ও ডেন্টাল মিলে মোট ৮৯ আসনের বিপরীতে মাইগ্রেশন সম্পন্ন করা হবে। এর মধ্যে এমবিবিএস এ মাইগ্রেশন হবে ৩৭টি আসনের বিপরীতে। যার মধ্যে সাধারণ কোটায় ৩৩ জন, উপজাতী ৩ এবং মুক্তিযোদ্ধা কোটায় একজনের মাইগ্রেশন সম্পন্ন হবে। আর ডেন্টালের মাইগ্রেশন হবে ৫২ আসনের বিপরীতে। এর মধ্যে ৫১টি সাধারণ এবং একটি উপজাতীয় কোটার।

মঙ্গলবার (৮ মার্চ) বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবীব। তিনি বলেন, এমবিবিএস এর মাইগ্রেশন হবে ৩৭টি আসনের বিপরীতে। আর ডেন্টালের মাইগ্রেশন হবে ৫২ আসনের বিপরীতে।

কবে নাগাদ মাইগ্রেশনের তালিকা প্রকাশ করা হবে— এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, এটি এই মুহূর্তে বলা সম্ভব নয়৷ মাইগ্রেশন সম্পন্ন করতে বুয়েটের কাছে তথ্য পাঠানো হয়েছে। তারা তালিকা প্রস্তুত করে যখন আমাদের পাঠাবে আমরা সেদিনই এটি প্রকাশ করব।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ২ এপ্রিল সারা দেশে একযোগে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস কোর্সের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এর একদিন পর ৪ এপ্রিল পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। এবার দেশের সরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে আসন ছিল ৪ হাজার ৩৫০টি।