৬৫ বছরের বেশি বয়সীরা হজে যেতে পারবেন না

নিবন্ধিত ৬৫ বছরের বেশি বয়সীরা হজে যেতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান। আজ সোমবার (২৫ এপ্রিল) সকালে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের উদ্যোগে ইসলামিক অর্থ ব্যবস্থাপনায় ডিজিটাল লেনদেনের ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, হজ ব্যবস্থাপনায় প্রতিবছর কয়েক মাস সময় পাওয়া যায়, কিন্তু এবার খুবই কম সময় পাওয়া যাবে। তাই সবাইকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। এর আগে গত ১৩ এপ্রিল ধর্ম প্রতিমন্ত্রী জানান, হজে যাওয়ার জন্য আগে যারা নিবন্ধন করেছেন, তারা হজ করার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন। পুরো ব্যবস্থাপনা অটোমেশন পদ্ধতির আওতায় আনা হয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এবার সিরিয়ালের কোনো ব্যত্যয় ঘটবে না। প্রাক নিবন্ধন হজযাত্রীরা পর্যায়ক্রমে হজ করার সুযোগ পাবেন। করোনার নিষেধাজ্ঞা শিথিল হওয়ায় দীর্ঘ দুই বছর পর এবার সৌদি আরব ১০ লাখ মুসল্লিকে হজ করার সুযোগ করে দিচ্ছে। সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহবিষয়ক মন্ত্রণালয় জানায়, অংশগ্রহণকারীদের অবশ্যই ৬৫ বছরের কম বয়সী হতে হবে এবং করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিনের পূর্ণ ডোজ দেওয়া থাকতে হবে।

সৌদির বাইরে থেকে আসা অংশগ্রহণকারীরাও হালনাগাদ করা কোভিড পিসিআর টেস্ট ও অন্যান্য স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর হজে অংশ নিতে পারবেন। সৌদির উদ্দেশে রওনা হওয়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পিসিআর টেস্টের নেগেটিভ সনদ লাগবে।

গত বছর ইসলামের পাঁচটি মূল স্তম্ভের একটি এই পবিত্র হজে মাত্র ৬০ হাজার মানুষকে (যারা সৌদিতে বসবাস করছেন এমন) অংশগ্রহণের অনুমতি দিয়েছিল সৌদি আরব। মহামারির আগে যে সংখ্যা ছিল প্রায় ২৫ লাখ। এদিকে, চলতি বছর পবিত্র হজের দেশভিত্তিক কোটা প্রকাশ করেছে সৌদি আরব। এতে চতুর্থ সর্বোচ্চ সংখ্যা বাংলাদেশের। এবারে বাংলাদেশ থেকে হজে অংশ নিতে পারবেন ৫৭ হাজার ৫৮৫ মুসল্লি। গত বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) সৌদি হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এবার সবচেয়ে বেশি মানুষ হজ করতে যাবেন ইন্দোনেশিয়া থেকে। এরপরই রয়েছে পাকিস্তান, ভারত ও বাংলাদেশের নাম।