The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
শনিবার, ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪

৩০ পেলেই জবিতে ভর্তির সুযোগ মিলবে ৭৬ জনের

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে চার ধরনের কোটায় শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। এর মধ্যে একটি কোটায় কেবলমাত্র পাস নম্বর পেলেই ভর্তির সুযোগ পাবেন ৭৬ জন।

বৃহস্পতিবার (০১ সেপ্টেম্বর) জবিতে ভর্তির সাথে সাথে যুক্ত একাধিক কর্মকর্তার সাথে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিবছর নতুন শিক্ষাবর্ষে ভর্তির সময় মুক্তিযোদ্ধা, প্রতিবন্ধী, উপজাতি এবং পোষ্য কোটায় শিক্ষার্থীদের ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে মোট আসনের ৫ শতাংশ বরাদ্দ থাকে মুক্তিযোদ্ধা কোটার জন্য, উপজাতি / প্রতিবন্ধীদের জন্য এক শতাংশ, পোষ্য কোটায় প্রতি বিভাগে দুইজন এবং খেলোয়ার কোটায় মোট ১০ জন শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পায়।

ওই সূত্র আরও জানায়, বর্তমানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩৮টি বিভাগ এবং ইনস্টিটিউট রয়েছে। এর প্রতিটিতে পোষ্য কোটায় দুইজন করে ভর্তির সুযোগ পাবেন। সে হিসেবে পোষ্য কোটায় ভর্তির সুযোগ পাবেন ৭৬ জন। পোষ্য কোটায় ভর্তির ক্ষেত্রে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় একজন শিক্ষার্থীকে ৩০ নম্বর পেতে হবে। এজন্য আবেদনকৃত শিক্ষার্থীকে জবির রেজিস্ট্রার দপ্তর থেকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করতে হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জবির ভর্তি সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা জানান, ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় কোনো পাস নম্বর ছিল না। তবে এবার পাস নম্বর ৩০ নির্ধারণ করা হয়েছে। ফলে যারা পোষ্য কোটায় আবেদন করবেন তাদের নূন্যতম ৩০ নম্বর পেতে হবে।

ওই কর্মকর্তা আরও জানান, এই নিয়ম পরিবর্তন হতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ চাইলে আবেদনের শর্ত আরও শিথিল কিংবা বৃদ্ধি করতে পারে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. ক্যাম্পাস
  3. ৩০ পেলেই জবিতে ভর্তির সুযোগ মিলবে ৭৬ জনের

৩০ পেলেই জবিতে ভর্তির সুযোগ মিলবে ৭৬ জনের

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে চার ধরনের কোটায় শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। এর মধ্যে একটি কোটায় কেবলমাত্র পাস নম্বর পেলেই ভর্তির সুযোগ পাবেন ৭৬ জন।

বৃহস্পতিবার (০১ সেপ্টেম্বর) জবিতে ভর্তির সাথে সাথে যুক্ত একাধিক কর্মকর্তার সাথে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিবছর নতুন শিক্ষাবর্ষে ভর্তির সময় মুক্তিযোদ্ধা, প্রতিবন্ধী, উপজাতি এবং পোষ্য কোটায় শিক্ষার্থীদের ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে মোট আসনের ৫ শতাংশ বরাদ্দ থাকে মুক্তিযোদ্ধা কোটার জন্য, উপজাতি / প্রতিবন্ধীদের জন্য এক শতাংশ, পোষ্য কোটায় প্রতি বিভাগে দুইজন এবং খেলোয়ার কোটায় মোট ১০ জন শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পায়।

ওই সূত্র আরও জানায়, বর্তমানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩৮টি বিভাগ এবং ইনস্টিটিউট রয়েছে। এর প্রতিটিতে পোষ্য কোটায় দুইজন করে ভর্তির সুযোগ পাবেন। সে হিসেবে পোষ্য কোটায় ভর্তির সুযোগ পাবেন ৭৬ জন। পোষ্য কোটায় ভর্তির ক্ষেত্রে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় একজন শিক্ষার্থীকে ৩০ নম্বর পেতে হবে। এজন্য আবেদনকৃত শিক্ষার্থীকে জবির রেজিস্ট্রার দপ্তর থেকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করতে হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জবির ভর্তি সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা জানান, ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় কোনো পাস নম্বর ছিল না। তবে এবার পাস নম্বর ৩০ নির্ধারণ করা হয়েছে। ফলে যারা পোষ্য কোটায় আবেদন করবেন তাদের নূন্যতম ৩০ নম্বর পেতে হবে।

ওই কর্মকর্তা আরও জানান, এই নিয়ম পরিবর্তন হতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ চাইলে আবেদনের শর্ত আরও শিথিল কিংবা বৃদ্ধি করতে পারে।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন