The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
শনিবার, ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪

১৮২ দিন পর চবির চারুকলা শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরার ঘোষণা

সাইফুল মিয়া, চবিঃ দীর্ঘ ছয় মাস পর ক্লাস বর্জনের কর্মসূচি স্থগিত করে শ্রেণিকক্ষে ফিরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) চারুকলা ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থীরা। তবে ক্যাম্পাস স্থানান্তরের দাবি আদায় না হওয়ায় আন্দোলন চলবে বলে জানান তারা।

বুধবার (৩ মে) বিকেলে আন্দোলনের ১৮২তম দিনে এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা এই ঘোষণা দেন। এর আগে গত ১৭ এপ্রিল চারুকলার সংস্কার কাজ সম্পন্ন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। পরে গত সোমবার চারুকলা ইনস্টিটিউট খুলে দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা জানান, দীর্ঘ ছয় মাসের সেশনজট, একাডেমিক নানান ক্ষয়ক্ষতির মুখে পড়েছেন তারা। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সবাই মিলে ক্লাসে ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

গত বছরের ২ নভেম্বর ২২ দফা দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবস্থান কর্মসূচি ও ক্লাসবর্জন শুরু করেন চারুকলা ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা। পরে সেই ২২ দফা দাবি মূল ক্যাম্পাসে ফেরার এক দফা দাবিতে রূপ নেয়। চলমান আন্দোলনের মধ্যেই গত ২ ফেব্রুয়ারি সংস্কারকাজের জন্য চারুকলা ক্যাম্পাস ও হোস্টেল এক মাসের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এরপর আরও দুই দফায় বাড়ানো হয় চারুকলা বন্ধের মেয়াদ।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. ক্যাম্পাস
  3. ১৮২ দিন পর চবির চারুকলা শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরার ঘোষণা

১৮২ দিন পর চবির চারুকলা শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরার ঘোষণা

সাইফুল মিয়া, চবিঃ দীর্ঘ ছয় মাস পর ক্লাস বর্জনের কর্মসূচি স্থগিত করে শ্রেণিকক্ষে ফিরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) চারুকলা ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থীরা। তবে ক্যাম্পাস স্থানান্তরের দাবি আদায় না হওয়ায় আন্দোলন চলবে বলে জানান তারা।

বুধবার (৩ মে) বিকেলে আন্দোলনের ১৮২তম দিনে এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা এই ঘোষণা দেন। এর আগে গত ১৭ এপ্রিল চারুকলার সংস্কার কাজ সম্পন্ন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। পরে গত সোমবার চারুকলা ইনস্টিটিউট খুলে দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা জানান, দীর্ঘ ছয় মাসের সেশনজট, একাডেমিক নানান ক্ষয়ক্ষতির মুখে পড়েছেন তারা। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সবাই মিলে ক্লাসে ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

গত বছরের ২ নভেম্বর ২২ দফা দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবস্থান কর্মসূচি ও ক্লাসবর্জন শুরু করেন চারুকলা ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা। পরে সেই ২২ দফা দাবি মূল ক্যাম্পাসে ফেরার এক দফা দাবিতে রূপ নেয়। চলমান আন্দোলনের মধ্যেই গত ২ ফেব্রুয়ারি সংস্কারকাজের জন্য চারুকলা ক্যাম্পাস ও হোস্টেল এক মাসের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এরপর আরও দুই দফায় বাড়ানো হয় চারুকলা বন্ধের মেয়াদ।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন