The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪

স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ছাত্রলীগকে প্রধানমন্ত্রীর তিরস্কার

ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শোভাযাত্রা ও আনন্দ আয়োজনে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ছাত্রলীগ নেতাদের তিরস্কার করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার সকালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী। মূল অনুষ্ঠানে খামারবাড়ীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনের বাংলাদেশ মিলনায়তনে ছিলেন নেতারা।

ঘণ্টাব্যাপী বক্তব্যে ছাত্রনেতাদের নানা বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেন শেখ হাসিনা। মানুষের পাশে দাঁড়াতে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি এগিয়ে নিয়ে যেতে আহ্বান জানান তিনি।

বক্তব্যের শেষ পর্যায়ে গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটা ও শোভাযাত্রার আয়োজনের ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি। উল্লসিত হয়ে হাততালির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীকে সাধুবাদ জানান ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও লেখক ভট্টাচার্যসহ উপস্থিতি নেতারা। কিন্তু এরপরই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘চমৎকার র‍্যালি করেছ তোমরা, একটু খুঁত আছে। কারও মুখে মাস্ক ছিল না।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি ভালো করে ছবিগুলো খুঁজে খুঁজে দেখেছি, একটা মাস্কও কেউ পরোনি। এখনো অনেকে বসে আছো মাস্ক ছাড়া।’

এরপরই কৃষিবিদ মিলনায়তনে উপস্থিত নেতা-কর্মীদের মাঝে মাস্ক পরার জন্য তাড়াহুড়ো শুরু হয়ে যায়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নতুন ভ্যারিয়েন্ট যেটা আসছে, সেটা কিন্তু আরও মারাত্মক। তোমরা যখনই এমন পাবলিক গ্যাদারিংয়ে যাবা, সবাই মাস্ক পরে থাকতে হবে।

তুমি যদি নিজে সুরক্ষিত না থাকো, অন্যকে সাহায্য করবে কীভাবে? ধন্যবাদ জানাই বলার সঙ্গে সঙ্গে অনেকে পরেছ, এখনো অনেকে পরো নাই। আগামীতে কিন্তু এটা দেখতে চাই না। সবাই পরবা।’

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. ক্যাম্পাস
  3. স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ছাত্রলীগকে প্রধানমন্ত্রীর তিরস্কার

স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ছাত্রলীগকে প্রধানমন্ত্রীর তিরস্কার

ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শোভাযাত্রা ও আনন্দ আয়োজনে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ছাত্রলীগ নেতাদের তিরস্কার করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার সকালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী। মূল অনুষ্ঠানে খামারবাড়ীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনের বাংলাদেশ মিলনায়তনে ছিলেন নেতারা।

ঘণ্টাব্যাপী বক্তব্যে ছাত্রনেতাদের নানা বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেন শেখ হাসিনা। মানুষের পাশে দাঁড়াতে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি এগিয়ে নিয়ে যেতে আহ্বান জানান তিনি।

বক্তব্যের শেষ পর্যায়ে গতকাল মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটা ও শোভাযাত্রার আয়োজনের ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি। উল্লসিত হয়ে হাততালির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীকে সাধুবাদ জানান ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও লেখক ভট্টাচার্যসহ উপস্থিতি নেতারা। কিন্তু এরপরই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘চমৎকার র‍্যালি করেছ তোমরা, একটু খুঁত আছে। কারও মুখে মাস্ক ছিল না।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি ভালো করে ছবিগুলো খুঁজে খুঁজে দেখেছি, একটা মাস্কও কেউ পরোনি। এখনো অনেকে বসে আছো মাস্ক ছাড়া।’

এরপরই কৃষিবিদ মিলনায়তনে উপস্থিত নেতা-কর্মীদের মাঝে মাস্ক পরার জন্য তাড়াহুড়ো শুরু হয়ে যায়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নতুন ভ্যারিয়েন্ট যেটা আসছে, সেটা কিন্তু আরও মারাত্মক। তোমরা যখনই এমন পাবলিক গ্যাদারিংয়ে যাবা, সবাই মাস্ক পরে থাকতে হবে।

তুমি যদি নিজে সুরক্ষিত না থাকো, অন্যকে সাহায্য করবে কীভাবে? ধন্যবাদ জানাই বলার সঙ্গে সঙ্গে অনেকে পরেছ, এখনো অনেকে পরো নাই। আগামীতে কিন্তু এটা দেখতে চাই না। সবাই পরবা।’

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন