The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
শুক্রবার, ১২ই জুলাই, ২০২৪

সেন্টমার্টিনে ফিরেছে প্রাণচাঞ্চল্য: নির্বিঘ্নে চলছে জাহাজ

নাব্যতা সংকটের কথা বলে ভরা পর্যটন মৌসুমে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে জাহাজ চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছিলো। যাতে করে হুমকিতে পড়ে পর্যটন সংশ্লিষ্ট প্রায় ৫ লাখ মানুষের জীবন-জীবিকা। অনিশ্চয়তায় পড়তে হয় দ্বীপের বাসিন্দাদের। কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন বিমুখ হতে শুরু করে পর্যটকেরা।

জানা যায় নাব্যতা সংকটের মাঝেও কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম থেকে কর্ণফুলী এক্সপ্রেস, বে-ওয়ান ও বার আউলিয়া নামের তিনটি জাহাজ চলছিল ঠিকই। মিয়ানমারের মালবাহী জাহাজ চলাচলও অব্যাহত ছিল। কিন্তু নাব্যতার অজুহাতে বন্ধ থাকে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে পর্যটকবাহী জাহাজ।

এধরণের বৈষম্যমূলক আচরণের কথা তুলে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেয় ট্যুর অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব কক্সবাজার (টুয়াক) ও জাহাজ মালিক সমিতিসহ ১১টি সংগঠন। গত ১০ জানুয়ারি শহরের একটি অভিজাত হোটেলের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনও করেন তারা।

অনেক দেনদরবার, আবেদন ও বাস্তবতা বিবেচনায় অবশেষে ১২ জানুয়ারি টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে পরীক্ষামূলকভাবে জাহাজ চলাচলের অনুমোদন পাওয়া যায়।

বর্তমানে এ রুটে নির্বিঘ্নে জাহাজ চলাচল করতে দেখা যাচ্ছে। আর এতে করে আবারো মুখরিত দ্বীপের বালিয়াড়ি ও সাগরতীর। পূনরায় ফিরেছে প্রাণচাঞ্চল্য সেন্টমার্টিনে। সকলের মাঝে স্বস্তির আবহব বিরাজ করছে, স্বাভাবিক হয়ে উঠছে পর্যটন ব্যবসা।

দীর্ঘদিন পরে জাহাজ চলাচল শুরু হওয়ায় সেন্টমার্টিন দ্বীপবাসীও সন্তুষ্ট। তাদের মাঝে কর্ম-চাঞ্চল্য ফিরেছে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.