The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
মঙ্গলবার, ৫ই মার্চ, ২০২৪

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে যৌন হয়রানির অভিযোগে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী দপ্তরী আটক

কালিগঞ্জ(সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : কালিগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও দপ্তরী কামনৈশ প্রহরীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে আটক করেছে কালিগঞ্জ থানা পুলিশ।রবিবার(২৭ নভেম্বর) বেলা ২টার দিকে সাতক্ষীরার জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার ভাড়াশিমলা ইউনিয়নের স্বরাব্দীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম (৪৫)এবং তার সহযোগী একই স্কুলের দপ্তরী কাম সহকারী দপ্তরি সাইফুল ইসলাম( ৩৫) কে আটক করে কালিগঞ্জ থানা পুলিশ।

উক্ত ঘটনায় ওই স্কুলের যৌন নিপীড়নের শিকার তৃতীয় শ্রেণীর শিক্ষার্থীর বাবা বাদি হয়ে প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম এবং দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী সাইফুল ইসলামের বিরুদ্ধে রবিবার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে এবং অত্র স্কুলের সভাপতি নাজমুল হাসান অপু, সহ সভাপতি আবু তৈয়ব মহাসিন, শিক্ষার্থীর মা জুলিয়া পারভীন, বাবা মনিরুল ইসলাম সহ একাধিক ব্যক্তি সাংবাদিকদের জানান কালিগঞ্জ উপজেলার স্বরাফদ্বীপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম অত্র স্কুলে যোগদানের পর হতে তার সহযোগী দপ্তরি সাইফুল ইসলামের সহযোগিতায় দীর্ঘদিন যাবত স্কুলের পঞ্চম শ্রেণী সহ বিভিন্ন শ্রেণীর শিক্ষার্থীদেরকে যৌন হয়রানি চালিয়ে আসছিল। তৃতীয় শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে দপ্তরি কাম নৈশ প্রহরী সাইফুল ইসলাম প্রাইভেট পড়ার কথা বলে বিদ্যালয় এর গোপন কক্ষে যৌন নিপীড়ন চালালে ওই শিক্ষার্থী বিষয়টি তার বাবা-মাকে জানায়। শিক্ষার্থীর বাবা-মা বিষয়টি নিয়ে ওই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাইফুল ইসলামকে অবহিত করে।

এ ঘটনা নিয়ে রবিবার বেলা ১২টার সময় স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভা চলাকালীন প্রধান শিক্ষক তার সহযোগী দপ্তরি সাইফুল ইসলামকে জরিমানা করে রেহাই দেওয়ার কথা বললে অভিভাবকরা উত্তেজিত হয়ে পড়ে। ওই সময় উত্তেজিত অভিভাবক এবং এলাকাবাসী প্রধান শিক্ষক এবং দপ্তরিকে স্কুলে অবরুদ্ধ করে রেখে থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে থানা হতে উপরিদর্শক মোরশেদ, বুলবুল, মিলন ঘোষ পুলিশ ভ্যান যোগে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশ অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে অভিযুক্তদেরকে আটক করে দ্রুত থানায় নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে থানার উপ-পরিদর্শক মোর্শেদ সাংবাদিকদের জানান অভিযোগের ভিত্তিতে দুজনকে গ্রেফতার করে আনা হয়েছে। অফিসার ইনচার্য বিবেচনা সাপেক্ষে আইননুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলামের বিরুদ্ধে এর আগেও বিভিন্ন স্কুলে দায়িত্ব পালনের সময় ছাত্রীদের উপর যৌন নিপীড়ন চালানোর অভিযোগ রয়েছে। যে কারণে তাকে একাধিকবার সাময়িক বরখাস্তসহ বিভাগীয় ব্যবস্থার মাধ্যমে বিভিন্ন স্কুলে বদলি করা হয়েছে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. জাতীয়
  3. সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে যৌন হয়রানির অভিযোগে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী দপ্তরী আটক

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে যৌন হয়রানির অভিযোগে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী দপ্তরী আটক

কালিগঞ্জ(সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : কালিগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও দপ্তরী কামনৈশ প্রহরীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে আটক করেছে কালিগঞ্জ থানা পুলিশ।রবিবার(২৭ নভেম্বর) বেলা ২টার দিকে সাতক্ষীরার জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার ভাড়াশিমলা ইউনিয়নের স্বরাব্দীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম (৪৫)এবং তার সহযোগী একই স্কুলের দপ্তরী কাম সহকারী দপ্তরি সাইফুল ইসলাম( ৩৫) কে আটক করে কালিগঞ্জ থানা পুলিশ।

উক্ত ঘটনায় ওই স্কুলের যৌন নিপীড়নের শিকার তৃতীয় শ্রেণীর শিক্ষার্থীর বাবা বাদি হয়ে প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম এবং দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী সাইফুল ইসলামের বিরুদ্ধে রবিবার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে এবং অত্র স্কুলের সভাপতি নাজমুল হাসান অপু, সহ সভাপতি আবু তৈয়ব মহাসিন, শিক্ষার্থীর মা জুলিয়া পারভীন, বাবা মনিরুল ইসলাম সহ একাধিক ব্যক্তি সাংবাদিকদের জানান কালিগঞ্জ উপজেলার স্বরাফদ্বীপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম অত্র স্কুলে যোগদানের পর হতে তার সহযোগী দপ্তরি সাইফুল ইসলামের সহযোগিতায় দীর্ঘদিন যাবত স্কুলের পঞ্চম শ্রেণী সহ বিভিন্ন শ্রেণীর শিক্ষার্থীদেরকে যৌন হয়রানি চালিয়ে আসছিল। তৃতীয় শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে দপ্তরি কাম নৈশ প্রহরী সাইফুল ইসলাম প্রাইভেট পড়ার কথা বলে বিদ্যালয় এর গোপন কক্ষে যৌন নিপীড়ন চালালে ওই শিক্ষার্থী বিষয়টি তার বাবা-মাকে জানায়। শিক্ষার্থীর বাবা-মা বিষয়টি নিয়ে ওই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাইফুল ইসলামকে অবহিত করে।

এ ঘটনা নিয়ে রবিবার বেলা ১২টার সময় স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভা চলাকালীন প্রধান শিক্ষক তার সহযোগী দপ্তরি সাইফুল ইসলামকে জরিমানা করে রেহাই দেওয়ার কথা বললে অভিভাবকরা উত্তেজিত হয়ে পড়ে। ওই সময় উত্তেজিত অভিভাবক এবং এলাকাবাসী প্রধান শিক্ষক এবং দপ্তরিকে স্কুলে অবরুদ্ধ করে রেখে থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে থানা হতে উপরিদর্শক মোরশেদ, বুলবুল, মিলন ঘোষ পুলিশ ভ্যান যোগে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশ অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে অভিযুক্তদেরকে আটক করে দ্রুত থানায় নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে থানার উপ-পরিদর্শক মোর্শেদ সাংবাদিকদের জানান অভিযোগের ভিত্তিতে দুজনকে গ্রেফতার করে আনা হয়েছে। অফিসার ইনচার্য বিবেচনা সাপেক্ষে আইননুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলামের বিরুদ্ধে এর আগেও বিভিন্ন স্কুলে দায়িত্ব পালনের সময় ছাত্রীদের উপর যৌন নিপীড়ন চালানোর অভিযোগ রয়েছে। যে কারণে তাকে একাধিকবার সাময়িক বরখাস্তসহ বিভাগীয় ব্যবস্থার মাধ্যমে বিভিন্ন স্কুলে বদলি করা হয়েছে।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন