সাকিবের সঙ্গে কথা বলেছিল আইপিএলের ২ দল, শিশিরের দাবি

এবারের আইপিএলে খেলা হচ্ছে না সাকিব আল হাসানের। গতকাল সন্ধ্যায় ব্যাপারটি নিশ্চিত হয়ে গেছে। এই প্রথম আইপিএলের নিলামে উঠেও বিক্রি হলেন না বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার। কাল দ্বিতীয় দিনেও তাঁর নাম ডাকা হয়েছিল, কিন্তু আগ্রহ দেখায়নি কোনো দল। ব্যাপারটি অবাক করেছে অনেককেই। বিশেষ করে তাঁর বর্তমান ফর্ম বিচার করে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তাঁর অভিজ্ঞতা আর রেকর্ড যেমন, তাতে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে তাঁর দল না পাওয়াটা বেশ অপ্রত্যাশিত। সাকিবের আইপিএলে দল না পাওয়া নিয়ে তাই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এখন জোর আলোচনা।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) নিলামে গত দুই দিনে দুবার নাম উঠেছিল সাকিব আল হাসানের। কোনোবারই তাঁকে দলে নিতে আগ্রহ দেখায়নি ১০ ফ্র্যাঞ্চাইজির কেউ। এর পর থেকে চারদিকে আলোচনা-সমালোচনা। সাকিবের আইপিএল ক্যারিয়ার শেষ হয়ে গেল নাকি, উঠেছিল এমন প্রশ্নও।

আলোচনা-সমালোচনার মধ্যেই সাকিবের স্ত্রী উম্মে আল হাসানের পোস্ট বিষয়টিকে অন্য মাত্রা দিয়েছে। শিশির লিখেছেন, নিলামে কোনো দল তাঁকে না নিলেও আইপিএলের দুটি দল নাকি সরাসরি সাকিবের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল, ‘খুব বেশি উত্তেজিত হওয়ার আগে আপনাদের জানিয়ে রাখি, বেশ আগেই দুটি দল সরাসরি যোগাযোগ করেছিল। তারা জানতে চেয়েছিল, সাকিব পুরো মৌসুম তাদের হয়ে খেলতে পারবে কি না!’

শিশির মনে করেন, আইপিএলে সাকিব দল পায়নি বলেই যে তাঁর আইপিএল ক্যারিয়ার শেষ হয়ে গেছে, সেটা ঠিক নয়। দল পেলে তিনি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজে থাকতে পারতেন না। শিশির প্রশ্ন তুলেছেন, তখন সবাই তাঁকে ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলতেন কি না, ‘আইপিএলে দল না পাওয়া খুব বড় বিষয় নয়। এবার পায়নি, পরের বছর পাবে। দল পেলে তাকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ মিস করতে হতো। তখন কি সবাই একই কথা বলতেন? তাকে বিশ্বাস ঘাতক বানাতেন? আপনাদের উত্তেজনায় জল ঢেলে দেওয়ার জন্য দুঃখিত!’

দেশের হয়ে খেলা বাদ দিয়ে সাকিব আইপিএলে খেলতে চান, এমন সমালোচনা প্রায়ই হয় তাঁকে নিয়ে। নিজের পোস্টে শিশির সেই প্রসঙ্গই তুলেছেন। এর আগে কলকাতা নাইট রাইডার্স আর সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়েও খেলেছেন সাকিব। কলকাতার হয়ে শিরোপা জয়ের অভিজ্ঞতাও আছে তাঁর।