The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বুধবার, ১৯শে জুন, ২০২৪

সর্বজনীন পেনশন প্রজ্ঞাপন বাতিলের দাবিতে পবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

পবিপ্রবি প্রতিনিধি: অর্থ মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত সর্বজনীন পেনশনের ‘প্রত্যয়’ স্কিমের প্রজ্ঞাপন‌ প্রত্যাহার এবং শিক্ষকদের স্বতন্ত্র বেতন স্কেলের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি ও প্রতিবাদ সভা পালন করেছে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।

সোমবার (১৩ মে) বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় কর্মসূচির অংশ হিসেবে একাডেমিক ভবনের সামনে অবস্থান সহ বিশ্ববিদ্যালয়টির সকল শিক্ষকবৃন্দ পদযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন।

মানববন্ধনে শিক্ষকরা সর্বজনীন পেনশন স্কিমকে “বৈষম্যমূলক” আখ্যা দিয়ে এর প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহার ও শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতনস্কেল দাবি করেন। তারা বলেন, এমন বৈষম্যমূলক পেনশন ব্যবস্থা চালু মানসম্মত শিক্ষা ও গবেষণার জন্য হুমকিস্বরূপ। এটি একটি আমলাতান্ত্রিক চক্রান্ত ও শিক্ষকদের সামাজিক মর্যাদাকে অবনমন করার প্রচেষ্টা। এর ফলে মেধাবী শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতা পেশায় আসতে চাইবে না। তারা আরো বলেন, বৈষম্যমূলক পেনশন প্রজ্ঞাপন অতিদ্রুত প্রত্যাহার করা না হলে আমরা এর থেকেও কঠোর আন্দোলনে যাবো। প্রয়োজনে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করব। যেসময় আমাদের পাঠদান ও গবেষণা কার্যক্রমে মনোনিবেশ করার কথা কিন্তু আজ আমাদের এর জন্য আন্দোলন করতে হচ্ছে।

দাবির বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক জেহাদ পারভেজ বলেন, “একটি জিনিস খেয়াল করার বিষয় আছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের উপরে পেনশনের বিষয়ে যে প্রজ্ঞাপনটা জারি হয়েছে সেটা জারি হওয়ার পর থেকেই প্রশাসন থেকে বিভিন্নভাবে বলা হচ্ছে এটা অনেক ভালো, আগের থেকে ভালো। আমি জানিনা মানুষকে কতটা বোকা ভাবে এরা। তারা সবকিছুতেই নিজেরা নীতি নির্ধারণ করে, নিজেরা নিজের মতো করে নেয়। শুধু পেনশনের ব্যাপারে তারা নিজেরা নিবে না আরেকজনকে চাপিয়ে দিবে। আর বলবে যে এটা ভালো। নিজে আগে নাও তারপর অন্যজনকে বলো এটা ভালো।”

মানববন্ধনে পবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. আসাদুজ্জামান মিয়া মুন্না সহ বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.