The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
শনিবার, ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪

শিরিন শিলাকে জড়িয়ে ধরে চুম্বন, পা ধরে মাফ চাইল সেই ছেলে

অপূর্ব রানা পরিচালিত ‘দ্য রাইটার’ সিনেমার শুটিং করতে গিয়ে এক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার শিকার হন চিত্রনায়িকা শিরিন শিলা। পুলিশের পোশাক পরে শুটিং করছিলেন। এ সময় এক কিশোর এগিয়ে আসে, শিরিন শিলার সাথে কথা বলার সময় তাকে জড়িয়ে ধরে।

নেহাত শিশু ভেবেই অভিনেত্রী তাকে বুকে স্থান দেন, জড়িয়ে ধরেন। সরল মনে এক ভক্তের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বিপাকে পড়েন নায়িকা। শুটিংস্থলে প্রকাশ্যে জড়িয়ে ধরে নায়িকাকে চুমু দেয়ার চেষ্টা করেছিলেন ওই কিশোর। সেই কিশোর নিজেকে এতিম দাবি করে নায়িকাকে জড়িয়ে ধরে এবং শেষদিকে চুম্বন দেয় যা ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল। এমন একটি ভিডিও গত দুই দিন ধরে সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল।

এবার জড়িয়ে ধরে চুম্বনের পর পা ধরে ক্ষমা চাইলেন কিশোর। জানালেন সে একজন রিকশাচালক। সম্প্রতি বিয়েও করেছে। ছেলেটিকে প্রতারক আখ্যা দিলেন অভিনেত্রী। বললেন, ‘সে বিবাহিত। ৯ দিন আগে বিয়ে করেছে। সে আমাকে যা যা বলেছে পুরোটাই মিথ্যা বলেছে।’

এদিন সকালে শিরিন ফেসবুকে একটি ভিডিও আপলোড করেন। যেখানে দেখা যায়, ছেলেটি শিরিন শিলার পা ধরে মাফ চাইছে। শুটিং ইউনিটের কেউ কেউ তাকে পুলিশে দেওয়ার কথাও বলছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

শিরিন শিলা বলেন, ‘ছেলেটিকে আমি একজন ছিন্নমূল শিশু ভেবে মমতা দেখিয়েছিলাম। কাছে আসার সুযোগ দিয়েছিলাম। কিন্তু সে এটার অপব্যবহার করেছে। বিষয়টি ভেবে সারা রাত আমি ঘুমাতে পারিনি। গতকাল ভোরে উঠেই তার খোঁজ করতে শুরু করি। যেহেতু ভিডিও ভাইরাল হয়ে গেছে। সেহেতু সবাই তাকে চিনে ফেলেছে। তার বাসায় গিয়ে দেখি, তার স্ত্রী রয়েছে। মা রয়েছে। অথচ সে আমাকে বলেছিল সে তার মাকে দেখেনি।’

শিরিন শিলা বলেন, ‘এই ঘটনা আমাকে খুবই ধাক্কা দিয়েছে। আমি ভাবতে পারিনি মানুষ এভাবেও প্রতারণা করতে পারে। তাকে আসলে পুলিশে দেওয়া উচিত ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ছেড়ে দিয়েছি।’

ঘটনাটি ঘটেছে ধামরাইয়ের একটি এলাকায়। শিরিন শিলা বলেন, শুটিং স্পটে উপস্থিত একটি ছেলে আমাকে দেখে এগিয়ে আসে এবং কথা বলতে চায়। ওই ছেলে তখন আবেগী কণ্ঠে আমাকে বলে, তার নাকি মা-বাবা নেই; তাকে কেউ ভালোবাসে না। ওই ছেলের এমন কথায় তার প্রতি মায়া জন্মে আমার। তার এমন কথা শুনে আমি তার কাঁধে হাত রেখে তাকে আদর করি। তখন সে বলে তার খিদে লেগেছে, তাই আমি তাকে খাওয়ার জন্য কিছু টাকাও দিই। এর পরই সে আমাকে জড়িয়ে ধরে। আমার কাছে তাকে মানসিক ভারসাম্যহীন মনে হয়েছে।

অভিনেত্রী আরো বলেন, ‘সে আমাকে আরো জানায়, সে নাকি কখনো গাড়িতে ওঠেনি। এ কারণে আমার সঙ্গে গাড়িতে উঠবে। এই বলেই আমাকে ফের জড়িয়ে ধরে হঠাৎ গালে চুমু দেওয়ার চেষ্টা করে। তার এ ঘটনায় হতভম্ব হয়ে যাই আমি। পরে শুটিংয়ে থাকা লোকজন তাকে সরিয়ে নিলে আমি গাড়িতে করে ফিরে আসি।’ শিরিন শিলার এই ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। নানা প্রতিক্রিয়ায় ফেসবুক সরগরম হয়ে উঠেছে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. বিনোদন
  3. শিরিন শিলাকে জড়িয়ে ধরে চুম্বন, পা ধরে মাফ চাইল সেই ছেলে

শিরিন শিলাকে জড়িয়ে ধরে চুম্বন, পা ধরে মাফ চাইল সেই ছেলে

অপূর্ব রানা পরিচালিত ‘দ্য রাইটার’ সিনেমার শুটিং করতে গিয়ে এক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার শিকার হন চিত্রনায়িকা শিরিন শিলা। পুলিশের পোশাক পরে শুটিং করছিলেন। এ সময় এক কিশোর এগিয়ে আসে, শিরিন শিলার সাথে কথা বলার সময় তাকে জড়িয়ে ধরে।

নেহাত শিশু ভেবেই অভিনেত্রী তাকে বুকে স্থান দেন, জড়িয়ে ধরেন। সরল মনে এক ভক্তের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বিপাকে পড়েন নায়িকা। শুটিংস্থলে প্রকাশ্যে জড়িয়ে ধরে নায়িকাকে চুমু দেয়ার চেষ্টা করেছিলেন ওই কিশোর। সেই কিশোর নিজেকে এতিম দাবি করে নায়িকাকে জড়িয়ে ধরে এবং শেষদিকে চুম্বন দেয় যা ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল। এমন একটি ভিডিও গত দুই দিন ধরে সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল।

এবার জড়িয়ে ধরে চুম্বনের পর পা ধরে ক্ষমা চাইলেন কিশোর। জানালেন সে একজন রিকশাচালক। সম্প্রতি বিয়েও করেছে। ছেলেটিকে প্রতারক আখ্যা দিলেন অভিনেত্রী। বললেন, ‘সে বিবাহিত। ৯ দিন আগে বিয়ে করেছে। সে আমাকে যা যা বলেছে পুরোটাই মিথ্যা বলেছে।’

এদিন সকালে শিরিন ফেসবুকে একটি ভিডিও আপলোড করেন। যেখানে দেখা যায়, ছেলেটি শিরিন শিলার পা ধরে মাফ চাইছে। শুটিং ইউনিটের কেউ কেউ তাকে পুলিশে দেওয়ার কথাও বলছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

শিরিন শিলা বলেন, ‘ছেলেটিকে আমি একজন ছিন্নমূল শিশু ভেবে মমতা দেখিয়েছিলাম। কাছে আসার সুযোগ দিয়েছিলাম। কিন্তু সে এটার অপব্যবহার করেছে। বিষয়টি ভেবে সারা রাত আমি ঘুমাতে পারিনি। গতকাল ভোরে উঠেই তার খোঁজ করতে শুরু করি। যেহেতু ভিডিও ভাইরাল হয়ে গেছে। সেহেতু সবাই তাকে চিনে ফেলেছে। তার বাসায় গিয়ে দেখি, তার স্ত্রী রয়েছে। মা রয়েছে। অথচ সে আমাকে বলেছিল সে তার মাকে দেখেনি।’

শিরিন শিলা বলেন, ‘এই ঘটনা আমাকে খুবই ধাক্কা দিয়েছে। আমি ভাবতে পারিনি মানুষ এভাবেও প্রতারণা করতে পারে। তাকে আসলে পুলিশে দেওয়া উচিত ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ছেড়ে দিয়েছি।’

ঘটনাটি ঘটেছে ধামরাইয়ের একটি এলাকায়। শিরিন শিলা বলেন, শুটিং স্পটে উপস্থিত একটি ছেলে আমাকে দেখে এগিয়ে আসে এবং কথা বলতে চায়। ওই ছেলে তখন আবেগী কণ্ঠে আমাকে বলে, তার নাকি মা-বাবা নেই; তাকে কেউ ভালোবাসে না। ওই ছেলের এমন কথায় তার প্রতি মায়া জন্মে আমার। তার এমন কথা শুনে আমি তার কাঁধে হাত রেখে তাকে আদর করি। তখন সে বলে তার খিদে লেগেছে, তাই আমি তাকে খাওয়ার জন্য কিছু টাকাও দিই। এর পরই সে আমাকে জড়িয়ে ধরে। আমার কাছে তাকে মানসিক ভারসাম্যহীন মনে হয়েছে।

অভিনেত্রী আরো বলেন, ‘সে আমাকে আরো জানায়, সে নাকি কখনো গাড়িতে ওঠেনি। এ কারণে আমার সঙ্গে গাড়িতে উঠবে। এই বলেই আমাকে ফের জড়িয়ে ধরে হঠাৎ গালে চুমু দেওয়ার চেষ্টা করে। তার এ ঘটনায় হতভম্ব হয়ে যাই আমি। পরে শুটিংয়ে থাকা লোকজন তাকে সরিয়ে নিলে আমি গাড়িতে করে ফিরে আসি।’ শিরিন শিলার এই ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। নানা প্রতিক্রিয়ায় ফেসবুক সরগরম হয়ে উঠেছে।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন