The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
সোমবার, ২৪শে জুন, ২০২৪

শিক্ষা ও গবেষণায় দেশসেরা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

জাবি প্রতিনিধিঃ যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিক্ষা সাময়িকী ‘টাইমস হায়ার এডুকেশন (টিএইচই)’ সম্প্রতি এশিয়ার ১ হাজারের অধিক বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে র‍্যাংকিং প্রকাশ করেছেন।

শিক্ষা ও গবেষণার মান, শিক্ষার পরিবেশ, শিক্ষাদান পদ্ধতি, শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মচারী অনুপাত, সাইটেশন, আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীসহ বেশকিছু পারফরম্যান্স সূচকের ওপর ভিত্তি করে প্রকাশিত আন্তর্জাতিক র‍্যাংকিয়ের এ তালিকায় দেশের মধ্যে সেরা হয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি)।

এ তালিকায় যৌথভাবে প্রথম স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)।

এবারের তালিকায় এশিয়ার প্রথম স্থানে অবস্থান করছে চীনের সিনহুয়া বিশ্ববিদ্যালয়, দ্বিতীয় স্থানে
একই দেশের পেকিং বিশ্ববিদ্যালয় এবং তৃতীয় স্থানে সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়। তালিকায় প্রথম ১ থেকে ৩০০এর মধ্যে দেশের কোনো বিশ্ববিদ্যালয় নেই। তবে ৩০১ থেকে ৮০০ এর মধ্যে দেশের ৭ টি বিশ্ববিদ্যালয় স্থান পেয়েছে।
প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী, ৩০১ থেকে ৩৫০ এর মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশের জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়। তালিকার ৩৫১ থেকে ৪০০ এর মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়। তালিকার ৪০১ থেকে ৫০০ এর মধ্যে ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

এছাড়া তালিকার ৫০১ থেকে ৮০০ সিরিয়ালের মধ্যে রয়েছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় এবং আমেরিকান বিশ্ববিদ্যালয়। এছাড়াও যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিক্ষা সাময়িকী ‘টাইমস হায়ার এডুকেশন কতৃর্ক প্রদত্ত সারা বিশ্বের বিশ্ববিদ্যালয় র‍্যাংকিয়েও দেশসেরা হয়েছিল
আন্তর্জাতিকর্ র‍্যাংকিয়ে দেশসেরা হওয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্ট অন্যরা। সরকার ও রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক এবং অক্সফোর্ড, ক্যামব্রিজ ও হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিজিটিং স্কলার ও পোস্ট ডক্টরাল ফেলো ডক্টর মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম বলেন, ‘আন্তর্জাতিকর্ র‍্যাকিংয়ে দেশসেরা হওয়া আমাদের জন্য বড় পাওয়া। তবে এতে আত্মতুষ্টিতে ভোগার কোনো সুযোগ নেই। বরং আগামীতের্ র‍্যাংকিংয়ে কীভাবে আরও এগিয়ে আসা যায় তা নিয়ে ভাবতে হবে। এ লক্ষ্যে বিদেশি শিক্ষার্থীদের বেশি সংখ্যায় অন্তর্ভুক্তির পাশাপাশি বিদেশি শিক্ষকদেরও সীমিত পরিসরে নিয়োগের ব্যাপারে ভাবতে হবে। মানসম্মত গবেষণা নিশ্চিতের জন্য গবেষণায় বরাদ্দ বাড়াতে হবে। সর্বোপরি, বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা ও গবেষণার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক নুরুল আলম বলেন, ‘ বাংলাদেশে প্রথম স্থান লাভ করায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আনন্দিত। এই অনন্য নজির স্থাপনে তথ্য-উপাত্ত দিয়ে সহযোগিতা করার জন্য শিক্ষক-গবেষকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানাই। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আগামীতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় আরও এগিয়ে যাবে। এ লক্ষ্যে সবাইকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানাই।’

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.