শিক্ষার্থীদের ইউনিক আইডির ডাটা এন্ট্রি ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত

শিক্ষার্থীদের প্রোফাইল ডাটাবেজ তৈরি ও ইউনিক আইডির জন্য তথ্য সফট্ওয়্যারে এন্ট্রি করতে প্রতিষ্ঠান প্রধান ও শিক্ষকদের আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আইইআইএমএস প্রকল্প থেকে বিষয়টি জানিয়ে চিঠি সব সরকারি বেসরকারি স্কুল-কলেজ ও মাদরাসার প্রধানদের পাঠানো হয়েছে।

উপপ্রকল্প পরিচালক ড. মো. নাসির উদ্দিন গনি স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়েছে, সব বিভাগের জন্য ডাটা এন্ট্রির সময়সীমা ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পুনঃনির্ধারণ করা হলো। সফট্ওয়্যারে ২০২২ সালের ষষ্ঠ ও একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের তথ্য এন্ট্রির অপশন তৈরি করা হয়েছে। ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ষষ্ঠ ও একাদশ শ্রেণিতে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের ডাটা এন্ট্রি করতে হবে।

চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, ২০১৯ সালে যেসব শিক্ষার্থীর ডাটা এন্ট্রি ও আপলোড করা সম্পন্ন হয়নি সেসব শিক্ষার্থীসহ ২০২২ সালে ষষ্ঠ ও একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ডাটা ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এন্ট্রি ও আপলোড করার জন্য বলা হলো।

ডাটা এন্ট্রি নিয়ে প্রকল্পের পক্ষ থেকে শিক্ষকদের কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। চিঠিতে জানানো হয়েছে, শিক্ষার্থীর তথ ছক ২০২১ এর ওপরে বছর নির্বাচন করুন বক্সে ২০২২ নির্বাচন করলে ২০২২ খ্রিষ্টাব্দের এন্ট্রি ফরম প্রদর্শিত হবে। তথ্যগুলো ২০২১ সালের মতো পূরণ করতে হবে। যেসব শিক্ষার্থীর মা বা বাবার এনআইডি নেই তাদের মা বা বাবাকে এনআইডি জরুরিভিত্তিতে সংগ্রহপূর্বক ডাটা এন্ট্রি করতে হবে।

আর এখন পর্যন্ত যেসব শিক্ষার্থীর অনলাইনে জন্মনিবন্ধন নেই-উপজেলা ও প্রতিষ্ঠানভিত্তিক সেসব শিক্ষার্থীর শ্রেণিভিত্তিক তালিকা উপপ্রকল্প পরিচালকের কাছে জরুরিভিত্তিতে পাঠাতে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের বলা হয়েছে।