শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুই দিনের সাপ্তাহিক ছুটি এখন থেকেই স্থায়ী হচ্ছে

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ে সম্প্রতি দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন করা হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুই দিনের এই সাপ্তাহিক ছুটি এখন থেকেই স্থায়ী হচ্ছে। এমনটাই জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার বিষয়ে আজ সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী সাপ্তাহিক ছুটি নিয়ে এসব কথা বলেন।

দীপু মনি বলেন, নতুন শিক্ষাক্রমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন করা হয়েছে। এটি আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়ার কথা। সেটিকে এগিয়ে আনা হয়েছে। সেটা এখন থেকেই হবে। কারণ, অন্যান্য পেশার চেয়ে শিক্ষকেরা বছরে ৫২ দিন বেশি কাজ করেন। শিক্ষকদের একটু সময় দরকার। শিক্ষার্থীদেরও একটু সময় দরকার।
দীপু মনি আরও বলেন, সারা বিশ্বই বলছে, সব গবেষণা বলছে, সপ্তাহে দুই দিন ছুটি হলে তা শেখার পক্ষের সহায়ক। শেখানোর পক্ষেও সহায়ক।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ের জন্য গত ২২ আগস্ট সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত অফিসের সময়সূচি এগিয়ে আনা হয়। পাশাপাশি সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন করে সরকার।

আগে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে কেউ কেউ সপ্তাহে দুই দিন ছুটি রাখত। তবে সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, সাপ্তাহিক ছুটি এক দিনই ছিল। তাই দেশের সরকারি স্কুল-কলেজগুলোতে সপ্তাহে এক দিন ছুটির নিয়মই মানা হতো। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য এই ছুটি দুই দিন করা হয়েছে, যা এখন স্থায়ী হচ্ছে।