The Rising Campus
News Media

শিক্ষকতায় পেশাগত উন্নয়নে জি. সি. এফ. আই. এল – এর অ্যাকশন রিসার্চ প্রশিক্ষণ

পাপ্পু, তিতুমির কলেজঃ যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বেসরকারি গবেষণা উন্নয়ন সংস্থা গ্লোবাল ( Global Center For Innovation And Learning) GCFIL শুরু করেছে দুই মাসব্যাপী শ্রেণিকক্ষে অ্যাকশন রিসার্চ বিষয়ক অনলাইনে মাস্টার সার্টিফিকেট কোর্স। শিক্ষকতায় পেশাগত উন্নয়নে বাংলাদেশে এ ধরনের কোর্স এই প্রথম।

গত, (১২ নভেম্বর) ২০২২ সন্ধ্যায় শুরু হওয়া এই কোর্সের উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের প্রক্তক মহাপরিচালক শ্যামল কান্তি ঘোষ, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা টিচার্স ট্রেনিং কলেজের সহযোগী অধ্যাপক শাহরাজ রিয়াদ, জি.সি.এফ.আই.এল- এর কো ফাউন্ডার ও সিই ও শাকিল মালিক, প্রশিক্ষক নাফিজ উদ্দিন খান প্রমুখ।

২৫ জন শিক্ষক ও শিক্ষা সংলিষ্ট ব্যক্তি এই অনলাইন কোর্সে অংশগ্রহণ করেছেন। যাদের তিন ধাপে ( প্রাথমিক আবেদন প্রক্রিয়া, প্রশ্নমালা জরিপ ও অনলাইন ইন্টারভিউ) সহ বাছাই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে চূড়ান্তভাবে কোর্সের জন্য যুক্ত করা হয়েছে।

প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে আছেন ইউআরসি ও পিটিআই ইন্সট্রাকটর, প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, বি.এড/ এম এড প্রশিক্ষণার্থী ও শিক্ষা প্রদানকারি এনজিও শিক্ষাকর্মী।

শিক্ষকতায় অব্যাহত পেশাগত উন্নয়নে অ্যাকশন রিসার্চ একটি কার্যকর কৌশল। পিইডিপি-৪ এ শিক্ষকদের অব্যাহত পেশাগত জীবনকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। শ্রেণিকক্ষের সমস্যা চিহ্নিত করে তা একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সমাধান করা অ্যাকশন রিসার্চের লক্ষ্য। শ্রেণিকক্ষে অ্যাকশন রিসার্চের এ টু জেড এই কোর্সে শেখানো হবে। প্রশিক্ষণ শেষে প্রত্যক প্রশিক্ষণার্থীকে হাতে কলমে অ্যাকশন রিসার্চ করার সুযোগ সৃষ্টি করা হবে।

সফলভাবে কোর্স সমাপ্তির পর সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে। বাংলাদেশের শিক্ষার গুনগত মান উন্নয়নে শিক্ষকদের অব্যাহত পেশাগত জীবনে( জি.সি.এফ. আই.এল) এর ধারাবাহিকভাবে এই প্রশিক্ষণ কোর্সটি পরিচালনার উদ্যেগ গ্রহন করেছে। এই কোর্সটি আগামীতে অব্যাহত থাকবে।

গ্লোবাল সেন্টার ফর ইনোভেশন এন্ড লানিং মূলত যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক একটি বেসরকারি গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা, যেটি শিক্ষা গবেষণা ও পাবলিক সেক্টর ও বৈশ্বিক মানব উন্নয়নে অবদান রাখার লক্ষ্যে ১৯৯০ দশকে শুরু হয়। এটি এমন একটি প্রতিষ্ঠান যেখানে সকল শ্রেণি ও সম্প্রদায়ের দক্ষতা উন্নয়ন ও তাদের জীবনমানের উন্নয়নে অবদান রাখার লক্ষ্য ব্রত।

বাংলাদেশে এর যাত্রা ও ১৯৯০ এর দশকে মধ্যে এশিয়া, এশিয়ার বিভিন্ন দেশ সহ বিশ্বের ৭৫ টির বেশি দেশে তার কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে। যুক্তরাষ্ট্রে এর সদর দপ্তর এবং বাংলাদেশে ও রয়েছে একটি আঞ্চলিক দপ্তর।

13
You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.