The Rising Campus
News Media

শরিফুল রাজ শতাধিক সিনেমার প্রস্তাব পেয়েছে, করছেন না একটিও

না শাকিব খান, না আরিফিন শুভ। তাদের ছাপিয়ে আলোচনায় এখন শরিফুল রাজ। বলা চলে এই নায়কের বৃহস্পতি এখন তুঙ্গে। এখনো তার অভিনীত ৩টি সিনেমা দাপিয়ে বেড়াচ্ছে সিনেমা হলগুলো। যার মধ্যে তার ২ সিনেমা দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশেও চলছে সগৌরবে।

চলচ্চিত্রে আসার আগে শরিফুল রাজ ২০১২ সালে র্যাম্প মডেল হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন। র্যাম্পের সাবলীল পারফরম্যান্স তাকে ফ্যাশন জগতে দ্রুতই পরিচিত করে তোলে। দেশ সেরা কোরিওগ্রাফারদের সঙ্গে কাজ করে  তিনি একজন সফল মডেল হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হন।

২০১৬ সালে রেদওয়ান রনি নির্মিত ‍‍‘আইসক্রিম‍‍’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে সিনেমা জগতে অভিষেক হয় রাজের। ‘আইসক্রিম‍‍’ এ অভিনয়ের পর থেকে তিনি আরও আগ্রহী হয়ে ওঠেন অভিনয়ে। আগের মতোই র্যাম্প মডেলিং চালিয়ে যেতে থাকেন আর সেই সঙ্গে অভিনয়ে সুযোগের অপেক্ষায় থাকেন।

এরপর ২০১৯ সালে তানিম রহমান অংশুর পরিচালনায় ‍‍‘ন ডরাই‍‍’ সিনেমায় কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পান শরিফুল রাজ। এ সিনেমায় তার অভিনয় বেশ প্রশংসা কুড়ায়। ফলশ্রুতিতেই তার হাতে আসতে থাকে একের পর এক সিনেমার কাজ।

চলতি ২০২২ সালে গিয়াসউদ্দিন সেলিমের পরিচালিত ‍‍‘গুণিন‍‍’ সিনেমায় কাজ করে বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছেন এই গুনী অভিনেতা। এরপর একই বছর মুক্তি পায় রাজের অভিনীত  ‍‍‘পরাণ‍‍’ এবং  ‍‘হাওয়া‍‍’ সিনেমা। সিনেমায় সু’অভিনয়ের কারণে আলোচনার তুঙ্গে চলে আসেন রাজ। ব্যাপক জনপ্রিয়তার সাথে সাথে টাইমলাইনে চলে আসেন এই মেধাবী অভিনেতা। এরইমধ্যে মুক্তি পেয়েছে তার আরেক সিনেমা ‘দামাল’। ইতোমধ্যে এটিও বেশ প্রশংসা কুড়াচ্ছে।

এদিএক মজার ব্যাপার হলো, এই অভিনেতার ‘পরাণ’ ও ‘হাওয়া’ সিনেমা ব্যবসাসফল হলেও তারপর তেমন কোনো সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হননি। কেন? মনে প্রশ্ন জাগতে পারে; তাহলে কি রাজ কোনো প্রস্তাব পাননি? রাজকে নিয়ে নির্মাতা, প্রযোজকদের কোন আগ্রহ নেই! এমনটা হওয়ার কথা নয়।

এ প্রসঙ্গে শরিফুল রাজ বলেন, ‘এর মধ্যে অনেক সিনেমার প্রস্তাব পেয়েছি। কিন্তু বেশির ভাগ গল্পই আমার কাছে ভালো লাগেনি। হাতে গোনা কয়েকটি গল্প কিছুটা ভালো লেগেছে, সেগুলো নিয়ে কথা চলছে; কিন্তু আমি এই মুহূর্তে কোনো সিনেমাতে চুক্তিবদ্ধ হতে চাই না। আমার হাতে গিয়াস উদ্দিন সেলিম ভাইয়ের ‘কাজল রেখা’ সহ আরও একটি সিনেমার কাজ রয়েছে। দুটি সিনেমার কাজ শেষ করেই অন্য সিনেমা নিয়ে ভাবব।’

আবার রাজের কাছে জানতে চাওয়া হয়, সংখ্যায় কতগুলো চিত্রনাট্য পেয়েছেন? কিন্তু সংখ্যা বলতে নারাজ রাজ। পরে এই অভিনেতা হেসে বললেন, ‘বাসা, হোয়াটসঅ্যাপস, মেসেঞ্জারে মিলিয়ে অনেক চিত্রনাট্য পেয়েছি। সংখ্যা তো গুনিনি। তবে ১০০-এর বেশি হবে। অনেকগুলো আমি পড়েছি, এখনো পড়ছি।

তিনি বলেন, হয়তো দর্শক আমার সিনেমা গ্রহণ করছেন। তাই বলে হুটহাট বছরে একের পর এক ছবি করে যেতে চাই না। শুরু থেকেই আমি এভাবে কাজ করতে চাইনি। যখন আমার অর্থের অনেক দরকার ছিল, তখনই করিনি। এখন তো প্রশ্নই ওঠে না। এর মানে এই নয় আমার অনেক টাকাপয়সা। কাজে ছাড় দিতে চাই না। সেই জায়গা থেকে কথাগুলো বলছি। গল্প ভালো লাগলেই সুখবর দেব।’

রাজকে আপাতত নতুন কোনো সিনেমায় শুটিং করতে দেখা যাচ্ছে না। তাঁর হাতে থাকা দুটি সিনেমার শুটিং শেষ করেই আগামী বছর মার্চ এপ্রিলে তিনি আবার নতুন কোনো সিনেমায় নাম লেখাবেন বলে জানান।

আরো পড়ুনঃ যমজ তিন ভাই-বোনের কৃতিত্বঃ সব পরীক্ষায়ই জিপিএ-৫ পেয়েছেন তারা

0
You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.