The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বৃহস্পতিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২৪

রাজধানীর গুলিস্তান জিরো পয়েন্ট জবি শিক্ষার্থীদের দখলে

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদকঃ সরকারী চাকরিতে কোটা পুনর্বহালের প্রতিবাদে রাজধানী ঢাকার গুলিস্তানের জিরো পয়েন্ট মোড় অবরোধ করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (১০ জুলাই) দুপুর তিনটার দিকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) থেকে মিছিল নিয়ে শিক্ষার্থীরা গুলিস্তান জিরো পয়েন্টের দিকে অগ্রসর হয়। অবশেষে জিরো পয়েন্টে এসে তারা অবস্থান কর্মসূচি গ্রহণ করে।

এসময় জিরো পয়েন্ট মোড়ে অবস্থিত সচিবালয়ের পার্শ্ববর্তী রাস্তা সহ আশপাশের সবগুলো সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। অবরোধে রাজধানীর সচিবালয়, মতিঝিল, পুরানা পল্টন ও তাঁতিবাজারগামী যাত্রীরা ব্যাপক ভোগান্তিতে পড়ে। অনেককে পায়ে হেঁটে গুলিস্তানের জিরো মোড় পার হতে দেখা যায়। এতে পুরো এলাকা জুড়ে সড়কে স্থবিরতা তৈরি হয়, মুহূর্তেই থমকে যায় নগরবাসীর স্বাভাবিক কর্মকাণ্ড।

এ সময় শিক্ষার্থীদের মুখে ছিলো প্রতিবাদী গান ও কবিতা আবৃত্তি। এ সময় শিক্ষার্থীরা ‘জেগেছেরে জেগেছে, ছাত্র সমাজ জেগেছে’, ‘রক্তের বন্যায়, ভেসে যাবে অন্যয়’, ‘লেগেছেরে লেগেছে, রক্তে আগুন লেগেছে’, ‘কোটা না মেধা? মেধা মেধা’, আঠারোর হাতিয়ার’, গর্জে উঠো আরেক বার’, কোটা প্রথা নিপাত যাক, মেধাবীরা মুক্তি পাক’, ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায়, বৈষম্যের ঠাই নাই’, ‘শেখ হাসিনার বাংলায়, বৈষম্যের ঠাই নাই’, ‘মেধাবীরা ভয় নাই, রাজপথ ছাড়ি নাই’ শ্লোগান দেয়।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী নাইমুর রহমান বলেন, এটা আমাদের প্রাণের দাবি,এটা আমাদের মুক্তির দাবি আমাদের দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা রাজপথ ছাড়বো না। কোটা প্রথার জন্য আমরা সব দিক থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের দাবী হলো বাংলাদেশের সকল চাকুরিতে কৌটা প্রথা বাতিল চাই।

কাফনের কাপড় পড়া তামিম ইসলাম দুর্জয় নামের শিক্ষার্থী বলেন,  আমরা শিক্ষার্থীদের মেধার কোন মূল্যায়ন নাই। আমরা প্রয়োজনে রক্ত দিব জীবন দিব কিন্তু আমাদের দাবি না মানা পর্যন্ত রাজপথ ছাড়বো না।

মোঃ আব্দুল কুদ্দুস নামে আরেক শিক্ষার্থী বলেন, কাফনের কাপড় পড়ে আমরা আন্দোলন করছি। এটা আমাদের মুক্তির দাবি, নিঃসন্দেহে আমাদের দাবি যৌক্তিক। আমাদের দাবি একটাই কৌটা প্রথা নিপাত যাক,মেধাবীরা মুক্তি পাক। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের এই যৌক্তিক আন্দোলনে সাড়া দিয়ে মেধার মূল্যায়ন করবেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.