The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪

রাজধানীতে গৃহকর্মীকে বিদায় সংবর্ধনা জানিয়ে অনন্য নজির স্থাপন

রাজধানীতে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ৩৬ বছরের গৃহকর্মীকে বিদায় জানিয়ে অনন্য নজির স্থাপন করেছেন এক দম্পতি। গত ১২ মে মা দিবসের দিনে উপহারসামগ্রী, টাকা ও ফুল দিয়ে বিদায় সংবর্ধনা জানান সরকারি তিতুমীর কলেজের অধ্যাপক কামরুন নাহার ও তার স্বামী অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা এন এম শরীয়ত উল্লাহ।

এই দম্পতির সংসার দীর্ঘ ৩৬ বছর আগলে রেখেছিলেন গৃহকর্মী আনোয়ারা বেগম (৭০)। বিদায় অনুষ্ঠানের পর গাড়িতে করে রাজধানীর গ্রিন রোডের বাসা থেকে তাকে খাগড়াছড়ির রামগড়ের নিজ বাড়িতে দিয়ে আসা হয়। সেখানে তিনি ভাইয়ের ছেলেদের সঙ্গে বাকী জীবন কাটাবেন।

গৃহকর্ত্রী কামরুন নাহার বলেন, এই ৩৬ বছরে তিনি নিজে পড়াশোনা শেষ করেছেন। বিসিএস দিয়েছেন। সন্তানের মা হয়েছেন। চাকরিতে ঢুকেছেন। ফেনী, ঢাকাসহ বিভিন্ন জায়গায় চাকরি করতে গেছেন। পুরোটা সময় সংসারের সব ঝড়ঝাপটা সামাল দিয়েছেন গৃহকর্মী আনোয়ারা বেগম।

শনিবার (৮ জুন) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব তাহসিনা আফরিন গৃহকর্মী আনোয়ারা বেগমের বিদায় সংবর্ধনার ছবি দিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘এই দীর্ঘ সময় আমাদের “আম্মুর বাসা” আগলে রেখেছেন—এই আনোয়ারা বুয়া। আমাদের বাসায় আসলে বুয়া ছিলেন গুরুত্বপূর্ণ পিলারের মতো। তার সহায়তায় আমরা তিন ভাইবোন আজ নিজ নিজ ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত। কর্মজীবী নারী হিসেবে এখন বুঝি, বাসায় বিশ্বস্ত সহচর পাওয়া কত বড় নেয়ামত।’

যোগ করে তাহসিনা আফরিন আরও বলেন, ‘যাওয়ার সময় তিনি জমানো বেতন ও তাদের আত্মীয়-স্বজনদের জাকাতের অর্থ নিয়ে গেছেন। আম্মুর নির্দেশ অনুসারে আমরা দুই বোন প্রতিমাসে তার জন্য পেনশনের মতো করে পাঁচ হাজার টাকা পাঠাব। আর যেকোনো প্রয়োজনে আমরা তার পাশে থাকবো।’

গৃহকর্মী আনোয়ারা বেগমের ভাতিজার ঘরের নাতি স্কুলশিক্ষক আনোয়ার হোসেন মুঠোফোনে বলেন, তার দাদি এখন তাদের পরিবারের সঙ্গে থাকছেন। ঢাকা থেকে আসার পর তিনি ভালো আছেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.