যুদ্ধের মধ্যে ফেসবুক ব্যবহার সীমিত করে দিয়েছে রাশিয়া

ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধের মধ্যে ফেসবুক ব্যবহার সীমিত করে দিয়েছে রাশিয়া। আজ শনিবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে এমনটি বলা হয়েছে।

রাশিয়ার যোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা রোসকোমনাদজোরের পক্ষ থেকে বলা হয়, ফেসবুক রাশিয়ান নাগরিকদের অধিকার ও স্বাধীনতা লঙ্ঘন করছে।

রাশিয়া সরকারের হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক মেসেঞ্জার এবং ইনস্টাগ্রামে প্রবেশ সীমিত করে দেবে কি না, তা জানা যায়নি।

রাশিয়া রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা আরআইএ, রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেল জাভেজদা এবং ক্রেমলিনপন্থী নিউজ সাইট লেনটা ডট আরইউ ও গেজেটা ডট আরইউর ওপর বৃহস্পতিবার ফেসবুক যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল তা তুলে নেওয়ার দাবি করেছিল রুশ সরকার।

তবে মেটা রুশ সরকারের এই অনুরোধ রাখেনি।

মেটার গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্সের ভাইস প্রেসিডেন্ট স্যার নিক ক্লেগ বলেছেন, ‘রাশিয়ান কর্তৃপক্ষ আউটলেটের বিষয়বস্তুর স্বাধীন তথ্য-পরীক্ষা বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে। আমরা প্রত্যাখ্যান করেছি।’

তবে রাশিয়ায় মেটার সব প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করছে বলে জানান নিক ক্লেগ। তিনি বলেন, ‘সাধারণ রাশিয়ানরা নিজেদের সংগঠিত করতে আমাদের অ্যাপগুলো ব্যবহার করছে।’

রাশিয়ার অনেক রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন মিডিয়া আউটলেট ইউক্রেনে রুশ হামলাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখিয়েছে। এই হামলাকে একটি ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ বলে আখ্যায়িত করছে তারা।