The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
রবিবার, ১৪ই এপ্রিল, ২০২৪

মেডিকেলে দ্বিতীয় হয়েছেন আনন্দমোহন কলেজের আসিফ

এবারের মেডিকেল কলেজ ভর্তি পরীক্ষায় দ্বিতীয় হয়েছেন আসিফ রহমান নিহাল। তিনি ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। আসিফের বাড়ি নেত্রকোনায়।

আসিফ ময়মনসিংহ জেলা স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। তার বাবার নাম মো. মিজানুর রহমান। তিনি একজন সরকারি চাকরিজীবী। নিহালের মায়ের নাম আফরোজা বেগম। তিনি একজন শিক্ষিকা।

রোববার (১২ মার্চ) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সভাকক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে পরীক্ষার ফল ঘোষণা করেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

পরীক্ষায় সর্বমোট পাসের মধ্যে ছেলে ২০ হাজার ৮১৩ জন ও পাসের হার ৪২ দশমিক ৩১ শতাংশ। মেয়ে পাস করেছেন ২৮ হাজার ৩৮১ জন ও পাসের হার ৫৭ দশমিক ৬৯ শতাংশ।

মন্ত্রী জানান, সারা দেশের ৩৭টি সরকারি মেডিকেল কলেজে এবার শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য আসন আছে ৪ হাজার ৩৫০টি। উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে মেধাক্রম অনুযায়ী প্রথম ৪ হাজার ৩৫০ জন এসব কলেজে ভর্তি হতে পারবেন।

উত্তীর্ণ বাকি শিক্ষার্থীরা বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে ভর্তি হতে পারবেন। সারাদেশে ৭১টি বেসরকারি মেডিকেল কলেজে এবার শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য মোট আসন রাখা হয়েছে ৬ হাজার ৭৭২টি।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. পরীক্ষা ও ফালাফল
  3. মেডিকেলে দ্বিতীয় হয়েছেন আনন্দমোহন কলেজের আসিফ

মেডিকেলে দ্বিতীয় হয়েছেন আনন্দমোহন কলেজের আসিফ

এবারের মেডিকেল কলেজ ভর্তি পরীক্ষায় দ্বিতীয় হয়েছেন আসিফ রহমান নিহাল। তিনি ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। আসিফের বাড়ি নেত্রকোনায়।

আসিফ ময়মনসিংহ জেলা স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। তার বাবার নাম মো. মিজানুর রহমান। তিনি একজন সরকারি চাকরিজীবী। নিহালের মায়ের নাম আফরোজা বেগম। তিনি একজন শিক্ষিকা।

রোববার (১২ মার্চ) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সভাকক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে পরীক্ষার ফল ঘোষণা করেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

পরীক্ষায় সর্বমোট পাসের মধ্যে ছেলে ২০ হাজার ৮১৩ জন ও পাসের হার ৪২ দশমিক ৩১ শতাংশ। মেয়ে পাস করেছেন ২৮ হাজার ৩৮১ জন ও পাসের হার ৫৭ দশমিক ৬৯ শতাংশ।

মন্ত্রী জানান, সারা দেশের ৩৭টি সরকারি মেডিকেল কলেজে এবার শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য আসন আছে ৪ হাজার ৩৫০টি। উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে মেধাক্রম অনুযায়ী প্রথম ৪ হাজার ৩৫০ জন এসব কলেজে ভর্তি হতে পারবেন।

উত্তীর্ণ বাকি শিক্ষার্থীরা বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে ভর্তি হতে পারবেন। সারাদেশে ৭১টি বেসরকারি মেডিকেল কলেজে এবার শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য মোট আসন রাখা হয়েছে ৬ হাজার ৭৭২টি।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন