The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪

মেডিকেলে আসন ফাঁকা অর্ধ শতাধিক

দেশের সরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে এমবিবিএস প্রথম বর্ষে অর্ধশতের বেশি আসন ফাঁকা হয়েছে। এই আসনগুলোর বিপরীতে তৃতীয় দফার মাইগ্রেশন সম্পন্ন করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ৫ জুন এমবিবিএস প্রথম বর্ষের প্রথম দফার মাইগ্রেশনের তালিকা প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত তালিকায় ৪৭টি আসন সাধারণ কোটা, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ৮টি এবং উপজাতীয় কোটায় আসন ছিল ৫টি। প্রথম দফার মাইগ্রেশন শেষে ৬টি আসন ফাঁকা হয়। পরবর্তী অনেক শিক্ষার্থী ভর্তি বাতিল করায় ফাঁকা আসনের সংখ্যা বেড়ে ২০১-এ দাঁড়ায়।

এই আসনগুলোর বিপরীতে গত ৮ আগস্ট দ্বিতীয় দফার মাইগ্রেশেনের তালিকা প্রকাশ করা হয়। মাইগ্রেশনের আবেদন করা শিক্ষার্থীরা ১০ থেকে ২৫ আগস্ট পর্যন্ত ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। দ্বিতীয় দফার মাইগ্রেশন শেষ হওয়ার পরও অর্ধশতের বেশি আসন ফাঁকা রয়েছে।

জানতে চাইলে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবীব বলেন, সরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে ৬৭টি আসন ফাঁকা রয়েছে। এরমধ্যে সাধারণ কোটায় ৬৪টি, উপজাতী কোটায় ২টি এবং মুক্তিযোদ্ধা কোটায় একটি আসন ফাঁকা রয়েছে।

কবে নাগাদ তৃতীয় মাইগ্রেশনের তালিকা প্রকাশ করা হবে? এমন প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক আহসান হাবীব আরও বলেন, এটি এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। আমরা তালিকা বুয়েটের আইটি ডিপার্টমেন্টে পাঠাব। তারা পরবর্তীতে তালিকা তৈরি করে আমাদের কাছে পাঠাবে। এরপর তালিকা ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

প্রসঙ্গত, গত ১ এপ্রিল সারাদেশের ১৯টি কেন্দ্রের ৫৭টি ভেন্যুতে একযোগে সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। আর মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) দুপুরে পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়।

এবার ভর্তি পরীক্ষায় আবেদন করেছিলেন ১ লাখ ৪৩ হাজার ৯১৫ জন। এর মধ্যে ভর্তি পরীক্ষায় ১ লাখ ৩৯ হাজার ৭৪০ জন ভর্তিচ্ছু অংশ নিয়েছেন। অনুপস্থিত ছিলেন ৪ হাজার ১৭৫ জন। পরীক্ষায় অনুপস্থিতির হার ২ দশমিক ৯ শতাংশ।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. মেডিকেল কলেজ সমূহ
  3. মেডিকেলে আসন ফাঁকা অর্ধ শতাধিক

মেডিকেলে আসন ফাঁকা অর্ধ শতাধিক

দেশের সরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে এমবিবিএস প্রথম বর্ষে অর্ধশতের বেশি আসন ফাঁকা হয়েছে। এই আসনগুলোর বিপরীতে তৃতীয় দফার মাইগ্রেশন সম্পন্ন করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ৫ জুন এমবিবিএস প্রথম বর্ষের প্রথম দফার মাইগ্রেশনের তালিকা প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত তালিকায় ৪৭টি আসন সাধারণ কোটা, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ৮টি এবং উপজাতীয় কোটায় আসন ছিল ৫টি। প্রথম দফার মাইগ্রেশন শেষে ৬টি আসন ফাঁকা হয়। পরবর্তী অনেক শিক্ষার্থী ভর্তি বাতিল করায় ফাঁকা আসনের সংখ্যা বেড়ে ২০১-এ দাঁড়ায়।

এই আসনগুলোর বিপরীতে গত ৮ আগস্ট দ্বিতীয় দফার মাইগ্রেশেনের তালিকা প্রকাশ করা হয়। মাইগ্রেশনের আবেদন করা শিক্ষার্থীরা ১০ থেকে ২৫ আগস্ট পর্যন্ত ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। দ্বিতীয় দফার মাইগ্রেশন শেষ হওয়ার পরও অর্ধশতের বেশি আসন ফাঁকা রয়েছে।

জানতে চাইলে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবীব বলেন, সরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে ৬৭টি আসন ফাঁকা রয়েছে। এরমধ্যে সাধারণ কোটায় ৬৪টি, উপজাতী কোটায় ২টি এবং মুক্তিযোদ্ধা কোটায় একটি আসন ফাঁকা রয়েছে।

কবে নাগাদ তৃতীয় মাইগ্রেশনের তালিকা প্রকাশ করা হবে? এমন প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক আহসান হাবীব আরও বলেন, এটি এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। আমরা তালিকা বুয়েটের আইটি ডিপার্টমেন্টে পাঠাব। তারা পরবর্তীতে তালিকা তৈরি করে আমাদের কাছে পাঠাবে। এরপর তালিকা ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

প্রসঙ্গত, গত ১ এপ্রিল সারাদেশের ১৯টি কেন্দ্রের ৫৭টি ভেন্যুতে একযোগে সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। আর মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) দুপুরে পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়।

এবার ভর্তি পরীক্ষায় আবেদন করেছিলেন ১ লাখ ৪৩ হাজার ৯১৫ জন। এর মধ্যে ভর্তি পরীক্ষায় ১ লাখ ৩৯ হাজার ৭৪০ জন ভর্তিচ্ছু অংশ নিয়েছেন। অনুপস্থিত ছিলেন ৪ হাজার ১৭৫ জন। পরীক্ষায় অনুপস্থিতির হার ২ দশমিক ৯ শতাংশ।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন