The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
রবিবার, ১৪ই এপ্রিল, ২০২৪

মানবসেবা কখনও অপরাধ হতে পারে না

চবি প্রতিনিধি: বিছানায় শুয়ে আছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল। শুয়ে শুয়ে ফোন টিপছেন। তার পায়ের কাছে বসে আছেন শাখা ছাত্রলীগের দুই নেতা। দুজনই পা টিপছেন রুবেলের। এমন একটি ছবি সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এ নিয়ে চলছে সমালোচনা।

মঙ্গলবার (২১ মার্চ) সভাপতি রেজাউল হক রুবেল বলেন, মানবসেবা কখনও অপরাধ হতে পারে না। দুই-আড়াই বছর আগে আমি অসুস্থ হলে তখন ছোট ভাইয়েরা আমার সেবাযত্ন করেছিল। শত্রুপক্ষ ছবিটি নেগেটিভভাবে উপস্থাপন করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে।’

ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, রুবেলের পা টিপে দেওয়া একজন শাখা ছাত্রলীগের উপকর্মসূচি ও পরিকল্পনাবিষয়ক সম্পাদক শামীম আজাদ। অন্যজন উপক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক শফিউল ইসলাম। ছবিটি যেখান থেকে তোলা হয়েছে এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহ আমানত হলের তৃতীয় তলায় ৩১১ নম্বর কক্ষ। এটি তিনজনের আসনের। তবে তা একাই দখল করে রেখেছেন রুবেল।

শাহ আমানত হলের সিঁড়ি ধরে তৃতীয় তলায় উঠতেই যে কারও চোখে পড়বে ৩১১ নম্বর কক্ষটি। দরজায় বড় করে লেখা আছে, ‘রেজাউল হক রুবেল, সভাপতি, চবি ছাত্রলীগ’।

বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যানুযায়ী, রেজাউল হক রুবেল পরিসংখ্যান বিভাগের ২০০৬-২০০৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। ২০১৯ সালের ১৪ জুলাই চবি ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পান তিনি।

জুনিয়রদের দিয়ে পা টেপানোর বিষয়ে জানতে চাইলে পাল্টা প্রশ্ন রেখে রুবেল বলেন, ‘আমি কি এলিয়েন? আমি অসুস্থ হতে পারি না? আমি আগে মানুষ তারপর ছাত্রলীগের সভাপতি। আপনি অসুস্থ হলে কে আপনার সেবাযত্ন করে?’

জুনিয়রদেরও সেবা করেন দাবি করে তিনি বলেন, ‘তারা অসুস্থ হলে আমিও তো তাদের পা টিপে দিই। অসুস্থ মানুষের সেবা করি। আপনারা তো সেগুলো নিয়ে নিউজ করেন না! ছাত্রলীগের সভাপতি কি অসুস্থ হতে পারে না? অসুস্থতার কারণে তারা আমার সেবা করেছে। এটা তো নরমাল বিষয়। এটা কি অপরাধ?’

বিষয়টি নিয়ে জানতে শাখা ছাত্রলীগের উপকর্মসূচি ও পরিকল্পনাবিষয়ক সম্পাদক শামীম আজাদ ও উপক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক শফিউল ইসলামের ফোনে একাধিকবার কল দিলেও তাদের সাড়া পাওয়া যায়নি।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. রাজনীতি
  3. মানবসেবা কখনও অপরাধ হতে পারে না

মানবসেবা কখনও অপরাধ হতে পারে না

চবি প্রতিনিধি: বিছানায় শুয়ে আছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল। শুয়ে শুয়ে ফোন টিপছেন। তার পায়ের কাছে বসে আছেন শাখা ছাত্রলীগের দুই নেতা। দুজনই পা টিপছেন রুবেলের। এমন একটি ছবি সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এ নিয়ে চলছে সমালোচনা।

মঙ্গলবার (২১ মার্চ) সভাপতি রেজাউল হক রুবেল বলেন, মানবসেবা কখনও অপরাধ হতে পারে না। দুই-আড়াই বছর আগে আমি অসুস্থ হলে তখন ছোট ভাইয়েরা আমার সেবাযত্ন করেছিল। শত্রুপক্ষ ছবিটি নেগেটিভভাবে উপস্থাপন করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে।’

ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, রুবেলের পা টিপে দেওয়া একজন শাখা ছাত্রলীগের উপকর্মসূচি ও পরিকল্পনাবিষয়ক সম্পাদক শামীম আজাদ। অন্যজন উপক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক শফিউল ইসলাম। ছবিটি যেখান থেকে তোলা হয়েছে এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহ আমানত হলের তৃতীয় তলায় ৩১১ নম্বর কক্ষ। এটি তিনজনের আসনের। তবে তা একাই দখল করে রেখেছেন রুবেল।

শাহ আমানত হলের সিঁড়ি ধরে তৃতীয় তলায় উঠতেই যে কারও চোখে পড়বে ৩১১ নম্বর কক্ষটি। দরজায় বড় করে লেখা আছে, ‘রেজাউল হক রুবেল, সভাপতি, চবি ছাত্রলীগ’।

বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যানুযায়ী, রেজাউল হক রুবেল পরিসংখ্যান বিভাগের ২০০৬-২০০৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। ২০১৯ সালের ১৪ জুলাই চবি ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পান তিনি।

জুনিয়রদের দিয়ে পা টেপানোর বিষয়ে জানতে চাইলে পাল্টা প্রশ্ন রেখে রুবেল বলেন, ‘আমি কি এলিয়েন? আমি অসুস্থ হতে পারি না? আমি আগে মানুষ তারপর ছাত্রলীগের সভাপতি। আপনি অসুস্থ হলে কে আপনার সেবাযত্ন করে?’

জুনিয়রদেরও সেবা করেন দাবি করে তিনি বলেন, ‘তারা অসুস্থ হলে আমিও তো তাদের পা টিপে দিই। অসুস্থ মানুষের সেবা করি। আপনারা তো সেগুলো নিয়ে নিউজ করেন না! ছাত্রলীগের সভাপতি কি অসুস্থ হতে পারে না? অসুস্থতার কারণে তারা আমার সেবা করেছে। এটা তো নরমাল বিষয়। এটা কি অপরাধ?’

বিষয়টি নিয়ে জানতে শাখা ছাত্রলীগের উপকর্মসূচি ও পরিকল্পনাবিষয়ক সম্পাদক শামীম আজাদ ও উপক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক শফিউল ইসলামের ফোনে একাধিকবার কল দিলেও তাদের সাড়া পাওয়া যায়নি।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন