The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪

বৃদ্ধের পেট থেকে পাওয়া গেল ১৮৭ টি কয়েন!

সম্প্রতি ভারতের কর্নাটকের এক ব্যক্তির পেটে একশোরও বেশি কয়েনের হদিস পেয়ে বিস্মিত হয়ে পড়েন চিকিৎসকরা। ৫৮ বছর বয়সের সেই ব্যক্তির পেটে হঠাৎ করে যন্ত্রণা শুরু হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আল্ট্রাসাউন্ড এবং এক্সরে ব্যবহার করে এন্ডোস্কোপি করার পর চিকিৎসকদের আঁতকে ওঠেন মত অবস্থা ! অপারেশন করে ব্যক্তির পেটে ১৮৭টি কয়েনের খোঁজ পেলেন তাঁরা।

চিকিৎসকরা জানতে পারেন, ওই ব্যক্তি স্কিৎজ়োফ্রেনিয়া নামক এক রোগে আক্রান্ত। আর এই রোগের কারণেই ভুলবশত কয়েনগুলি গিলে ফেলেছিলেন তিনি। স্কিৎজ়োফ্রেনিয়া, নামটির মতোই কঠিন রোগটিও। রোগটিকে অল্প কথায় ব্যাখ্যা করা কঠিন। তবে সহজ করে বলতে গেলে এটি এমন এক রোগ, যাতে আক্রান্ত ব্যক্তি বাস্তব আর কল্পনাকে গুলিয়ে ফেলেন। এক বার এই রোগে আক্রান্ত হলে সাধারণত সারা জীবনই চিকিৎসার প্রয়োজন হয়।

সংবাদমাধ্যমকে চিকিৎসক ঈশ্বর কালাবুর্গী জানান, ‘‘ওই ব্যক্তি একটি মানসিক রোগে ভুগছিলেন। গত দু-তিন মাস ধরে তিনি কয়েন খেতে থাকেন। পেটে অসহ্য যন্ত্রণা ও বমির জন্য তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

অস্ত্রোপচার করে মোট ১৮৭ টি কয়েন বার করা হয় যার ওজন ছিল প্রায় দেড় কেজি। কয়েনগুলির মধ্যে ৫৬ টি পাঁচ টাকার কয়েন, ৫১ টি দু’টাকার কয়েন আর ৮০ টি এক টাকার কয়েন ছিল। অস্ত্রোপচারের পর রোগী সুস্থ আছেন, তাঁকে চিকিৎসকদের নজরদারিতে রাখা হয়েছে।’’ [সূত্র: আনন্দবাজার]

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. আন্তর্জাতিক
  3. বৃদ্ধের পেট থেকে পাওয়া গেল ১৮৭ টি কয়েন!

বৃদ্ধের পেট থেকে পাওয়া গেল ১৮৭ টি কয়েন!

সম্প্রতি ভারতের কর্নাটকের এক ব্যক্তির পেটে একশোরও বেশি কয়েনের হদিস পেয়ে বিস্মিত হয়ে পড়েন চিকিৎসকরা। ৫৮ বছর বয়সের সেই ব্যক্তির পেটে হঠাৎ করে যন্ত্রণা শুরু হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আল্ট্রাসাউন্ড এবং এক্সরে ব্যবহার করে এন্ডোস্কোপি করার পর চিকিৎসকদের আঁতকে ওঠেন মত অবস্থা ! অপারেশন করে ব্যক্তির পেটে ১৮৭টি কয়েনের খোঁজ পেলেন তাঁরা।

চিকিৎসকরা জানতে পারেন, ওই ব্যক্তি স্কিৎজ়োফ্রেনিয়া নামক এক রোগে আক্রান্ত। আর এই রোগের কারণেই ভুলবশত কয়েনগুলি গিলে ফেলেছিলেন তিনি। স্কিৎজ়োফ্রেনিয়া, নামটির মতোই কঠিন রোগটিও। রোগটিকে অল্প কথায় ব্যাখ্যা করা কঠিন। তবে সহজ করে বলতে গেলে এটি এমন এক রোগ, যাতে আক্রান্ত ব্যক্তি বাস্তব আর কল্পনাকে গুলিয়ে ফেলেন। এক বার এই রোগে আক্রান্ত হলে সাধারণত সারা জীবনই চিকিৎসার প্রয়োজন হয়।

সংবাদমাধ্যমকে চিকিৎসক ঈশ্বর কালাবুর্গী জানান, ‘‘ওই ব্যক্তি একটি মানসিক রোগে ভুগছিলেন। গত দু-তিন মাস ধরে তিনি কয়েন খেতে থাকেন। পেটে অসহ্য যন্ত্রণা ও বমির জন্য তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

অস্ত্রোপচার করে মোট ১৮৭ টি কয়েন বার করা হয় যার ওজন ছিল প্রায় দেড় কেজি। কয়েনগুলির মধ্যে ৫৬ টি পাঁচ টাকার কয়েন, ৫১ টি দু’টাকার কয়েন আর ৮০ টি এক টাকার কয়েন ছিল। অস্ত্রোপচারের পর রোগী সুস্থ আছেন, তাঁকে চিকিৎসকদের নজরদারিতে রাখা হয়েছে।’’ [সূত্র: আনন্দবাজার]

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন