The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
মঙ্গলবার, ২৫শে জুন, ২০২৪

বুয়েটে ভর্তির আবেদন শুরু ১ মার্চ, এবারও পরীক্ষা হচ্ছে ২ ধাপে

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক শ্রেণির ভর্তি আবেদন শুরু হবে ১ মার্চ থেকে। আগামী ১ মার্চ সকাল ১০টা থেকে অনলাইনের মাধ্যমে বুয়েটের স্নাতক ভর্তির প্রাথমিক আবেদন শুরু হবে। চলবে ১২ মার্চ বিকেল ৩টা পর্যন্ত। মোবাইল ফোন বা অনলাইন ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে আবেদন ফি জমা দেওয়া যাবে ১৩ মার্চ বিকেল ৩টা পর্যন্ত।

এবারও পরীক্ষা হবে ২ ধাপে। আবেদনকারীদের মধ্যে থেকে প্রাথমিক বাছাইয়ের জন্য আগামী ২০ মে দুই শিফটে প্রাক-নির্বাচনী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীরা ১০ জুন চূড়ান্ত ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবেন। বুয়েটের ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক ভর্তি পরীক্ষার প্রসপেক্টাস থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

ভর্তি পরীক্ষার তারিখঃ ভর্তি পরীক্ষার প্রসপেক্টাস অনুসারে প্রাথমিক বাছাইয়ের জন্য প্রাক-নির্বাচনী পরীক্ষা দুই শিফটে নেওয়া হবে আগামী ২০ মে। ‘ক’ ও ‘খ’ গ্রুপের জন্য মোট ১০০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। সময় এক ঘণ্টা। প্রথম শিফটের পরীক্ষা সকাল ১০টায় ও দ্বিতীয় শিফটের পরীক্ষা বিকেল ৩টায় শুরু হবে। ২৭ মে মূল ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য যোগ্য আবেদনকারীদের নাম প্রকাশ করবে বুয়েট।

১০ জুন মূল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। মূল ভর্তি পরীক্ষার মধ্যে থাকবে– সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মডিউল-এ এর ‘ক’ ও ‘খ’ গ্রুপের জন্য গণিত, পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন পরীক্ষা। দুপুর ২টা থেকে বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত মডিউল-বি এর ‘খ’ গ্রুপের মুক্তহস্ত অংকন এবং দৃষ্টিগত ও স্থানিক ধীশক্তি পরীক্ষা। এরপর আগামী ২৬ জুন নির্বাচিত ও অপেক্ষমান প্রার্থীদের নামের তালিকা প্রকাশ করা হবে।

আবেদনের পদ্ধতি ও ফি:
আবেদন করার নিয়ম ও ভর্তির নির্দেশিকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। ‘ক’ গ্রুপে (প্রকৌশল ও বিভাগগুলো এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ) আবেদনের জন্য প্রাক-নির্বাচনী ও মূল ভর্তি পরীক্ষা বাবদ ১ হাজার টাকা এবং ‘খ’ গ্রুপের (প্রকৌশল ও বিভাগগুলো, নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ এবং স্থাপত্য বিভাগে) জন্য ১ হাজার ২০০ টাকা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে পরিশোধ করে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।

আসন সংখ্যাঃ ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম ও অন্যান্য এলাকার ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীভুক্ত প্রার্থীদের প্রকৌশল বিভাগ এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জন্য মোট ৩টি এবং স্থাপত্য বিভাগে ১টি সংরক্ষিত আসনসহ মোট ১ হাজার ৩০৯টি আসনের জন্য এই ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.