বিপাকে ভর্তিচ্ছুরা একইদিনে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ ও বাংলাদেশ মেরিন একাডেমির ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

একইদিনে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ ও বাংলাদেশ মেরিন একাডেমির ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। একইদিনে পাশাপাশি সময়ে দুটি ভর্তি পরীক্ষা হওয়ায় চরম বিপাকে পড়েছেন শিক্ষার্থীরা।

জানা গেছে, আগামী শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। সিলেটের বিভিন্ন কেন্দ্রে এই ভর্তি পরীক্ষা হবে। সকাল ১০টায় সিলেটে এই পরীক্ষা হবে। একইদিন বাংলাদেশ মেরিন একাডেমির ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। রাজধানীতে কেন্দ্রীয়ভাবে বেলা ১১টা থেকে পরীক্ষা শুরু হবে। একইদিনে দুটি ভর্তি পরীক্ষা হওয়ায় অনেক শিক্ষার্থীকে যেকোন একটি ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অপ্রতুল আসন সংখ্যা এবং তুমুল প্রতিযোগিতার কারণে সাধ্য অনুযায়ী তারা একাধিক প্রতিষ্ঠানে ভর্তির আবেদন করে থাকেন। কিন্তু একই সাথে দুটি প্রতিষ্ঠানের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ায় তাদের যেকোন একটিতে অংশগ্রহণ করতে হবে। এতে আবেদনকৃত অনেকেই একটি প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন না।

তারা বলছেন, একটি ভর্তি পরীক্ষা একজন শিক্ষার্থীর কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এমন গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষার তারিখ মিলে যাওয়া কোনোভাবেই কাম্য নয়। শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করা উচিত।

ওমর ফারুক তানভীর নামে এক ভর্তিচ্ছু জানান, আমি সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ এবং মেরিন একাডেমি দুই জায়গাতেই আবেদন করেছি। আমার মেরিন একাডেমির সিট পড়েছে ঢাকায়। এখন সিলেটে ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে আমি কীভাবে ঢাকায় গিয়ে পরীক্ষা দেব। কর্তৃপক্ষের উচিত পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করা।

সায়মা নামে আরেক শিক্ষার্থী জানান, বাংলাদেশ মেরিন একাডেমির ভর্তি পরীক্ষা সকাল ১০টায়। আর শাবিপ্রবি অধিভুক্ত সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ভর্তি পরীক্ষা একইদিন বেলা ১১টায়। আমি কীভাবে দুইজায় ভর্তি পরীক্ষা দেব? ভর্তি পরীক্ষা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। চান্স পাবো কিনা জানিনা। তবে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগই কেড়ে নেওয়া হচ্ছে। এটি অমানবিক। যেকোন একটি প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করার দাবি জানাচ্ছি।

জানতে চাইলে শাবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফরিদ উদ্দিন বলেন, শাবিপ্রবি অধিভুক্ত ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ভর্তি পরীক্ষা ১৮ সেপ্টেম্বর ছিল। পরে সেটি পরিবর্তন করে ২৪ সেপ্টেম্বর করা হয়েছে। আমরা ২৪ সেপ্টেম্বর পরীক্ষা আয়োজনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। এখন আর পরীক্ষা পেছানোর সুযোগ নেই।