The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বৃহস্পতিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২৪

বাউয়েট ক্যাম্পাসে আন্তঃবিভাগ বিতর্ক প্রতিযোগিতা

বাউয়েট প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ আর্মি ইউনিভার্সিটি অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি (বাউয়েট) ক্যাম্পাসে বাউয়েট ডিবেটিং সোসাইটি এর উদ্যোগে আন্তঃবিভাগ বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার কর্ণেল মোহাম্মাদ হামিদুল হক, পিএসসি (অব.)।

“বিতর্ক হোক সত্যের, বিতর্ক হোক যুক্তির” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে নেক্সাস ভবনের স্কাইলাইট হলে এই বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিতর্ক প্রতিযোগিতার বিষয় ছিল “সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপব্যবহারই তরুণ সমাজ অবক্ষয়ের মূল কারণ” এর পক্ষে অবস্থান করে সিএসই বিভাগ এবং বিপক্ষে অবস্থান করে আইন ও বিচার বিভাগ। যুক্তি-তর্ক উপস্থাপনের মাধ্যমে বিপক্ষ দল আইন ও বিচার বিভাগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় গৌরব অর্জন করে। বিতর্কে শ্রেষ্ঠ বক্তা নির্বাচিত হন বিপক্ষ দলের দলনেতা এবং আইন ও বিচার বিভাগের শিক্ষার্থী মেহেরিন জামান মৌ।

প্রধান অতিথি মাননীয় ট্রেজারার তার বক্তব্যের শুরুতেই বিজয়ী দল আইন ও বিচার বিভাগকে অভিনন্দন জানান। একইসাথে এরকম প্রাণবন্ত ও শিক্ষামূলক বিতর্ক প্রতিযোগিতা আয়োজন করার জন্য বাউয়েট ডিবেটিং সোসাইটির সকল সদস্যকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং ভবিষ্যতে আবারও এমন সময় উপযোগী আয়োজন করার জন্য বাউয়েট ডিবেটিং সোসাইটিকে নির্দেশনা প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন বাউয়েট ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি এবং আইন ও বিচার বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. মো. শহীদুল ইসলাম। বিতর্ক প্রতিযোগিতার মডারেটর ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটি এর সাবেক সভাপতি ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় আইন বিভাগের সম্মানিত চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. এম. হাসিবুল আলম প্রধান। বিতর্ক প্রতিযোগিতার বিচারক হিসেবে দায়িত্বপালন করেন, ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোঃ আশরাফুল ইসলাম, ডেপুটি ডাইরেক্টর মোঃ সেলিম রেজা, সহকারী পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ইমদাদ হোসেন খান, গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ মাসুদার রহমান, পদার্থবিদ্যা বিভাগের প্রভাষক মোঃ বরকত উল্লাহ এবং বাংলার প্রভাষক আরিফা সুলতানা। মডারেটর কর্তৃক ফলাফল ঘোষণার পর বাউয়েট এর বিতর্কপ্রেমী শিক্ষার্থীরা উল্লাসে ফেটে পড়ে।

শেষ পর্যায়ে প্রধান অতিথি বিজয়ী চ্যাম্পিয়ন দল ও রানার্স আপ দলকে মেডেল ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয় এবং বির্তকে অংশগ্রহণকারী এবং বিচারকমন্ডলীকে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.