The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
সোমবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

ফোর্বসের এশিয়ার সেরাদের তালিকায় সাত বাংলাদেশি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত সাময়িকী ফোর্বস এশিয়ায় ‘ফোর্বস ৩০ আন্ডার ৩০’ ক্যাটাগরিতে উদীয়মান তরুণ-তরুণীদের তালিকা প্রণয়ন ও প্রকাশ করে আসছে ২০১১ সাল থেকে। বরাবরের মতো এবারও ‘ফোর্বস ৩০ আন্ডার ৩০’ ক্যাটাগরিতে জায়গা করে নিয়েছেন সাত বাংলাদেশি তরুণ-তরুণী। তথ্য মতে ২০১৬ সাল থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত মোট ২৫ জন বাংলাদেশি বিভিন্ন খাতে অবদান রাখার স্বীকৃতি স্বরুপ এই তালিকায় স্থান করে নিয়েছে।

এ বছর কনজিউমার টেকনোলজি, মিডিয়া, মার্কেটিং অ্যান্ড অ্যাডভারটাইজিং এবং সোশ্যাল ইমপেক্ট এই তিন ক্যাটাগরিতে সাত বাংলাদেশি সেরা ৩০ এ নাম উঠিয়েছেন।

আনোয়ার সায়েফ এবং সারাবান তহুরাঃ তাদের প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানের নাম টার্টেল ভেনচার স্টুডিও। তাদের এ প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠানগুলোকে আর্থিক সহায়তা, পরামর্শ, বৈশ্বিক নেটওয়ার্কের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন এবং কৌশলগত সহায়তা প্রদান করে থাকে।

আজিজ আরমানঃ আজিজ আরমানের প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানের নাম যাত্রী। তিনি তার প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশের গণপরিবহণ খাতে অবদান রেখেছেন। গত বছর তার প্রতিষ্ঠানের উদ্ভাবিত প্রযুক্তি ব্যবহার করে ঢাকা বাস মালিক সমিতি ৫ হাজার ৬৫০টি বাসে ই-টিকেটিং সেবা চালু করে।

জাহ্নবী রহমানঃ তিনি রিলাক্সি নামের মানসিক স্বাস্থ্য সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানে সহ-প্রতিষ্ঠাতা। ডিজিটাল মাধ্যম ব্যবহার করে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের কাছে মানসিক চিকিৎসা পৌঁছানের ক্ষেত্রে সংস্থাটি অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে।

রুবাইয়াত রহমান এবং তাসফিয়া তাসবিনঃ তাদের প্রতিষ্ঠানের নাম মার্কোপোলো.এআই। মার্কোপোলো একটি স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠান যেটি ছোট ও মাঝারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোকে ডিজিটাল সেবা দিয়ে থাকে।

দীপ্ত সাহাঃ তিনি অ্যাগ্রোশিফট টেকনোলজিস নামের একটি প্রতিষ্ঠানের স্হ-প্রতিষ্ঠাতা। অ্যাগ্রোশিফট টেকনোলজিস কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি গ্রাহকের কাছে কৃষিপণ্য পৌঁছে দেওয়ার কাজ করে থাকে। এরমাধ্যমে কৃষক তার উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য পাওনা পেয়ে থাকেন।

সূত্র: ফোর্বস

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. উদ্যোক্তা ও সফলতার গল্প
  3. ফোর্বসের এশিয়ার সেরাদের তালিকায় সাত বাংলাদেশি

ফোর্বসের এশিয়ার সেরাদের তালিকায় সাত বাংলাদেশি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত সাময়িকী ফোর্বস এশিয়ায় ‘ফোর্বস ৩০ আন্ডার ৩০’ ক্যাটাগরিতে উদীয়মান তরুণ-তরুণীদের তালিকা প্রণয়ন ও প্রকাশ করে আসছে ২০১১ সাল থেকে। বরাবরের মতো এবারও ‘ফোর্বস ৩০ আন্ডার ৩০’ ক্যাটাগরিতে জায়গা করে নিয়েছেন সাত বাংলাদেশি তরুণ-তরুণী। তথ্য মতে ২০১৬ সাল থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত মোট ২৫ জন বাংলাদেশি বিভিন্ন খাতে অবদান রাখার স্বীকৃতি স্বরুপ এই তালিকায় স্থান করে নিয়েছে।

এ বছর কনজিউমার টেকনোলজি, মিডিয়া, মার্কেটিং অ্যান্ড অ্যাডভারটাইজিং এবং সোশ্যাল ইমপেক্ট এই তিন ক্যাটাগরিতে সাত বাংলাদেশি সেরা ৩০ এ নাম উঠিয়েছেন।

আনোয়ার সায়েফ এবং সারাবান তহুরাঃ তাদের প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানের নাম টার্টেল ভেনচার স্টুডিও। তাদের এ প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠানগুলোকে আর্থিক সহায়তা, পরামর্শ, বৈশ্বিক নেটওয়ার্কের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন এবং কৌশলগত সহায়তা প্রদান করে থাকে।

আজিজ আরমানঃ আজিজ আরমানের প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানের নাম যাত্রী। তিনি তার প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশের গণপরিবহণ খাতে অবদান রেখেছেন। গত বছর তার প্রতিষ্ঠানের উদ্ভাবিত প্রযুক্তি ব্যবহার করে ঢাকা বাস মালিক সমিতি ৫ হাজার ৬৫০টি বাসে ই-টিকেটিং সেবা চালু করে।

জাহ্নবী রহমানঃ তিনি রিলাক্সি নামের মানসিক স্বাস্থ্য সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানে সহ-প্রতিষ্ঠাতা। ডিজিটাল মাধ্যম ব্যবহার করে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের কাছে মানসিক চিকিৎসা পৌঁছানের ক্ষেত্রে সংস্থাটি অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে।

রুবাইয়াত রহমান এবং তাসফিয়া তাসবিনঃ তাদের প্রতিষ্ঠানের নাম মার্কোপোলো.এআই। মার্কোপোলো একটি স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠান যেটি ছোট ও মাঝারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোকে ডিজিটাল সেবা দিয়ে থাকে।

দীপ্ত সাহাঃ তিনি অ্যাগ্রোশিফট টেকনোলজিস নামের একটি প্রতিষ্ঠানের স্হ-প্রতিষ্ঠাতা। অ্যাগ্রোশিফট টেকনোলজিস কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি গ্রাহকের কাছে কৃষিপণ্য পৌঁছে দেওয়ার কাজ করে থাকে। এরমাধ্যমে কৃষক তার উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য পাওনা পেয়ে থাকেন।

সূত্র: ফোর্বস

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন