ফেব্রুয়ারিতে ভয়াবহ রূপ নেবে করোনাভাইরাস: ড. বিজন

আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে করোনা দেশে ভয়াবহ রুপ নিতে পারে বলে আশঙ্কা করেছেন বিশিষ্ট অণুজীব বিজ্ঞানী ও সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. বিজন কুমার শীল।

তিনি বলেন, করোনার বর্তমান অবস্থা প্রতিরোধে আমি লকডাউনের পক্ষপাতী নই। সংক্রমণ এড়াতে স্বাস্থ্য সচেতনতাকে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের আইকিউএসি সম্মেলন কক্ষে কোভিড-১৯ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। উপাচার্যের নির্দেশক্রমে এবং সেন্টার ফর মাল্টিডিসিপ্লিনারী রিসার্চ বিভাগের উদ্যােগে এ আয়োজন সম্পন্ন হয়। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (চলতি দায়িত্ব) অধ্যাপক ডা. মো. দেলওয়ার হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী। রেজিস্ট্রার এস. তাসাদ্দেক আহমেদ প্রমুখ।

উপাচার্যের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. সিরাজুল ইসলাম, রেজিস্ট্রার এস. তাসাদ্দেক আহমেদ, বিভিন্ন অনুষদীয় ডিনগণ এছাড়া অনলাইন প্লাটফর্ম জুম আ্যপসে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকমন্ডলী উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক ড. বিজন কুমার শীল একজন বাংলাদেশী অণুজীববিজ্ঞানী। তিনি সার্সের কুইক টেস্টের আবিষ্কারক। গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এবং গণস্বাস্থ্য ফার্মাসিউটিক্যালের প্রধান বিজ্ঞানী। দীর্ঘদিন ধরে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে করোনা ভাইরাস নিয়ে নিয়মিত সেমিনার ও সচেতনামূলক কার্যক্রম করে আসছেন। করোনা ভাইরাস দ্রুত সনাক্তকরণে তার উদ্ভাবিত র‌্যাপিড ডট ব্লট কিট সাড়া জাগালেও বাংলাদেশ সরকারের অনুমতি না মেলায় বাজারজাত করণ সম্ভব হয়নি।