The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
সোমবার, ২৪শে জুন, ২০২৪

ফিলিস্তিনের পক্ষে জাবিতে গণসমাবেশ

জাবি প্রতিনিধিঃ ফিলিস্তিনে দখলদার ইসরায়েলের আগ্রাসনের প্রতিবাদ এবং স্বাধীনতাকামী ফিলিস্তিনিদের প্রতি সংহতি জানিয়ে চার দফা দাবিতে গণসমাবেশ ও র‌্যালি করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার (২১ মে) বিকাল তিনটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানবিকী অনুষদ ভবনের সামনে এ সমাবেশ করেন তারা। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের তিন শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেন।

সমাবেশে ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের আগ্রাসনের প্রতিবাদে গান পরিবেশন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের বিভাগের শিক্ষার্থী মাজহারুল ইসলাম এবং কবিতা আবৃত্তি করেন প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষার্থী শাহাদাত হোসেন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে ইসরায়েলের পতাকা দাহ করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এরপর সেখান থেকে একটি র‌্যালি বের করেন তারা। র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে ফের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়।

তাদের দাবিগুলো হলো- অবিলম্বে গাজায় গণহত্যা বন্ধ করা, ফিলিস্তিনকে স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি ও ভূখণ্ড ফিরিয়ে দেওয়া, গণহত্যার দায়ে জড়িত থাকার অপরাধে জায়নবাদী ইসরাইলের বিচার ও শাস্তি নিশ্চিত করা এবং নিরাপত্তা পরিষদে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার পক্ষে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে জনমত তৈরি করা।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ফিলিস্তিনের মুসলমানদের ওপর নির্মম নির্যাতন ও হত্যায় দায়সারা বক্তব্য দেওয়া ছাড়া জাতিসংঘ কিছুই করছে না। যুগ যুগ ধরে চলা ইসরায়েলি দখলদারিত্ব, গণহত্যা ও বর্বরতায় নির্লজ্জ সমর্থন দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলো প্রমাণ করেছে, তাদের মুখে মানবাধিকার, গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার কথা ভণ্ডামি ছাড়া কিছুই নয়। ফিলিস্তিনি ভূমি থেকে ইসরায়েলের দখলদারিত্বের অবসানই মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠার একমাত্র পথ।

সমাবেশে বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী আহসান লাবিবের সঞ্চালনায় পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মো. জালাল উদ্দিন বলেন, ‘ফিলিস্তিনের সমস্যা ৭৭ বছর আগে গোড়াপত্তন হয়েছে। জোরপূর্বক ফিলিস্তিন দখল করে ইসরায়েলি বাহিনী ফিলিস্তিনের মানুষের ওপর গণহত্যা চালাচ্ছে। জাতিসংঘকে ইসরায়েলের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে হবে। ইসরায়েলকে নিপীড়ন বন্ধে বাধ্য করা ও ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার ব্যবস্থা নিতে হবে। দেশীয় পর্যায়েও ইসরায়েলে বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আছে।’

এ সময় সংহতি জানিয়ে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ কামরুল আহসান, ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক এ টি এম আতিকুর রহমান, অধ্যাপক খো. লুৎফুল এলাহী, অধ্যাপক মোহাম্মদ গোলাম রব্বানী, ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী ইয়াহিয়া জিসান, চারুকলা বিভাগের শিক্ষার্থী খালেদ মাহমুদ তন্ময়, নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষার্থী সোহাগী সামিয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বিন ইয়ামিন মোল্লা প্রমুখ।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.