প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ দ্বিতীয় ধাপে পরীক্ষা শুক্রবার, পরীক্ষার্থী ৪ লাখ ৮৪ হাজার

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদে সারা দেশে ৪৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা তিন ধাপে নেওয়া হচ্ছে। এরই মধ্যে প্রথম ধাপের লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। দ্বিতীয় ধাপের লিখিত পরীক্ষা আগামী শুক্রবার ৩০ জেলায় অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য গতকাল রোববার থেকে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারছেন পরীক্ষার্থীরা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, দ্বিতীয় ধাপে ৩০ জেলায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে ৮ জেলার সব ও ২২ জেলার কিছু উপজেলায় পরীক্ষা নেওয়া হবে।

দ্বিতীয় ধাপে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪ লাখ ৮৪ হাজার ৭২৫ ও কেন্দ্রের সংখ্যা ৬৫৩। দ্বিতীয় ধাপের যেসব জেলার সব উপজেলায় পরীক্ষা হবে, সেগুলো হলো রাজশাহী, খুলনা, ফরিদপুর, চাঁদপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, সিলেট, রংপুর ও বরিশাল।

যেসব জেলার কিছু উপজেলায় পরীক্ষা হবে, সেগুলো হলো নওগাঁ (সদর, নিয়ামতপুর, পত্নীতলা, রানীনগর, পোরশা, সাপাহার), নাটোর (বাগাতিপাড়া, বড়াইগ্রাম, গুরুদাসপুর, লালপুর), সিরাজগঞ্জ (রায়গঞ্জ, শাহজাদপুর, সদর, তাড়াশ), কুষ্টিয়া (খোকসা, সদর, মিরপুর), ঝিনাইদহ (হরিণাকুণ্ডু, সদর, কালীগঞ্জ), যশোর (অভয়নগর, চৌগাছা, সদর, বাঘেরপাড়া), সাতক্ষীরা (সদর, দেবহাটা, কলারোয়া, কালীগঞ্জ), বাগেরহাট (মোল্লারহাট, মোংলা, মোড়লগঞ্জ, কচুয়া, শরণখোলা), জামালপুর (সদর, মাদারগঞ্জ, মেলান্দহ), ময়মনসিংহ (মুক্তাগাছা, সদর, নান্দাইল, ফুলপুর, তারাকান্দা, ত্রিশাল), নেত্রকোনা (খালিয়াজুরি, মদন, মোহনগঞ্জ, সদর, পূর্বধলা), কিশোরগঞ্জ (সদর, কুলিয়াচর, মিঠামইন, নিকলী, পাকুন্দিয়া, তাড়াইল), টাঙ্গাইল (কালিহাতী, মধুপুর, মির্জাপুর, নাগরপুর, সফিপুর, বাসাইল), রাজবাড়ি (কালুখালী, গোয়ালন্দ, পাংশা), কুমিল্লা (দেবিদ্বার, হোমনা, লাকসাম, লালমাই, সদর দক্ষিণ, মনোহরগঞ্জ, মুরাদনগর, নাগলকোট, তিতাস), নোয়াখালী (বেগমগঞ্জ, চাটখিল, কোম্পানিগঞ্জ, হাতিয়া), পিরোজপুর (নাজিরপুর, নেছারাবাদ, সদর), পটুয়াখালী (কলাপাড়া, মির্জাগঞ্জ, সদর, রাঙ্গাবালি, দুমকি), সুনামগঞ্জ (দোয়ারাবাজার, জগন্নাথপুর, জামালগঞ্জ, শাল্লা, সদর, তাহিরপুর), হবিগঞ্জ (সদর, লাখাই, মাধবপুর, নবীগঞ্জ, শায়েস্তাগঞ্জ), কুড়িগ্রাম (ফুলবাড়ী, রাজারহাট, রাজীবপুর, রৌমারী, উলিপুর) ও গাইবান্ধা (সাদুল্যাপুর, ফুলছড়ি, সাঘাটা, সুন্দরগঞ্জ)।

যেভাবে প্রবেশপত্র ডাউনলোড
দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষার্থীদের এই ওয়েবসাইটে ইউজার নেম ও পাসওয়ার্ড দিয়ে অথবা এসএসসির রোল, বোর্ড ও পাসের সন দিয়ে লগইন করে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে হবে। প্রবেশপত্র ডাউনলোড করার পর অবশ্যই প্রবেশপত্রের রঙিন প্রিন্ট করতে হবে। নিজের জাতীয় পরিচয়পত্র ও প্রবেশপত্রের রঙিন কপি পরীক্ষার হলে নিয়ে যেতে হবে।
ওএমআর শিট পূরণের নির্দেশাবলি ও পরীক্ষাসংক্রান্ত অন্যান্য তথ্য প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে ও প্রবেশপত্রে দেওয়া হয়েছে। প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে কোনো সমস্যা হলে অফিস চলাকালে ০১৭৬৮-৬৮২২৪০, ০১৭৮৫-২৭৮২০৫, ০১৭১০-৮৮২৯৫৬ ও ০১৭০৬-৫০৪১৭৯ নম্বরে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে।

৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন ৪০ হাজার ৮৬২ জন। উত্তীর্ণ এই প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। মৌখিক পরীক্ষার স্থান, তারিখ ও সময় পরবর্তীকালে জানানো হবে। প্রথম ধাপে ২২ জেলায় লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত। তৃতীয় ধাপের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩ জুন।
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম নিয়োগ বিধি অনুসরণ করে স্বচ্ছতা ও নিরপেক্ষতার সঙ্গে করা হয়। প্রার্থীদের রোল নম্বর, আসন বিন্যাস, প্রশ্নপত্র পাঠানো ও মুদ্রণ, উত্তরপত্র মূল্যায়ন, ফলাফল প্রস্তুতসহ সব কাজ সফটওয়ারের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে করা হয়। এ ছাড়া জেলা প্রসাশন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তায় পরীক্ষাকেন্দ্রের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে এবং গোয়েন্দা তৎপরতা জোরদার করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে কোনো ধরনের অবৈধ হস্তক্ষেপের সুযোগ নেই। এমতাবস্থায় দালাল বা প্রতারক চক্রের প্রলোভনে প্রলুব্ধ হয়ে কোনো প্রকার অর্থ লেনদেন না করার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ করা হলো।

তিন ধাপে পরীক্ষা নেওয়া শেষে উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের আগামী জুলাইয়ের মধ্যে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। প্রাথমিকের ইতিহাসে এটিই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। ২০২০ সালের ২৫ অক্টোবর অনলাইনে আবেদন শুরু হয়। আবেদন করেছেন ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ প্রার্থী। সে হিসাবে ১টি পদের জন্য প্রতিযোগিতা হচ্ছে ২৯ প্রার্থীর মধ্যে।