The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪

প্রক্টর ও সহপাঠীকে দায়ী করে আত্মহত্যা করলেন জবি শিক্ষার্থী

সাকিবুল ইসলাম, জবি প্রতিনিধি: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) আইন বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ফাইরুজ অবন্তিকা গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

আত্মহত্যা চেষ্টার পূর্বে ফেসবুকে দেওয়া দীর্ঘ এক পোস্টে তিনি এ ঘটনার জন্য আম্মান সিদ্দিকী নামে তার এক সহপাঠীকে দায়ী করেছেন। একইসঙ্গে সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামকেও এ ঘটনার জন্য দায়ী করেন তিনি।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) রাত ১০টার দিকে কুমিল্লা সদরের নিজ বাসায় গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা চেষ্টা করেন ফাইরুজ অবন্তিকা। পরে তাকে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান, তিনি মারা গেছেন।

এ বিষয়ে ফেসবুক পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘আমি যদি কখনো সুইসাইড করে মারা যাই, তবে আমার মৃত্যুর জন্য একমাত্র দায়ী থাকবে আমার ক্লাসমেট আম্মান সিদ্দিকী আর তার সহকারী হিসেবে তাকে সাপোর্টকারী জগন্নাথের সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, নতুন প্রক্টর হিসেবে জয়েন করার পর এই বিষয়ে আমি মোটেও অবগত ছিলাম না। আমার খুব কষ্ট লাগছে আমি আসার পর যদি এই ভিক্টম শিক্ষার্থী আমার কাছে আসতো আমি নিশ্চিয় আমার জায়গা থেকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতাম। প্রয়োজনে ভিসি মহোদয়ের সাথে কথা বলতাম।

তিনি আরও বলেন, ভিসি মহোদয় বিষয়টা জানার সাথে সাথে আমার সাথে যোগাযোগ করেছে এবং প্রাথমিক ভাবে তিনি যেহেতু আমাদের সহকারী প্রক্টরের নাম এসেছে তাকে অলরেডি প্রক্টরিয়াল টিম থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

আর অবশ্যই একটা উচ্চ ক্ষমতা সম্পূর্ণ তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। তাদের সুপারিশ অনুযায়ী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।
আমরা পরিবারের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টা নিশ্চিত করেছি। আমাদের সহকারী প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা ভিসি ম্যামের নির্দেশে ভিক্টিমের বাসার দিকে অলরেডি রওনা দিয়েছে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.