The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪

নিয়োগ পরীক্ষার আবেদন ফি কমাল মতিঝিল আইডিয়াল

রাজধানীর আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মতিঝিল কলেজ ও স্কুল শাখায় শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগের ক্ষেত্রে সব পদেই আবেদন ফি কমিয়েছে। ১৪ ধরনের পদে নিয়োগের জন্য ৪ অক্টোবর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল প্রতিষ্ঠানটি। এসব পদের জন্য সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা আবেদন ফি চাওয়া হয়েছিল বলে অভিযোগ করেছিলেন চাকরিপ্রার্থীরা।

‘মতিঝিল আইডিয়ালে এক পদেই আবেদন ফি ৫ হাজার’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। চাকরিপ্রার্থীরা অভিযোগ করেছিলেন, অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের তুলনায় এই প্রতিষ্ঠানে চাকরিতে আবেদন ফি বেশি।

আজ বুধবার সব পদে আবেদন ফি কমিয়ে পুনরায় নির্ধারণ করে একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। কোনো পদে আবেদন ফি ১ হাজার ৫০০ টাকা আবার কোনো পদে ৩০০ টাকা ফি কমানো হয়েছে। কোনো আবেদনকারী যদি আগের নির্ধারিত ফি অনুসারে ফি জমা দিয়ে থাকেন, তবে তাঁদের টাকা ফেরত দেওয়া হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে আবেদন ফি ৫ হাজার টাকা থেকে কমিয়ে ৩ হাজার ৫০০ টাকা করা হয়েছে। ৯ম গ্রেডের প্রভাষক ও সহকারী প্রোগ্রামার পদে আবেদন ফি তিন হাজার টাকা থেকে কমিয়ে দুই হাজার টাকা করা হয়েছে। এ ছাড়া ১০ম গ্রেডের প্রদর্শক পদে আবেদন ফি ২ হাজার টাকা থেকে কমিয়ে ১ হাজার ৫০০ টাকা, ১১তম গ্রেডের বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যমের বিভিন্ন বিষয়ের সহকারী শিক্ষক ও নার্স পদে আবেদন ফি ১ হাজার ৫০০ টাকা থেকে কমিয়ে ১ হাজার টাকা করা হয়েছে।

১৬তম গ্রেডের অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে ১ হাজার ২০০ টাকা থেকে কমিয়ে ৮০০ টাকা করা হয়েছে এবং ১৮, ১৯ ও ২০তম গ্রেডের ল্যাব সহকারী, প্লাম্বার ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী পদে আবেদন ফি ১ হাজার টাকা থেকে কমিয়ে ৭০০ টাকা করা হয়েছে।

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে আবেদনের ফি বাবদ নির্ধারিত অর্থ গ্রহণের যৌক্তিকতা জানিয়ে ব্যাখ্যা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ কার্যক্রমের জন্য কমপক্ষে দুটি জাতীয় পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে হয়, এতে প্রতিষ্ঠানের খরচ হয়। এ ছাড়া নিয়োগ প্রক্রিয়া সুষ্ঠু ও স্বচ্ছতার সঙ্গে করার জন্য বিভিন্ন কমিটি বা উপকমিটি করতে হয়। সেসব কমিটিতে মাউশির প্রতিনিধি ও বিষয়ভিত্তিক বিশেষজ্ঞ এবং উচ্চ পদমর্যাদার ব্যক্তিরা থাকেন।

প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, উত্তরপত্র মূল্যায়ন, কোডিং, ডিকোডিং, কক্ষ পরিদর্শক, নিরীক্ষণ, ফলাফল প্রস্তুতসহ সব কার্যক্রমে পর্যাপ্ত জনবল নিয়োজিত থাকেন। যাঁদের প্রত্যেককে যৌক্তিক হারে সম্মানি ও আপ্যায়ন করাতে হয়।

এ ছাড়া পরীক্ষা গ্রহণের দিন শৃঙ্খলা রক্ষায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, বিএনসিসি, স্কাউট, রেডক্রিসেন্ট ও গার্লস গাইডের সদস্যরা থাকেন। পরীক্ষার দিনই প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, পরীক্ষা গ্রহণ, উত্তরপত্র মূল্যায়ন, নিরীক্ষণ, ফলাফল প্রস্তুতসহ যাবতীয় কার্যক্রম সম্পাদন করা হয়, তাই সবার জন্য আপ্যায়নের ব্যবস্থাও রাখতে হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘এর আগে সহকারী প্রধান শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় প্রার্থীর সংখ্যা ছিল কম এবং তাঁদের কাছ থেকে আবেদন ফি বাবদ নেওয়া অর্থের চেয়ে নিয়োগ প্রক্রিয়ার ব্যয় বেশি ছিল, যা প্রতিষ্ঠান থেকে ভর্তুকি দেওয়া হয়েছে। এভাবে ভর্তুকি দিতে হলে তা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায়কৃত টিউশন ফি’র ওপর চাপ পড়ে। তাই বিভিন্ন পদে নিয়োগ প্রত্যাশীদের কাছ থেকে আবেদন ফি আদায়ের পরিমাণ বৃদ্ধির বিষয়ে গভর্নিং বডির মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রদান করা হলে কিছু প্রার্থী আবেদন ফি-এর বিষয়ে তাঁদের মতামত ব্যক্ত করলে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে তা প্রকাশিত হয়। উক্ত প্রকাশিত সংবাদ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। এমতাবস্থায় বিষয়ের গুরুত্ব ও যৌক্তিকতা বিশ্লেষণ করে কর্তৃপক্ষ উক্ত ফি যৌক্তিক হারে কমিয়ে তা পুনরায় নির্ধারণ করেছে।’

মতিঝিল আইডিয়ালে ১৪ ধরনের পদে ৫ অক্টোবর থেকে আবেদন শুরু হয়েছে, আবেদন চলবে ২০ অক্টোবর বিকেল ৫টা পর্যন্ত। নিজ হাতে লিখিত আবেদনপত্রের সঙ্গে প্রতিটি পদের জন্য আবেদন ফি পে-অর্ডার/ ব্যাংক ড্রাফটের মাধ্যমে পাঠাতে বলা হয়েছে, যা অফেরতযোগ্য।

কোনো প্রতিষ্ঠান যেন খেয়ালখুশিমতো আবেদন ফি নিতে না পারে, সে জন্য গত সেপ্টেম্বরে সরকারি সব চাকরির আবেদন ফি পুনরায় নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে অর্থ মন্ত্রণালয়। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ৯ম গ্রেড বা এর বেশি গ্রেডভুক্ত পদে আবেদন ফি ৬০০ টাকা, ১০ম গ্রেডের পদে আবেদন ফি ৫০০ টাকা, ১১ থেকে ১২তম গ্রেডের জন্য ৩০০ টাকা, ১৩ থেকে ১৬তম গ্রেডের জন্য ২০০ টাকা এবং ১৭ থেকে ২০তম গ্রেডের জন্য ১০০ টাকা।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.