The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বুধবার, ১২ই জুন, ২০২৪

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে সহকারী রেজিস্ট্রার মশিউজ্জামানের বিরুদ্ধে আইনি নোটিশ

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিঃ জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে রেজিস্ট্রার বরাবর সহকারী রেজিস্ট্রার মশিউজ্জামান খানকে আইনি নোটিশ দিয়েছে তারই চাচী কামরুন্নাহার রূপা।

রবিবার (২৫ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর ময়মনসিংহ জজ কোর্টের এডভোকেট হাবিবুল্লাহবেলালি মারুফের পক্ষ থেকে এই আইনি নোটিশটি দেওয়া হয়। নোটিশ দেওয়ার ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী প্রশাসনিক কার্যক্রম গ্রহণ না করলে নোটিশদাতা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানান আইনজীবী।

নোটিশে বলা হয়েছে, আমার মোয়াক্কেল নোটিশ দাতার পক্ষে ক্ষমতা প্রাপ্ত হইয়া আপনি নোটিশ গ্রহীতাকে এই মর্মে জানানো যাচ্ছে যে, আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ে মশিউজ্জামান খান, পিতা: জয়নাল আবেদীন, সহকারী রেজিস্টার (শিক্ষা), জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত রয়েছেন। আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ের উক্ত কর্মকর্তা আমার মোয়াক্কেল নোটিশদাতা স্বামীর ভাতিজা বটে। আমার মোয়াক্কেল নোটিশদাতা ও আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ের উক্ত কর্মকর্তার মধ্যে দীর্ঘ দিন যাবৎ জমি জমা নিয়া বিরোধ চলিয়া আসিতেছে। উক্ত বিরোধের জের হিসাবে উক্ত কর্মকর্তা চাকুরীর প্রভাব খাটাইয়া ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীগন দিয়া প্রায় সময় আমার মোয়াক্কেল ও তাহার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদেরকে বসত বাড়ী হইতে তাড়াইয়া দেওয়ার হুমকী প্রদান করিয়া আসিতেছেন।”

এছাড়া নোটিশে বলা হয়েছে, “উক্ত কর্মকর্তা এবং তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়া আমার মোয়াক্কেল নোটিশ দাতাকে বিগত ১৬/০৬/২০১৩ ইং তারিখ বিকাল অনুমান ০৩.৩০ ঘটিকার সময় আমার মোয়াক্কেল নোটিশ দাতার স্বামীকে খুন করার উদ্দেশ্যে শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপ ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাথারী ভাবে মারপিট করার কারণে আমার মোয়াক্কেল নোটিশদাতা আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করেছেন। এই নিয়ে আমার মোয়াক্কেল বাদী হয়ে ত্রিশাল থানায় মামলা দায়ের করেন।”

নোটিশে আরো বলা হয়েছে যে, “আপনার কর্মকর্তা উক্ত ঘটনা ঘটানোর পরও তার সন্ত্রাসী বাহিনী আমার মোয়াক্কেল নোটিশদাতা ও তাহার (সেনা অবঃ) অসুস্থ স্বামী এবং ০৪ (চার) কন্যাকে তাহার চাকুরীর প্রভাব খাটাইয়া খুন জখমের হুমকী ও মামলা উঠিয়ে নেওয়ার জন্য ভয়ভীতি প্রদর্শন করিয়া আসিতেছেন। এমতাবস্থায় আপনাকে অত্র নোটিশ দ্বারা জানানো যাইতেছে যে, অত্র নোটিশ প্রাপ্তির ১৫ (পনেরো) কার্যদিবসের মধ্যে আপনি উক্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী প্রশাসনিক কার্যক্রম গ্রহণ করিবেন এবং অন্যথায় আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ের উক্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নোটিশদাতা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করিতে বাধ্য হইবেন।”

আইনি নোটিশের ব্যাপারে জানতে চাইলে মশিউজ্জামান খান জানান, “আমি বাড়িতে থাকি না এবং এসব ব্যাপারে একেবারেই অবগত না। ১৬ জুন ঘটনাস্থলেও ছিলাম না এবং জানতামও না। মূলত হিংসা-প্রতিহিংসা থেকে হয়রানি এবং আত্নসসম্মানবোধ নষ্ট করতেই হয়তো করেছে।”

মামলা করার পর চাকুরীর ক্ষমতা দেখিয়ে মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি দিয়েছেন কিনা জানতে চাইলে অভিযুক্ত মশিউজ্জামান খান বলেন, “তাদের সাথে আমার কথাই হয়নি। আমি এসব শুনে তাজ্জব হয়ে গেছি।”

ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আরও বলেন, ” বিশ্ববিদ্যালয় এখন বন্ধ রয়েছে। আমাদের কাছে এখনো নোটিশ পৌঁছেনি। বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর বিষয়টি ভালো করে দেখে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।”

উল্লেখ্য, “গত ১৬ জুন তারিখ বিকালে ৩:৩০ মিনিটের সময় উপজেলার সাউথকান্দা গ্রামে ভাইদের মধ্যে জমি সংকান্ত বিরোদের জের ধরে অবসর প্রাপ্ত সেনা মোঃ মজিবর রহমান খান কে ডেকে নিয়ে ব্যাপক মারধর করা হয়। জাতীয় কবি কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার মশিউজ্জামান খান ও তার নেতৃত্বে এই ঘটনা টি ঘটেছে বলে জানা যায়। পরে স্থানীয় লোককজন এসে গুরুতর আহত মোঃ মজিবর রহমান খানকে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে যায় এবং এই ঘটনায় আহতের স্ত্রী মোছাঃ কামরুন্নাহার রুপা তাদের কে আসামী করে ত্রিশাল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.