The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বৃহস্পতিবার, ২৩শে মে, ২০২৪

দুই বছর পর শ্রেণিকক্ষে ফেরায় দারুণ খুশি প্রাক্‌-প্রাথমিকের শিশুরা

করোনার কারণে দুই বছর বন্ধ থাকার পর প্রাক্‌-প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদেরও সশরীর ক্লাস শুরু হলো। ফলে আজ মঙ্গলবার সকাল থেকেই বিদ্যালয়গুলো মুখর হয়ে উঠে শিশুদের পদচারণে। একই দিনে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে শ্রেণিকক্ষে স্বাভাবিক সময়ের মতো নিয়মিত ক্লাস শুরু হয়েছে।

টানা দুই বছর বন্ধের পর প্রাক্‌-প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীরাও বিদ্যালয়ে ফিরতে পারায় দারুণ খুশি। সকালে রাজধানীর ইস্কাটন এলাকায় অবস্থিত এ জি চার্জ স্কুলে সামনে গিয়ে দেখা যায়, অভিভাবকদের হাত ধরে স্কুলে আসছে ছোট ছোট শিশুরা। তাদের একজন প্রজন্ম প্রকৃতি প্রাশ্নিক। সে কেজি-২-তে পড়ে। ক্লাস করতে দুই বছর পর আজই স্কুলে এল সে। বলল, এত দিন অনলাইনে ক্লাস হয়েছে। কিন্তু আজ শ্রেণিকক্ষে ক্লাস হবে ।এ জন্য সে খুবই খুশি। এখন সে আরও অনেক কিছু শিখতে পারবে।

এ সময় তার বাবা বলছিলেন, স্কুলে আসার জন্য আজ খুব সকালেই তাঁর সন্তান ঘুম থেকে উঠে প্রস্তুতি নেয়।

আরেক শিক্ষার্থীকে দেখা গেল, সে তার মা-বাবার হাত ধরে স্কুলে আসছে। তার বাবা কৌশিক সাহা বলছিলেন, তাঁর মেয়ে সমর প্রীতা সাহা ২০২০ সালে ভর্তি হওয়ার পর আজই প্রথম স্কুলে এল। এখন তার মেয়ে কেজি ক্লাসে পড়ে।

বাংলামোটর এলাকায় অবস্থিত খোদেজা খাতুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দোতলার একটি শ্রেণিকক্ষে গিয়ে দেখা গেল, আনন্দমুখর পরিবেশে প্রাক্‌-প্রাথমিকের শিশুদের শেখাচ্ছিলেন শিক্ষক। হাতে হাত ধরে শিক্ষার্থীরা গানের সুরে কিছু একটা শিখছিল।

জান্নাতুল ফেরদৌসি নামের এক ছাত্রী বলল, আগে স্কুলে আসেনি, আজ এসে তার খুবই মজা লাগছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরজাহান জানান, তাঁদের স্কুলে মোট শিক্ষার্থী ২০৫। এর মধ্যে প্রাক্‌-প্রাথমিকের শিক্ষার্থী ২৫ জন। সরকারের সিদ্ধান্ত হলো প্রাথমিকভাবে প্রাক্‌-প্রাথমিকে সপ্তাহে দুদিন (রবি ও মঙ্গলবার) ক্লাস হবে।

করোনা সংক্রমণের কারণে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছিল সরকার। দীর্ঘ ১৮ মাস পর গত বছরের সেপ্টেম্বরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয়। কিন্তু প্রাক্‌-প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের তখনো বিদ্যালয়ে না আনার সিদ্ধান্ত হয়। এরপর নতুন করে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় গত ২১ জানুয়ারি আবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি ঘোষণা করে সরকার, যা ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ছিল। এর মধ্যে মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ২২ ফেব্রুয়ারি খুলে দেওয়া হয়। এরপর ২ মার্চ প্রথম শেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণির ক্লাস শুরু হয়। এখন প্রাক্‌-প্রাথমিকও খুলে দেওয়া হলো।

দেশের সরকারি বিদ্যালয়গুলোতে পাঁচ থেকে ছয় বছর বয়সী শিশুদের জন্য এক বছর মেয়াদি প্রাক্‌-প্রাথমিক শিক্ষাস্তর রয়েছে। এটিকে ‘শিশু শ্রেণি’ বলা হয়। ইংরেজি মাধ্যম ও কিন্ডারগার্টেনের প্লে, নার্সারি ও কেজি শ্রেণিও প্রাক্-প্রাথমিক স্তরের মধ্যে পড়ে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.