The Rising Campus
News Media

টিনের ব্যবসা থেকে যেভাবে ওয়ালটনের মালিক হয়েছিলেন তিনি!

কঠোর পরিশ্রম সাফল্যের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ চাবিকাঠি। যে ব্যক্তি কঠোর পরিশ্রম করতে আগ্রহী না হয়ে আলস্যে দিন কাটায় এবং সবকিছুতে হতোদ্যম তাঁদের জীবনে সাফল্য প্রায় অসম্ভব। দীর্ঘদিনের পরিশ্রম বা নিরবচ্ছিন্ন পরিশ্রমের ফলেই ধরা দেয় একজন মানুষের কাঙ্ক্ষিত সাফল্য।

আর এমনই একজন পরিশ্রমী মানুষ ওয়ালটন গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এস এম নজরুল ইসলাম। বাংলাদেশের ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স উৎপাদন শিল্পের পথিকৃৎ ছিলেন তিনি। ২০০২ সালে দেশের অন্যতম শীর্ষ ইলেকট্রনিক্স, ইলেকট্রিক্যাল ও হোম অ্যাপ্লায়েন্সেস প্রস্তুত ও বাজারজাতকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপ যাত্রা শুরু করে।

বর্তমানে গাজীপুরের চন্দ্রায় এ প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব জমিতে গড়ে উঠেছে ওয়ালটন হাইটেক ও ওয়ালটন মাইক্রোটেক করপোরেশন নামের দুটি ফ্যাক্টরি। এ ফ্যাক্টরি থেকে ইলেকট্রনিক্স, ইলেকট্রিক্যাল ও হোম অ্যাপ্লায়েন্সেস প্রস্তুত হয়ে বাজারজাত হচ্ছে দেশজুড়ে। এর অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ড্রিম পার্ক ইন্টারন্যাশনাল, মার্সেল ও ডিজিটেক।

ওয়ালটন গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এস এম নজরুল ইসলামের ছো’ট ভাই ও ওয়ালটন গ্রুপের অপারেটিভ ডিরেক্টর আলহাজ মো. মজিবুর রহমান বলেন, পারিবারিকভাবে ব্যবসায়ী ছিলেন এস এম নজরুল ইসলাম। ব্রিটিশ আমলে তিনি কর্ণফুলী পেপার মিলের ঠিকাদারি কাজে লিপ্ত ছিলেন। এরপর দেশ স্বাধীনের পর বিভিন্ন ধরনের ঠিকাদারি ব্যবসা পরিচালনা শুরু করেন। টাঙ্গাইল পৌর এলাকার আদালত রোডে ছিল নিজস্ব টিনের ব্যবসা। এ ব্যবসায় মন্দা দেখা দেওয়ায় নতুন ব্যবসার উদ্যোগ গ্রহণ করেন। এরই ধারাবাহিকতায় ট্রাইকন টিভি তৈরি ও বাজারজাতকরণের মাধ্যমে শুরু করেন ইলেকট্রনিক্স ও ইলেকট্রিক্যাল ব্যবসা। কিছুদিন এ ব্যবসা পরিচালনার পর ২০০২ সালে এস এম নজরুল ইসলামের হাত ধরে যাত্রা শুরু করে ওয়ালটন গ্রুপ।

১৯২৪ সালে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার ঘারিন্দা ইউনিয়নের গোসাই জোয়াইর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন এস এম নজরুল ইসলাম। তার বাবার নাম সরকার মো. আতোয়ার আলী। ব্যবসায়ী হওয়া সত্ত্বেও এস এম নজরুল ইসলাম নানা সমাজসেবামূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত ছিলেন। তার নিজস্ব জমির ওপর নির্মিত হয়েছে গোসাই জোয়াইর কমিউনিটি ক্লিনিক। এর আসবাবপত্র দাতাও ছিলেন তিনি।

তিনি টাঙ্গাইল কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের পরিচালক, জমি বন্ধকি ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক, জেলা সার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ও গোসাই জোয়াইর আজিম মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি ছিলেন। বর্তমানে ওয়ালটন গ্রুপের দায়িত্ব পালন করছেন তার ছেলে এস এম নুরুল আলম রেজভী, এস এম শামসুল আলম, এস এম আশরাফুল আলম, এস এম মাহবুবুল আলম, এস এম রেজাউল আলম ও মেয়ে নিলুফা বেগম। এ ছাড়া তার আরেক মেয়ে সেফালী খাতুন গৃহিণী।

29
You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.