The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
মঙ্গলবার, ৫ই মার্চ, ২০২৪

জাপানের সর্বোচ্চ খেতাবে ভূষিত হলেন ড. আবুল বারকাত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অর্থনীতি বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত জাপানের সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘অর্ডার অব দ্য রাইজিং সান, গোল্ড রে উইথ নেক রিবন ২০২২’ এ ভূষিত হয়েছেন। গত শুক্রবার (৪ নভেম্বর) বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগ প্রতিষ্ঠা, বাংলাভাষী শিক্ষার্থীদের জাপানবিষয়ক বহুমুখী অধ্যয়ন এবং এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জনের সুযোগ করে দিতে অধ্যাপক ড. আবুল বারকাতের আগ্রহ, নিষ্ঠা ও অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে তাকে এই খেতাব প্রদান করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) ‘২০২২ ফল ইম্পেরিয়াল ডেকোরেশনস’ শিরোনামে স্বর্ণ, রৌপ্য ও ব্রোঞ্জ ক্যাটাগরিতে দেশি-বিদেশি নাগরিকদের এই পুরস্কারের জন্য নির্বাচন করে জাপান সরকার। অধ্যাপক ড. বারকাত বিদেশি নাগরিকদের মধ্যে অন্যতম, যিনি এ বছর স্বর্ণপদকে ভূষিত হয়েছেন।

১৮৭৫ সালে জাপানের সম্রাট মেইজি দ্য গ্রেট এই পুরস্কার প্রবর্তন করেন, যা দেশটির ইতিহাসে প্রবর্তিত প্রথম খেতাব। সামরিক বাহিনী সদস্য ছাড়া সরকারি-বেসরকারি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়।

আরো পড়ুন: বিলাস-ব্যসন বিসর্জন দিয়ে নিজের গ্রামকে শহরে পরিণত করছেন সাদিও মানে

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. জাতীয়
  3. জাপানের সর্বোচ্চ খেতাবে ভূষিত হলেন ড. আবুল বারকাত

জাপানের সর্বোচ্চ খেতাবে ভূষিত হলেন ড. আবুল বারকাত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অর্থনীতি বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত জাপানের সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘অর্ডার অব দ্য রাইজিং সান, গোল্ড রে উইথ নেক রিবন ২০২২’ এ ভূষিত হয়েছেন। গত শুক্রবার (৪ নভেম্বর) বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগ প্রতিষ্ঠা, বাংলাভাষী শিক্ষার্থীদের জাপানবিষয়ক বহুমুখী অধ্যয়ন এবং এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জনের সুযোগ করে দিতে অধ্যাপক ড. আবুল বারকাতের আগ্রহ, নিষ্ঠা ও অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে তাকে এই খেতাব প্রদান করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) ‘২০২২ ফল ইম্পেরিয়াল ডেকোরেশনস’ শিরোনামে স্বর্ণ, রৌপ্য ও ব্রোঞ্জ ক্যাটাগরিতে দেশি-বিদেশি নাগরিকদের এই পুরস্কারের জন্য নির্বাচন করে জাপান সরকার। অধ্যাপক ড. বারকাত বিদেশি নাগরিকদের মধ্যে অন্যতম, যিনি এ বছর স্বর্ণপদকে ভূষিত হয়েছেন।

১৮৭৫ সালে জাপানের সম্রাট মেইজি দ্য গ্রেট এই পুরস্কার প্রবর্তন করেন, যা দেশটির ইতিহাসে প্রবর্তিত প্রথম খেতাব। সামরিক বাহিনী সদস্য ছাড়া সরকারি-বেসরকারি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়।

আরো পড়ুন: বিলাস-ব্যসন বিসর্জন দিয়ে নিজের গ্রামকে শহরে পরিণত করছেন সাদিও মানে

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন