The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
শনিবার, ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪

জবি শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের অভিযোগ, আটক ১

জবি প্রতিনিধি: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) এক ছাত্রীকে নারী নির্যাতনের অভিযোগে স্থানীয় এক বখাটে যুবককে আটক করা হয়েছে। রবিবার (৪ জুন) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় পুরান ঢাকার পাতলা খান লেন সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, শনিবার সন্ধ্যার পর ওই ছাত্রী টিউশনি শেষে বাসায় ফিরছিল। এ সময় শহিদুল ইসলাম (২৭) নামে এক যুবক পেছন থেকে মুঠোফোনে ওই ছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করছিলো।

বিষয়টি বুঝতে পেরে ওই শিক্ষার্থী প্রতিবাদ করলে তাকে খারাপ ভাষায় গালাগালি করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে আরও জানা যায়, প্রতিবাদের একপর্যায়ে ওই বখাটে স্থানীয়দের ডেকে ওই ছাত্রীর সাথে বাজে আচরণ শুরু করে। ওই মুহূর্তে ঘটনাস্থলের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় বিষয়টি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষক আতিয়ার রহমানের নজরে পড়ে। তিনি ভুক্তভোগী ছাত্রীর পরিচয় জানতে পেরে তার বাবা পরিচয় দিয়ে প্রতিবাদ করতে গেলে তাকেও মারধরের হুমকি দেয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে তাৎক্ষণিক বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন সহকারী প্রক্টর এবং কয়েকজন শিক্ষক হাজির হলে ওই যুবক পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তখন স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে ধরে সূত্রাপুর থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করা হয়।

এ বিষয়ে সহকারী প্রক্টর নিউটন হাওলাদার বলেন, হেনস্তার শিকার হওয়া শিক্ষার্থী মামলা করেনি। সে একটা লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। অভিযুক্ত ছেলের ভাই ও চাচা এসেছিলো এবং তারা কথা দিয়েছে পরবর্তীতে এমন ঘটনা ঘটলে তারা দায়ী থাকবে।

ঘটনার বিষয়ে সূত্রাপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক নাহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা ওই যুবককে লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে আটক রেখেছি। তাকে আদালতে চালান করা হবে।

এ বিষয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মোস্তফা কামাল বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে আমরা তাৎক্ষণিক একজন প্রক্টরকে পাঠাই। বখাটে যুবককে আটক করে থানায় নেয়া হয়েছে। ওই শিক্ষার্থী যদি মামলা বা অন্য কোনে আইনি পদক্ষেপ নিতে চাই আমরা সব ধরনের সহযোগিতায় পাশে থাকব।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. ক্যাম্পাস
  3. জবি শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের অভিযোগ, আটক ১

জবি শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের অভিযোগ, আটক ১

জবি প্রতিনিধি: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) এক ছাত্রীকে নারী নির্যাতনের অভিযোগে স্থানীয় এক বখাটে যুবককে আটক করা হয়েছে। রবিবার (৪ জুন) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় পুরান ঢাকার পাতলা খান লেন সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, শনিবার সন্ধ্যার পর ওই ছাত্রী টিউশনি শেষে বাসায় ফিরছিল। এ সময় শহিদুল ইসলাম (২৭) নামে এক যুবক পেছন থেকে মুঠোফোনে ওই ছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করছিলো।

বিষয়টি বুঝতে পেরে ওই শিক্ষার্থী প্রতিবাদ করলে তাকে খারাপ ভাষায় গালাগালি করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে আরও জানা যায়, প্রতিবাদের একপর্যায়ে ওই বখাটে স্থানীয়দের ডেকে ওই ছাত্রীর সাথে বাজে আচরণ শুরু করে। ওই মুহূর্তে ঘটনাস্থলের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় বিষয়টি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষক আতিয়ার রহমানের নজরে পড়ে। তিনি ভুক্তভোগী ছাত্রীর পরিচয় জানতে পেরে তার বাবা পরিচয় দিয়ে প্রতিবাদ করতে গেলে তাকেও মারধরের হুমকি দেয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে তাৎক্ষণিক বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন সহকারী প্রক্টর এবং কয়েকজন শিক্ষক হাজির হলে ওই যুবক পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তখন স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে ধরে সূত্রাপুর থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করা হয়।

এ বিষয়ে সহকারী প্রক্টর নিউটন হাওলাদার বলেন, হেনস্তার শিকার হওয়া শিক্ষার্থী মামলা করেনি। সে একটা লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। অভিযুক্ত ছেলের ভাই ও চাচা এসেছিলো এবং তারা কথা দিয়েছে পরবর্তীতে এমন ঘটনা ঘটলে তারা দায়ী থাকবে।

ঘটনার বিষয়ে সূত্রাপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক নাহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা ওই যুবককে লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে আটক রেখেছি। তাকে আদালতে চালান করা হবে।

এ বিষয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মোস্তফা কামাল বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে আমরা তাৎক্ষণিক একজন প্রক্টরকে পাঠাই। বখাটে যুবককে আটক করে থানায় নেয়া হয়েছে। ওই শিক্ষার্থী যদি মামলা বা অন্য কোনে আইনি পদক্ষেপ নিতে চাই আমরা সব ধরনের সহযোগিতায় পাশে থাকব।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন