The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
শনিবার, ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪

জবির ৬ শিক্ষার্থী পাবেন ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’

জবি প্রতিনিধি: স্নাতক ও সম্মানের সর্বোচ্চ ফলাফল ও নম্বরের ওপর ভিত্তি করে ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ পেতে যাচ্ছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ছয় অনুষদের ছয় শিক্ষার্থী। ইউজিসির মনোনয়ন বোর্ড এ ছয় শিক্ষার্থীকে প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক-২০১৯ এর জন্য নির্বাচিত করেছেন। এই ছয়জন মনোনীত শিক্ষার্থীর মধ্যে চার জনই নারী। স্নাতক শ্রেণিতে মেধায় অসামান্য অবদান রাখায় তাদের প্রত্যেককে ইউজিসি থেকে সম্মানসূচক এ পদক দেয়া হবে।

মঙ্গলবার (২ মে) বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) রিসার্চ সাপোর্ট এন্ড পাবলিকেশন ডিভিশনের পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদকের জন্য প্রাথমিকভাবে মনোনীত শিক্ষার্থীদের নাম ইউজিসির ওয়েবসাইটেও প্রকাশ করা হয়েছে।

ফখরুল ইসলাম জানান, ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক ২০১৯’ প্রদানের লক্ষ্যে কমিশনের প্রদত্ত নীতিমালার আলোকে বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ হতে প্রাপ্ত মনোনীত প্রার্থীদের আবেদন যাচাইবাছাই শেষে ৩৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭৮ জন শিক্ষার্থীকে প্রাথমিকভাবে মনোনীত করা হয়েছে। তন্মধ্যে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছয় অনুষদ থেকে ছয়জনকে মনোনীত করা হয়েছে। মনোনীত শিক্ষার্থীদের তথ্য ভুল না থাকলে তারাই চূড়ান্তভাবে মনোনীত হবেন এবং পরবর্তীতে অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী তাদের হাতে পদক তুলে দিবেন।

স্বর্ণপদকে মনোনীত শিক্ষার্থীরা হলেন- কলা অনুষদের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী সুরাইয়া বিনতে রফিক (B140105051) (সিজিপিএ ৩.৮৬), সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ থেকে অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী মিতু রানী রায় (B140401004) (সিজিপিএ ৩.৯০), বিজ্ঞান অনুষদে পরিসংখ্যান বিভাগের মো. ইসমাঈল হোসেন হৃদয় (B140304058) (সিজিপিএ ৩.৯০), লাইফ অ্যান্ড আর্থ সায়েন্স অনুষদের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের শারমিন আক্তার (B140605005) (সিজিপিএ ৪.০০), ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের একাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস্ মো. সাগর ইসলাম (B140201188) (সিজিপিএ ৩.৯১), আইন অনুষদের আইন বিভাগের মাহমুদা আমির ইভা (B140501006) (সিজিপিএ ৩.৭৬)। মনোনীত শিক্ষার্থীদের প্রত্যেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৪-১৫ সেশন ও ১০ম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন।

এ বছর ৩২টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মোট ১৭৩ জন শিক্ষার্থী এই স্বর্ণপদকের জন্য প্রাথমিকভাবে মনোনীত হয়েছেন। এছাড়াও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একজন করে মোট তিনজন শিক্ষার্থী পাবেন এ স্বর্ণপদক। এ ছাড়া বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রেকর্ড নম্বর অর্জনকারী দুজন শিক্ষার্থীকেও দেয়া হবে এ পদক।

মনোনীতদের তালিকায় সর্বোচ্চ ১১ জন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এরপর ৯ জন করে রয়েছেন রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে।

দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে উচ্চশিক্ষায় মেধাবী শিক্ষার্থীদের মেধাবিকাশে ও লেখাপড়ার প্রতি উৎসাহিত করতে এবং কৃতিত্বপূর্ণ ফলের স্বীকৃতি হিসেবে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) ২০০৫ সাল থেকে ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ প্রবর্তন করে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. উদ্যোক্তা ও সফলতার গল্প
  3. জবির ৬ শিক্ষার্থী পাবেন ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’

জবির ৬ শিক্ষার্থী পাবেন ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’

জবি প্রতিনিধি: স্নাতক ও সম্মানের সর্বোচ্চ ফলাফল ও নম্বরের ওপর ভিত্তি করে ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ পেতে যাচ্ছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ছয় অনুষদের ছয় শিক্ষার্থী। ইউজিসির মনোনয়ন বোর্ড এ ছয় শিক্ষার্থীকে প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক-২০১৯ এর জন্য নির্বাচিত করেছেন। এই ছয়জন মনোনীত শিক্ষার্থীর মধ্যে চার জনই নারী। স্নাতক শ্রেণিতে মেধায় অসামান্য অবদান রাখায় তাদের প্রত্যেককে ইউজিসি থেকে সম্মানসূচক এ পদক দেয়া হবে।

মঙ্গলবার (২ মে) বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) রিসার্চ সাপোর্ট এন্ড পাবলিকেশন ডিভিশনের পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদকের জন্য প্রাথমিকভাবে মনোনীত শিক্ষার্থীদের নাম ইউজিসির ওয়েবসাইটেও প্রকাশ করা হয়েছে।

ফখরুল ইসলাম জানান, ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক ২০১৯’ প্রদানের লক্ষ্যে কমিশনের প্রদত্ত নীতিমালার আলোকে বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ হতে প্রাপ্ত মনোনীত প্রার্থীদের আবেদন যাচাইবাছাই শেষে ৩৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭৮ জন শিক্ষার্থীকে প্রাথমিকভাবে মনোনীত করা হয়েছে। তন্মধ্যে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছয় অনুষদ থেকে ছয়জনকে মনোনীত করা হয়েছে। মনোনীত শিক্ষার্থীদের তথ্য ভুল না থাকলে তারাই চূড়ান্তভাবে মনোনীত হবেন এবং পরবর্তীতে অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী তাদের হাতে পদক তুলে দিবেন।

স্বর্ণপদকে মনোনীত শিক্ষার্থীরা হলেন- কলা অনুষদের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী সুরাইয়া বিনতে রফিক (B140105051) (সিজিপিএ ৩.৮৬), সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ থেকে অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী মিতু রানী রায় (B140401004) (সিজিপিএ ৩.৯০), বিজ্ঞান অনুষদে পরিসংখ্যান বিভাগের মো. ইসমাঈল হোসেন হৃদয় (B140304058) (সিজিপিএ ৩.৯০), লাইফ অ্যান্ড আর্থ সায়েন্স অনুষদের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের শারমিন আক্তার (B140605005) (সিজিপিএ ৪.০০), ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের একাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস্ মো. সাগর ইসলাম (B140201188) (সিজিপিএ ৩.৯১), আইন অনুষদের আইন বিভাগের মাহমুদা আমির ইভা (B140501006) (সিজিপিএ ৩.৭৬)। মনোনীত শিক্ষার্থীদের প্রত্যেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৪-১৫ সেশন ও ১০ম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন।

এ বছর ৩২টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মোট ১৭৩ জন শিক্ষার্থী এই স্বর্ণপদকের জন্য প্রাথমিকভাবে মনোনীত হয়েছেন। এছাড়াও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একজন করে মোট তিনজন শিক্ষার্থী পাবেন এ স্বর্ণপদক। এ ছাড়া বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রেকর্ড নম্বর অর্জনকারী দুজন শিক্ষার্থীকেও দেয়া হবে এ পদক।

মনোনীতদের তালিকায় সর্বোচ্চ ১১ জন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এরপর ৯ জন করে রয়েছেন রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে।

দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে উচ্চশিক্ষায় মেধাবী শিক্ষার্থীদের মেধাবিকাশে ও লেখাপড়ার প্রতি উৎসাহিত করতে এবং কৃতিত্বপূর্ণ ফলের স্বীকৃতি হিসেবে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) ২০০৫ সাল থেকে ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ প্রবর্তন করে।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন