The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
সোমবার, ২৪শে জুন, ২০২৪

চবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচন চলছে, ১১ পদে লড়ছেন হলুদ দলেরই ২২ প্রার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শিক্ষক সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটি ২০২৪ এর নির্বাচনে ভোটগ্রহন চলছে। চলমান নির্বাচন বর্জন করেছে বিএনপি-জামায়াতপন্থি সাদা দলের প্রার্থীরা। এবার নির্বাচনে ১১ পদের বিপরীতে লড়ছেন ২২ জন প্রার্থী।

এর আগে গত ২১ এপ্রিল প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন। এবার আওয়ামী ও বামপন্থি শিক্ষকদের হলুদ দল থেকে ১১ পদে পূর্ণ প্যানেল ঘোষণা করা হলেও বিএনপি-জামায়াতপন্থি শিক্ষকদের সাদা দল ও জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম অংশগ্রহণ করছেন না নির্বাচনে।

মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের মিলনায়তনে সকাল ৯টায় শুরু হয় ভোট গ্রহণ। একই দিন ভোট গণনা শেষে ঘোষণা করা হবে নির্বাচনের ফলাফল।

প্রার্থীরা হলেন- সভাপতি পদে ইনস্টিটিউট অব ফরেস্ট্রি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. দানেশ মিয়া ও উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. মাহবুবুর রহমান। সহসভাপতি পদে জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. নাজনীন নাহার ইসলাম ও নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলা উদ্দিন। কোষাধ্যক্ষ পদে আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মঈন উদ্দীন ও হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক শাহনেওয়াজ মাহমুদ সোহেল।

সাধারণ সম্পাদক পদে আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. এবিএম আবু নোমান ও উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের ড. মোহাম্মদ ওমর ফারুক। যুগ্ম সম্পাদক পদে ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক গোলাম কুদ্দুস লাবলু ও ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. নজরুল ইসলাম।

এছাড়া ৬ সদস্য পদের বিপরীতে ১২ প্রার্থী হলেন- উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের ড. অনিমেষ বিশ্বাস, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ড. এএসএম বোরহান উদ্দীন, দর্শন বিভাগের এফএম এনায়েত হোসেন, সমাজতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক এসএম মনিরুল হাসান, নৃবিজ্ঞান বিভাগের এসএম সাদাত আল সাজীব, পদার্থবিদ্যা বিভাগের ড. একেএম রেজাউর রহমান, সমাজতত্ত্ব বিভাগের পারভীন সুলতানা, আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের মঞ্জুরুল আলম, আরবি বিভাগের ড. মুহাম্মাদ নুর হোসাইন, আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন, ফিশারিজ বিভাগের অধ্যাপক মো. রাশেদ-উন-নদী ও চারুকলা ইনস্টিটিউটের সুফিয়া বেগম।

অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে দলীয় নিয়োগ ও নির্বাচনের কোনো পরিবেশ না থাকায় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেননি বলে জানান সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মো. শামীম উদ্দিন খান।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.